Monday, July 4, 2022
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকশাহবাজ পুতুল প্রধানমন্ত্রী, নওয়াজ-কন্যার ঘোষণায় স্পষ্ট

শাহবাজ পুতুল প্রধানমন্ত্রী, নওয়াজ-কন্যার ঘোষণায় স্পষ্ট

দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী কিংবা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কোনও কর্মকর্তা নন, পাকিস্তানে পরবর্তী নির্বাচন কবে হবে, তা ঠিক করবেন দূর্নীতির দায়ে পলাতক সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। প্রকাশ্য জনসভার মঞ্চ থেকে এমনটাই ঘোষণা করেছেন নওয়াজের মেয়ে এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের ভাস্তি, সেইসঙ্গে পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজের সহ-সভানেত্রী মারিয়ম নওয়াজ।

রোববার একটি জনসভায় অংশগ্রহণ করেন মারিয়ম। সভার মঞ্চ থেকে আগাগোড়া পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তথা পিটিআই নেতা ইমরান খানকে তুলাধনা করেন তিনি। তার অভিযোগ, যে কয়েক বছর ইমরান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর গদিতে ছিলেন, কাজের কাজ কিছুই করেননি। তার আমলেই পাকিস্তানের অবস্থা আরও শোচনীয় হয়ে পড়েছে। মারিয়মের সটান প্রশ্ন, এরপর নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরু হলে ইমরান খান জনতার মুখোমুখি হতে পারবেন তো?

মারিয়ম বলেন, ইমরান খান ক্ষমতা দখল করলেও যে মুহূর্তে তার উপর দেশের দায়িত্ব এসে পড়ে, তিনি তা থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। তার অযোগ্যতার জন্যই আজ পাকিস্তানের অবস্থা এত খারাপ বলেও অভিযোগ করেন মারিয়ম। প্রসঙ্গত, রোববারই ইমরান খান দাবি করেছিলেন, তাকে সরকার পক্ষ খুন করতে পারে। এই দাবি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন মারিয়ম।

এদিকে, পাকিস্তানে পরবর্তী ভোট কবে হবে, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই নানা মহলে প্রশ্নে উঠতে শুরু করেছে। এমনকী, মন্ত্রিসভার এক সদস্যের দাবি, আগামী নভেম্বর মাসের আগেই পাকিস্তানের নতুন করে সাধারণ নির্বাচন হতে পারে। সূত্রের দাবি, এই নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। এখন মারিয়মও একই কথা বলায় এ নিয়ে নতুন করে কাটাছেঁড়া শুরু করা হয়েছে।

ইমরান খানের অভিযোগ, শাহবাজ শরিফ আসলে পাকিস্তানের ‘পুতুল প্রধানমন্ত্রী’! তিনি নাকি আমেরিকার কাছে দেশ বিক্রি করে দিতেও প্রস্তুত! আর সেই কারণেই তাকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসানো হয়েছে। এই দাবিতে কতটা ভিত্তি আছে, তা তর্কসাপেক্ষ। কিন্তু, ওয়াকিবহাল মহলও মানছে, প্রধানমন্ত্রী হলেও শাহবাজ শরিফের হাতে এই মুহূর্তে পাকিস্তানের রাজৈনতিক ও প্রশাসনিক ক্ষমতার ভরকেন্দ্র নেই। বরং তা রয়েছে বিদেশের মাটিতেই!

এক্ষেত্রে লন্ডনে বসবাসকারী নওয়াজ শরিফের কথাই বলা হচ্ছে। দিন কয়েক আগে শাহবাজ নিজে লন্ডন গিয়ে বড় ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করে আসেন। তার সঙ্গে মারিয়ম নওয়াজ-সহ অন্য প্রতিনিধিরাও ছিলেন। সূত্রের দাবি, সেই বৈঠকে পাকিস্তানের পরবর্তী নির্বাচন নিয়েও আলোচনা হয়েছে। বস্তুত, নির্বাচন কবে হবে, প্রধান আলোচ্য নাকি সেটাই ছিল! মারিয়ম নওয়াজের মন্তব্যেও এবার সেই জল্পনাই সত্যি প্রমাণ হল। অর্থাৎ, স্বদেশে না থেকেও ফের একবার পাকিস্তানের রাজনীতি ও প্রশাসনে কার্যত শীর্ষ ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন নওয়াজ শরিফ। সূত্র: ডন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments