Saturday, January 28, 2023
spot_img
Homeবিনোদনশাকিবের কাছ থেকে কোনো আর্থিক সহায়তা নিইনি, ভিডিও বার্তায় বুবলী

শাকিবের কাছ থেকে কোনো আর্থিক সহায়তা নিইনি, ভিডিও বার্তায় বুবলী

শাকিব খানের সঙ্গে শবনম বুবলীর চার বছরের বিবাহজীবন। এর মধ্যে তারা সন্তানের বাবা-মা হয়েছেন। সেই সন্তানের বয়সও তিন বছরের কাছাকাছি। তবে এই লম্বা সময়ে শাকিব খানের কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা নেননি বলে দাবি করলেন বুবলী। তার মতে, বিয়ের পর থেকে কিংবা সন্তান পৃথিবীতে আসার পর থেকে নিজেই সবকিছু বহন করছেন। রবিবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় দেওয়া এক ভিডিও বার্তায় বুবলী এমন দাবি করেন।

ভিডিও বার্তায় বুবলী বলেন, ‘অনেকে বলে থাকেন, আমি নাকি শাকিব খানের কাছ থেকে অনেক আর্থিক সহায়তা নিই। এই কথাটাও সম্পূর্ণ ভুল। বিয়ে বা আমার সন্তান পৃথিবীতে আসার পর থেকে আমি কোনও আর্থিক সহায়তা নিইনি। স্বামী বা সন্তানের বাবা হিসেবে অবশ্যই এটা ওনার অনেক বড় দায়িত্ব। কিন্তু এটা সম্পূর্ণ তার ওপর নির্ভর করে। আমার সন্তানের বয়স তিন বছরের কাছাকাছি, আজ অব্দি আমি কখনোই আর্থিক সহায়তা নিইনি। সমস্ত কিছু নিজেই বহন করছি।’

সন্তানকে নিয়ে আমেরিকায় থাকাকালীন অনেক টাকা খরচ হয়েছিলো বলে জানান বুবলী। ওই সময়ে ১৫ হাজার ডলারের মতো দিয়েছিলেন শাকিব। বাকি অর্থ নিজে খরচ করেন নায়িকা। বুবলীর ভাষ্য, ‘সন্তানকে নিয়ে আমেরিকায় থাকার সময়টাতে অনেক বড় অংকের খরচ হয়েছে। প্রায় এক বছরের মতো থাকতে হয়েছিলো। তখন তিনি (শাকিব) ১৫ হাজার ডলারের মতো হেল্প করেছিলেন। বাকি প্রায় ৩০ হাজার ডলারের মতো আমি নিজে বহন করেছিলাম। টাকার অংকটাও বললাম, কারণ এটা নিয়ে অনেক ভুল নিউজ হয়েছে। গিফট বা উপহারের বিষয়গুলো আলাদা। তবে আর্থিক সহায়তা কখনও নিইনি।’

ভিডিওর একদম শেষের অংশে বুবলী বলেন, ‘কিছু জিনিস শেয়ার করেছি আমার সন্তানের জন্য। ও তো বড় হচ্ছে এবং আপনারা অনেক সময় ওকেও বিভিন্ন বিষয়ে ইনভলব করে ফেলেন। ওর কোনো দোষ নেই, ও তো ছোট মানুষ। ওর তো তিন বছর প্রায়। আমরা চেয়েছিলাম যে, আমরা একসঙ্গে খুব সুন্দরভাবে ওকে সামনে আনার, হয়তো হচ্ছিল না কোনোভাবে। আমি তো অলরেডি তিন বছর ওয়েট করেছি। ওর বিষয়টা সামনে আনার পরেও কিন্তু আমি কারো বিষয়ে কোনো অভিযোগ করিনি, আজকেও করছি না। না হলে ও হয়তো কখনো কোনো সময় প্রশ্ন করবে, মা তুমি তো কোনো কথা বলোনি কখনো।’

সন্তান সেহজাদের উদ্দেশে বুবলী বলেন, ‘বাবা শেহজাদ, মা হয়ে তোমার পাশে সারা জীবন থাকব না বাবা। কিন্তু অন্যান্য মায়ের মতো তোমার জন্য অনেক কষ্ট করেছি এবং করছি। তোমাকে পৃথিবীতে আনা, তোমাকে বড় করা। আমি সব সময় তোমার পাশে ছিলাম, আছি, থাকব। তুমি মানুষের মতো মানুষ হও বাবা এবং একটি কথা মনে রেখো, তোমার মা-বাবা তোমাকে অনেক ভালোবাসে। আমি হয়তো আমার জায়গা থেকে সব সময় তোমাকে সেরাটা দিতে পারি না। তোমাকে অনেক ভালোবাসি।’

কয়েকদিন আগেই বুবলী জানান, তার জন্মদিনে শাকিব খান হীরের নাকফুল উপহার দিয়েছিলেন। কিন্তু শাকিব বিষয়টি অস্বীকার করেন। এ নিয়ে বুবলী বলেন, নাকফুলের বিষয়টি নিয়ে অনেকে জানতে চাচ্ছিলেন; দেখুন কোনো স্বামী তার স্ত্রীকে কিছু উপহার দেন, সেই বিষয়টা যদি প্রমাণ করতে হয়, তা হলে এটা নিয়ে কথা বলাই উচিৎ না। উনি যে বক্তব্য দিয়েছেন, তারপরও যদি কিছু প্রমাণ করতে যাই, তাহলে তাকে অসম্মান করা হবে। তাই এই বিষয়টি নিয়ে আমি আর কোনো কথা বলতে চাচ্ছি না। উনি যেটা ভালো মনে করেছেন, বলেছেন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments