Friday, December 3, 2021
spot_img
Homeলাইফস্টাইলশরীরে ভিটামিন বি-১২ এর অভাব যেভাবে বুঝবেন

শরীরে ভিটামিন বি-১২ এর অভাব যেভাবে বুঝবেন

ভিটামিন বি-১২  আমাদের শরীরের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়৷ সার্বিক বৃদ্ধি, নতুন কোষ গঠন, রক্ত উৎপাদন এবং প্রোটিন ও টিস্যু সিন্থেসিসের জন্য এই ভিটামিন গুরুত্বপূর্ণ৷ অ্যানিমিয়া, ক্লান্তি এবং হাত পা অবশ হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দূর হয় ভিটামিন বি-১২ তে৷

গবেষণায় দেখা গেছে, ৮০-৯০ শতাংশ নিরামিষাশীদের মধ্যে ভিটামিন বি ১২ এর অভাব আছে। আমাদের শরীরে ভিটামিন বি-১২ প্রাকৃতিক ভাবে তৈরি হতে পারে না৷ সামুদ্রিক খাবার, ডিম এবং মাংসজাতীয় খাবার থেকে ভিটামিন বি-১২ পাওয়া যায়৷ উদ্ভিজ্জ খাবারে ভিটামিন বি-১২ কমই পাওয়া যায়৷ তাই নিরামিষাশীদের মধ্যে এই ভিটামিনের অভাব বেশি দেখা যায়৷ এখন কথা হলো আপনার শরীরে ভিটামিন বি-১২ এর অভাব আছে কি না তা কীভাবে বুঝবেন।

১. ভিটামিন বি-১২-র অভাবে জিভের রং বদলে যায়৷ অনেক সময়ে পরিবর্তন আসে স্বাদেও৷ মাঝে মাঝে জিভের কোনও অংশ ফুলেও যেতে পারে৷ এছাড়া ‍মুখে যে সাদা প্রদাহের মতো হয় তা ভিটামিন বি-১২ এর  অভাবের কারণে।

২. লোহিত রক্তকণিকা উৎপাদন এবং স্নায়ুতন্ত্রের কার্যকারিতার উপর ভিটামিন বি-১২-র গভীর প্রভাব রয়েছে৷ তাছাড়া এই ভিটামিনের অভাবে প্রায়ই ঘুম ঘুম ভাব আসে৷ হাতে পায়ে সূচ ফোটানোর মতো অনুভূতি হয়৷

৩. ভিটামিন বি-১২-র অভাবের আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ উপসর্গ হল স্মৃতিভ্রংশ এবং ভুলে যাওয়ার প্রবণতা৷ এই ভিটামিনের অভাবে মিমিক ডিমেনশিয়াতেও আক্রান্ত হন অনেকে৷

৪. দ্রুতগতির হৃদস্পন্দন এবং শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যাও হয় অনেক সময়  ভিটামিন বি-১২-র অভাব৷

৫. ডোপামাইন, সেরোটেনিনের মতো গুরুত্বপূর্ণ নিউরোট্রান্সমিটার কেমিক্যালস উৎপন্ন হওয়ার পিছনে ভিটামিন বি-১২ গুরুত্বপূর্ণ৷ ফলে ভিটামিন বি-১২-র অভাবে ডিপ্রেশন ও উদ্বেগের সমস্যাও দেখা দেয়।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments