চলমান দলবদল মৌসুমে খেলোয়াড় কেনায় চেলসির ধারে কাছেও নেই ইংল্যান্ডের আর কোনো ক্লাব। বেন চিলওয়েল, টিমো ভারনারের পর তাদের সর্বশেষ সংযোজন কাই হাভার্টজ। বায়ার লেভারকুসেন থেকে ৭০ মিলিয়ন পাউন্ডে (প্রায় ৭৮৯ কোটি টাকা) ২১ বছর বয়সী এই জার্মান অ্যাটাকিং মিডফিল্ডারকে ৫ বছরের চুক্তিতে দলে ভিড়িয়েছে চেলসি। ব্লু শিবিরে যোগ দিতে পেরে উচ্ছ্বসিত হাভার্টজ। তিনি বলেন, ‘এখানে আসতে পেরে আমি খুব খুশি ও গর্বিত। চেলসির মতো বড় ক্লাবের হয়ে খেলাটা স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো ব্যাপার। ক্লাব সর্তীথ ও কোচদের সঙ্গে সাক্ষাত করতে তর সইছে না আমার।’

জার্মানির এ প্রজন্মের অন্যতম প্রতিভাধর ফুটবলবার মনে করা হয় হাভার্টজকে। ১৭ বছর বয়সে লেভারকুসেনের জার্সিতে বুন্দেসলিগায় অভিষেক তার।
আর প্রথমবার জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চড়ান ২০১৮তে। এখন পর্যন্ত ৭ ম্যাচ খেলে করেছেন এক গোল। লেভারকুসেনের জার্সিতে গত মৌসুমটা দুর্দান্ত কেটেছে এই তরুণের। ৪৫ ম্যাচে করেছেন ১৮ গোল। সবমিলিয়ে লীগ পর্যায়ে ১৫০ ম্যাচে ৪৬ গোল করা হাভার্টজ পেয়েছেন ‘পরবর্তী মাইকেল বালাক’ খেতাব। ২০০৬ সালে লেভারকুসেন থেকেই চেলসিতে  নাম লিখিয়েছিলেন বালাক। চার মৌসুমে ব্লুদের হয়ে ১৬৬ ম্যাচে ২৫ গোল করেন তিনি। জেতেন একটি প্রিমিয়ার লীগ, তিনটি এফএ কাপ ও একটি লীগ কাপ শিরোপা। আর রানার্সআপ হন ২০০৮ চ্যাম্পিয়ন্স লীগে।
৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার হাভার্টজ মূলত ১০ নম্বর পজিশনে খেলেন। তবে আক্রমণভাগের যেকোনো জায়গায় মানিয়ে নিতে পারেন তিনি। ৪-২-৩-১ ফরমেশনের ক্ষেত্রে নাম্বার ১০ আর ৪-৩-৩ ফরমেশনে নাম্বার ৮ পজিশনে তাকে ব্যবহার করতে পারবেন কোচ ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড। স্বদেশি টিমো ভারনারের সঙ্গে মিলে হাভার্টজ দারুণ এক অ্যাটাকিং জুটি গড়ে তুলবেন বলে বিশ^াস চেলসি সমর্থকদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English