Saturday, July 2, 2022
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকরাশিয়া চীন ও ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যের পথ পরিবর্তন করছে : পুতিন

রাশিয়া চীন ও ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যের পথ পরিবর্তন করছে : পুতিন

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বুধবার বলেছেন যে পশ্চিমারা অর্থনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার চেষ্টা করায় রাশিয়া ব্রাজিল, ভারত, চীন এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মতো “নির্ভরযোগ্য আন্তর্জাতিক অংশীদারদের” সঙ্গে বাণিজ্যের পথ পরিবর্তন করছে। ভার্চুয়াল ব্রিকস সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশে পুতিন তার উদ্বোধনী ভিডিও ভাষণে বলেন, ‘আমরা সক্রিয়ভাবে আমাদের বাণিজ্য প্রবাহ এবং বিদেশী অর্থনৈতিক যোগাযোগকে নির্ভরযোগ্য আন্তর্জাতিক অংশীদারদের, প্রাথমিকভাবে ব্রিকস দেশগুলির সঙ্গে পুনর্নির্মাণে নিযুক্ত রয়েছি। “পাঁচটি উন্নয়নশীল অর্থনীতির একটি অনানুষ্ঠানিক গ্রুপ হলো ব্রিকস পুতিনের মতে, রাশিয়া এবং ব্রিকস দেশগুলির মধ্যে বাণিজ্য ৩৮% বৃদ্ধি পেয়েছে এবং বছরের প্রথম তিন মাসে ৪৫ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। রুশ ব্যবসায়িক চক্র এবং ব্রিকস দেশগুলির ব্যবসায়িক  সম্প্রদায়ের মধ্যে যোগাযোগ তীব্র হয়েছে। উদাহরণস্বরূপ পুতিন জানান, রাশিয়ায় ভারতীয় চেইন স্টোর খোলার জন্য এবং রাশিয়ার বাজারে চীনা গাড়ি, সরঞ্জাম এবং হার্ডওয়্যারের শেয়ার বাড়ানোর জন্য আলোচনা চলছে। রাশিয়াও চীন ও ভারতে তেল রপ্তানি বাড়াচ্ছে। রাশিয়া থেকে চীনের অপরিশোধিত আমদানি মে মাসে রেকর্ড মাত্রায় বেড়েছে, সৌদি আরবকে দেশটির শীর্ষ সরবরাহকারী হিসেবে পেছনে ফেলে দিয়েছে। পুতিন আরো জানান, রাশিয়ার বাণিজ্যিক সিস্টেমটি পাঁচটি দেশের ব্যাঙ্কগুলিকে সংযুক্ত করার জন্য উন্মুক্ত, এবং মস্কো ডলার বা ইউরোর মতো মুদ্রার উপর নির্ভর না করে লেনদেনের নতুন উপায় খুঁজে পাচ্ছে। ব্রিকস অংশীদারদের সাথে একসাথে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক স্থাপনের জন্য নির্ভরযোগ্য বিকল্প ব্যবস্থা গড়ে তোলার দিকে এগোচ্ছে রাশিয়া। তার ভাষণে, পুতিন পশ্চিমের বিরুদ্ধে মুক্ত বাণিজ্যের মতো “বাজার অর্থনীতির মৌলিক নীতিগুলি” উপেক্ষা করার অভিযোগ তুলেছেন।

পাশাপাশি বলেছেন, এই চিন্তাধারা ব্যবসায়িক স্বার্থকে ক্ষুণ্ন করে, সমস্ত দেশের মানুষের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে।  

পশ্চিমের নিষেধাজ্ঞা রাশিয়াকে বিশ্ব অর্থনীতির বড় অংশ থেকে বিচ্ছিন্ন করেছে এবং দেশটিকে গভীর মন্দার দিকে ঠেলে দিয়েছে। কিন্তু মস্কো রপ্তানি থেকে অর্থ উপার্জন অব্যাহত রেখেছে, বিশেষ করে জ্বালানির দাম বেড়ে যাওয়ায়। ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সি অনুমান করেছে যে রাশিয়ার তেল রপ্তানি থেকে আয় মে মাসে প্রায় ২০ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছে গেছে।

সূত্র : সিএনএন

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments