বিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারীতে ভয়াবহভাবে আক্রান্ত দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো। সার্কভুক্ত আটটি দেশ এই ভাইরাসের কবলে পড়েছে অনেক আগেই। দেশগুলোতে মার্চ থেকে শুরু হয়েছে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ। দীর্ঘ ছয় বছর পর কোভিড-১৯ সংক্রমণ ঠেকাতে সার্ক দেশগুলোতে একটি সমন্বিত কর্মকৌশল ঠিক করতে ১৫ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বাকি সাত দেশের প্রধানমন্ত্রীদের সাথে ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এছাড়াও দেশগুলোতে দফায় দফায় লকডাউন দেয়া সত্ত্বেও হু হু করে বেড়ে চলেছে করোনা রোগী।

শুক্রবার পর্যন্ত সার্কভুক্ত আটটি দেশের মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ৪৬ লাখ ৪৬ হাজার ৭২২ জন ও মারা গেছে এক লাখ ৬১ হাজার ৯৮৮ জন।

আর আটটি দেশের মধ্যে ভারত হলো আক্রান্তের সংখ্যা শীর্ষ দেশ। ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৯ লাখ ৩৬ হাজার ৭৪৭ ও মারা গেছে ৬৮ হাজার ৫৬৯ জন। তবে দেশটিতে মোট সুস্থতার সংখ্যা তিন লাখ ৩৭ হাজার ১৫১ জন। সারাবিশ্বে আক্রান্তের তালিকায় ভারত এখন তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে।

মহামারীর শুরুর দিকে কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যায় ভারত পাকিস্তান পাশাপাশি অবস্থান করলেও এখন পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে আক্রান্তের তালিকায় উপরে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশে বর্তমানে মোট আক্রান্ত তিন লাখ ১৯ হাজার ৬৮৬ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছে চার হাজার ৩৮৩ জন আর সুস্থ হয়েছে দুই লাখের বেশি মানুষ।

আর পাকিস্তানে মোট আক্রান্ত দুই লাখ ৯৭ হাজার ৫১২ জন। শুক্রবার নতুন সাতজনের মৃত্যুসহ মোট মৃত্যুর সংখ্যা ছয় হাজার ৩৩৫ জন। তবে সুস্থতার সংখ্যায় পাকিস্তান এগিয়ে রয়েছে।

আক্রান্তে লাখের কোঠা এখনো ছোঁয়নি সার্কভুক্ত বাকি দেশগুলোতে। নেপালে মোট আক্রান্ত ৪২ হাজার ৮৭৭ আর মৃত্যু ২৫৭ জন। আফগানিস্তানে আক্রান্ত ৩৮ হাজার ২৮৮ ও মৃত্যু এক হাজার ৪০৯, শ্রীলঙ্কায় আক্রান্ত তিন হাজার ১১১ ও মৃত্যু ১২ জন, মালদ্বীপে আক্রান্ত আট হাজার ২৮১ ও মৃত্যু মাত্র ২৯ জন। এখন পর্যন্ত ভালো অবস্থায় থাকা একমাত্র দেশ হলো ভূটান। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২২৭ এখনো কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি বলেই তাদের দাবি।

সূত্রঃ ওয়ার্ল্ডোমিটার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English