Saturday, July 2, 2022
spot_img
Homeবিনোদনহানিমুনেই অ্যাম্বারকে মেরে ফেলতে চেয়েছিলেন জনি ডেপ!

হানিমুনেই অ্যাম্বারকে মেরে ফেলতে চেয়েছিলেন জনি ডেপ!

একের পর এক নতুন বিতর্কের জন্ম দিচ্ছেন হলিউড অভিনেতা জনি ডেপ ও তার সাবেক স্ত্রী আম্বার হার্ড। দুজন দুজনের বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ ক্রমেই বাড়ছে। আদালতে নিজের অভিযোগের পক্ষে সাফাই গাইছেন আম্বার। অন্যদিকে আম্বারের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন জনি ডেপ। ডেপের মামলার শুনানি চলছে ভার্জিনিয়ার আদালতে। সেখানেও উঠে আসছে পারস্পরিক অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ।

এবার জনি ডেপের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে আম্বার বলেন, হানিমুনের সময়ই আম্বারকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দিতে চেয়েছিলেন জনি ডেপ। শুধু তাই নয়, মাদকাসক্ত জনি সিগারেটের ছ্যাঁকা দিতেন আম্বারের গায়ে। আদালতে এমনই অভিযোগ করলেন জনি ডেপের সাবেক স্ত্রী।

আদালতে অ্যাম্বার জানান, তিনি যে এতদিন বেঁচে আছেন, সেটাই আশ্চর্য। ২০১৫ সালে হানিমুনে গিয়ে মৃত্যুভয় প্রত্যক্ষ করেছিলেন তিনি। জনি নাকি তাকে ওরিয়েন্ট এক্সপ্রেসের মধ্যেই গলা টিপে ধরেছিলেন। ঘাড় ধরে ফেলে দিতে গিয়েছিলেন চলন্ত ট্রেন থেকে।

অ্যাম্বারের দাবি, সেটাই ছিল শুরু। এর পর প্রায় প্রতি দিনই পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়েছেন তিনি। অভিযোগ, জনি তার ওপর সব রকম অত্যাচার করতেন। সেই সঙ্গে সাবেক স্বামীকে মাদকাসক্ত ও স্বেচ্ছাচারী হিসেবেও উল্লেখ করেন অ্যাম্বার।

তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ‘চার্লি অ্যান্ড দ্য চকোলেট ফ্যাক্টরি’র অভিনেতা। তার পক্ষের উকিলরাও অ্যাম্বারকে প্রতিনিয়ত নিরস্ত করার চেষ্টা করে চলেছেন। তাদের পাল্টা অভিযোগ, অ্যাম্বার জনিকে হেনস্তা করেছেন। শয্যায় মলত্যাগ করা-সহ নানাভাবে অভিনেতার মান নষ্ট করেছেন।

এদিকে অ্যাম্বারের স্পষ্ট কথা, তর্ক-বিতর্ক তাদের মধ্যে চলতই, যেমন আরও পাঁচটা দম্পতির চলে। কিন্তু তর্ক করতে করতেই নাকি উত্তেজিত হয়ে পড়তেন জনি। একবার সোজা এসে ছুরি চালিয়ে দিয়েছেন অ্যাম্বারের গায়ে। জ্বলন্ত সিগারেটের ছ্যাঁকা দিতেন তাকে, এমনটাও অভিযোগ করেন তিনি।

অ্যাম্বারের দাবি, জনিকে তিনি আজও ভালোবাসেন। কাউকে কিছু না বলে মেকআপের সাহায্যে ক্ষত ঢেকে ঘুরতেন। প্রয়োজনে মানসিক চিকিৎসকের কাছে গেছেন, তবুও জনির মর্যাদা ক্ষুণ্ণ হয় এমন কিছুই করেননি।

আগামী ২৭ মে পর্যন্ত তাদের মামলার ট্রায়াল চলবে বলে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমসূত্রে জানা গেছে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments