Tuesday, May 28, 2024
spot_img
Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিলম্বা দৈর্ঘ্যের ভিডিও দেখার বছর হবে ২০২৪

লম্বা দৈর্ঘ্যের ভিডিও দেখার বছর হবে ২০২৪

ভারতের বিখ্যাত শেফ রনবীর ব্রার। মাস্টারশেফ ইন্ডিয়া প্রতিযোগিতার বিচারকও তিনি। ২০২০ সালের মহামারির সময় নিজের ইউটিউব চ্যানেলে নেহারি তৈরির একটি ভিডিও আপলোড করেন। ‘১৬ মিনিট ধরে কে নেহারি বানানো দেখবে’—তা নিয়ে চিন্তায় পড়ে যান তাঁর ইউটিউব কনসালট্যান্ট।

ইউটিউব চ্যানেলটির কোনো ভবিষ্যৎ নেই বলে চাকরিই ছেড়ে দেন তিনি। এর কিছুদিনের মধ্যেই ভিডিওটির ভিউ ১০ লাখ ছাড়িয়ে যায়। এখন পর্যন্ত ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৪৭ লাখবার।ওপরের এ ঘটনা থেকেই বোঝা যায় কনটেন্ট ভালো হলে দর্শকরা সময়ের দিকে তাকায় না।

এখনকার তরুণ প্রজন্ম ভিডিও দেখে একটি বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানতে চাচ্ছে, নতুন নতুন তথ্য জানতে আগ্রহী হয়ে উঠছে। তাদের দেখা ভিডিওগুলোর বিষয়বস্তুতেও রয়েছে ভিন্নতা। রেসিপি, সিনেমা বা অনুষ্ঠানের খণ্ড দৃশ্য থেকে শুরু করে ইসরাইল-গাজা যুদ্ধের খবর—সবই আছে দেখার তালিকায়।ট্রেন্ডে আসবে বদল

এখন পর্যন্ত শর্ট ভিডিওর রাজত্ব চলছে।

তবে ২০২৪ সালেই বদলে যেতে পারে দৃশ্যপট। যুক্তরাষ্ট্রের বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইনসাইডার ইন্টেলিজেন্সের পূর্বানুমান, চলতি বছর যুক্তরাষ্ট্রের দর্শকরা টিকটকে দিনে গড়ে ৫৮ মিনিট ৪০ সেকেন্ড ব্যয় করবে। গত কয়েক মাসের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ট্রেন্ড পর্যবেক্ষণ করলেও বোঝা যায়, দিন দিন আরো বেশিসংখ্যক মানুষ লম্বা ভিডিও দেখায় আগ্রহী হচ্ছে। টিকটক ও ইউটিউবেও অনেকে লম্বা ভিডিও খুঁজছে। এর কারণ হয়তো ধৈর্য।
বিশ্বব্যাপী মানুষের ধৈর্য কমে গেছে বলেই শর্ট ভিডিওর জয়জয়কার চলছে। তবে এটাও ঠিক যে বারবার স্ক্রল করে একটার পর একটা ভিডিও বাছাই করে দেখাটা ধৈর্যের কাজ। তার চেয়ে বরং কাপড় ইস্ত্রি করতে করতে বা রুম গোছাতে গোছাতে ঘণ্টাব্যাপী পডকাস্ট শোনাটাও সহজ। 

বাড়ছে ইনফোটেইনমেন্টের কদর

লম্বা ভিডিও দেখার আরেকটি কারণ হতে পারে জ্ঞানপিপাসা। টিভি দেখার হার কমলেও বিনোদননির্ভর অনুষ্ঠান দেখার আগ্রহে ভাটা পড়েনি। মানুষ এখন বিনোদন ও তথ্যের সংমিশ্রণে তৈরি ‘ইনফোটেইনমেন্ট’ ভিডিও দেখার দিকে ঝুঁকছে। ‘ইনফোটেইনমেন্ট’ বা সফট নিউজ জানার পরিধি বাড়ায়। এসব কনটেন্ট দেখলে আদতে দর্শকদেরই লাভ। এ ছাড়া কনটেন্ট ক্রিয়েটরদেরও লাভ আছে এতে। টিকটকে ক্রিয়েটিভিটি প্রগ্রামের (বেটা) কল্যাণে অনেক কনটেন্ট ক্রিয়েটর হাজার ডলারও আয় করতে পারছেন। এই প্রগ্রামের আওতায় কনটেন্ট ক্রিয়েটরদের এক মিনিটের চেয়ে লম্বা ভিডিও বানাতে হয়। এই দৈর্ঘ্যের ভিডিও জনপ্রিয়তা পাওয়ায় এখন ১০ মিনিটের ভিডিও আপলোডের সুযোগ দিচ্ছে টিকটক। শিগগিরই ইউটিউব শর্টস ও স্ন্যাপচ্যাটসহ অন্যান্য প্ল্যাটফরমেও এই ট্রেন্ড শুরু হতে পারে। তবে যাঁরা শর্ট কনটেন্ট বানিয়ে অভ্যস্ত তাঁদের জন্য ২০২৪ সালটা চ্যালেঞ্জিং হবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments