Tuesday, July 16, 2024
spot_img
Homeধর্মহজ ও ওমরাহ নিয়ে প্রযুক্তিগত প্রতিযোগিতার বিজয়ী ঘোষণা

হজ ও ওমরাহ নিয়ে প্রযুক্তিগত প্রতিযোগিতার বিজয়ী ঘোষণা

পবিত্র হজ ও ওমরাহ পালনের ক্ষেত্রে মুসল্লিদের বিভিন্ন সমস্যার প্রযুক্তিগত সমাধান দিয়ে বিজয়ী পাঁচটি দলের নাম ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। হজ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলন ও প্রদর্শনী শেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের নাম ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে প্রথম পুরস্কার হিসেবে ৫০ হাজার সৌদি রিয়াল, দ্বিতীয় পুরস্কার ৪০ হাজার, তৃতীয় পুরস্কার ৩০ হাজার, চতুর্থ পুরস্কার ২০ হাজার ও পঞ্চম পুরস্কার ১০ হাজার রিয়াল দেওয়া হয়।

আরব নিউজ সূত্রে জানা যায়, গত ৪ জানুয়ারি হজ ও ওমরাহ চ্যালেঞ্জ প্রতিযোগিতা শুরু হয়। হজ ও ওমরাহযাত্রীদের সমস্যার প্রযুক্তিগত সমাধান দিতে সারা বিশ্ব থেকে প্রথম ধাপে প্রায় ৮০০ দল অংশ নেয়। চূড়ান্ত পর্বে প্রতিযোগিতার জন্য ১১টি দলকে নির্বাচন করা হয়, যার মধ্যে পাঁচটি দল বিজয়ী হিসেবে উত্তীর্ণ হয়। এতে ছয়টি বিষয়ে উদ্ভাবনী সমাধানের চেষ্টা করা হয়। তা হলো :  হজ ও ওমরাহ ভ্রমণ বিষয়ক তথ্য প্রদান, খাদ্য ও আতিথেয়তা, প্রতিবন্ধীদের জন্য পরিষেবা, বর্জ্য পুনর্ব্যবহার, ব্যাগেজ পরিবহন বিষয়ক তথ্য প্রদান ও হারিয়ে যাওয়া ব্যক্তিদের পথনির্দেশ করা।

প্রথম পুরস্কার বিজয়ী দলের নেতা উম্মুল কুরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী রাগাব আল-শরিফ জানান, ‘তিন সদস্যের আমাদের দলটি ‘মক্কাহ স্টোরি’ নামে একটি অ্যাপ তৈরি করে। এর মাধ্যমে মক্কার প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ও ঐতিহাসিক কাহিনি তুলে ধরা হয়। এতে মুসল্লি ও দর্শনার্থীদের ভ্রমণকে আরো দুর্দান্ত করতে রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ দিকনির্দেশনা। আমরা গত চার দিন না ঘুমিয়ে দিন-রাত অনবরত কাজ করি। তাই প্রতিযোগিতায় সেরা বিজয়ী হওয়ার অনুভূতি আমাদের বর্ণনাতীত।’

দ্বিতীয় পুরস্কার বিজয়ী দলনেতা জুমানা আল-ওয়াফি বলেন, ‘আমরা মক্কার পবিত্র স্থানগুলোতে বর্জ্য জমা হওয়ার পথ সম্পর্কে ধারণা তৈরি নিয়ে কাজ করেছি। হারাম ক্যামেরার মাধ্যমে মক্কার রাস্তা বা পাত্রের বর্জ্য শনাক্তে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সহযোগিতা নিয়ে কাজ করি। এর মাধ্যমে কর্তৃপক্ষকে জানানো যাবে যে অমুক স্থানে এত পরিমাণ বর্জ্য রয়েছে, যার ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

প্রতিযোগিতা চলাকালে অংশগ্রহণকারীদের জন্য ১২টি সেশন এবং আটটি কর্মশালার ব্যবস্থা করা হয়। প্রতিযোগিতার প্রধান লক্ষ্য হলো, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে প্রগ্রামিংয়ের প্রতি সবার মধ্যে আকর্ষণ তৈরি করা। বিশেষত সৃজনশীলতা ও উদ্ভাবনী সমাধানের মাধ্যমে টেকসই প্রযুক্তি তৈরি করা এবং হজ ও ওমরাহর ক্ষেত্রে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি করা।

সূত্র : আরব নিউজ

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments