Sunday, November 27, 2022
spot_img
Homeধর্মযে ইবাদত বহু ইবাদতের সম্মিলন

যে ইবাদত বহু ইবাদতের সম্মিলন

মহান আল্লাহ মানুষ সৃষ্টি করেছেন তাঁর ইবাদতের জন্য। হুকুম দিয়েছেন বিভিন্ন প্রকার ইবাদতের। জানিয়ে দিয়েছেন ইবাদতের ধরনও। ইবাদতগুলোর মধ্যে এমন একটি ইবাদতের নির্দেশও দিয়েছেন, যা বহু ইবাদতের মিলনমেলা। তা হলো নামাজ। নামাজ ইসলামের পাঁচ স্তম্ভের প্রধান স্তম্ভ। নামাজ না পড়া কবিরা গুনাহ। নামাজ পড়ার দ্বারা নামাজির গুনাহ মাফ হয় এবং তার মর্যাদা বৃদ্ধি পায়। নবীজি (সা.) ইরশাদ করেছেন, তুমি আল্লাহর জন্য বেশি বেশি সিজদা করো। কেননা যখন তুমি আল্লাহর জন্য সিজদা করবে, আল্লাহ তাআলা এর বিনিময়ে তোমার মর্যাদা বৃদ্ধি করে দেবেন এবং তোমার গুনাহ মাফ করে দেবেন। (মুসলিম, হাদিস : ৯৮০)

যে অবস্থা হলে নামাজ ছাড়া যাবে

অসুস্থতা বা অন্য কোনো কারণে দাঁড়িয়ে নামাজ পড়তে না পারলে—বসে নামাজ পড়ার সুযোগ আছে। বসে না পারলে—শুয়ে ইশারায় নামাজ পড়ার সুযোগ আছে। পবিত্র কাপড়ের ব্যবস্থা না হলে—অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে নাপাক কাপড় বা বস্ত্রহীন অবস্থায় নামাজ পড়ার সুযোগ আছে। কিরাত জানা না থাকলে—প্রাথমিকভাবে কিরাতবিহীন তাসবিহাতের মাধ্যমেও নামাজ পড়ার অনুমতি আছে। যার ওপর নামাজ ফরজ তার জন্য—বেহুঁশ হওয়া ছাড়া অন্য কোনো অবস্থায় নামাজ ছাড়ার অনুমতি নেই। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, তুমি স্বেচ্ছায় ফরজ নামাজ ত্যাগ কোরো না। যে ব্যক্তি স্বেচ্ছায় তা ত্যাগ করে, তার থেকে আল্লাহর জিম্মাদারি উঠে যায়। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪০৩৪)

পাঁচবার নির্দিষ্ট সময়ে নামাজের নির্দেশের কারণ

ফজর, জোহর, আসর, মাগরিব ও এশার সময় মহান আল্লাহর রহমত ও কুদরতের লক্ষণাদি খুব বেশি ফুটে ওঠে। তাই এ সময়গুলোতে নামাজ পড়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে। ইবাদতে মশগুল থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইরশাদ হয়েছে, ‘অতএব আল্লাহর পবিত্রতা বর্ণনা করো—যখন তোমরা সন্ধ্যায় উপনীত হও এবং যখন উপনীত হও প্রভাতে। আর প্রশংসা তাঁরই আকাশমণ্ডলী ও পৃথিবীতে। এবং (পবিত্রতা বর্ণনা করো) অপরাহ্নে ও যখন দুপুরে উপনীত হও।’ (সুরা : রোম, আয়াত : ১৭-১৮)

নামাজ প্রেমিকের গোপন কথা বলার সুবর্ণ সুযোগ : একজন আল্লাহপ্রেমিক নামাজি ব্যক্তি নামাজের মাধ্যমে তার প্রিয়তম আল্লাহর সঙ্গে গোপন কথা বলার সুযোগ লাভ করে। নবীজি (সা.) বলেছেন, যখন তোমাদের কেউ নামাজে দাঁড়ায়, তখন সে তার প্রতিপালকের সঙ্গে চুপে চুপে কথা বলে। (বুখারি, হাদিস : ৪১৭)

যদি নামাজ নামক ইবাদত না থাকত, তাহলে কোনো আল্লাহপ্রেমিক তাঁর সঙ্গে গোপন কথা বলার সুযোগও পেত না। প্রিয়জন রাগ করলে যেমন কথা বলা ছেড়ে দেয়; আল্লাহও বান্দার সঙ্গে রাগ করলে, তার কোনো কাজে অসন্তুষ্ট হলে বান্দার সঙ্গে কথা বলা ছেড়ে দেন, তাকে নামাজ পড়ার তাওফিক দেন না।

নামাজ বহু ইবাদতের মিলনমেলা

নামাজে রোজা বিদ্যমান : পানাহার ও কামাচার থেকে বিরত থাকার নাম রোজা। নামাজে এসব বিষয় বিদ্যমান। এতে পানাহার ও কামাচারের সুযোগ তো নেই-ই, গিবত-শেকায়েত ইত্যাদিরও সুযোগ নেই। এমনকি অনেক বৈধ কাজেরও অনুমতি নেই, যার অনুমতি আছে রোজায়। যেমন—নামাজে হাঁটাচলা, কথাবার্তা, হাসি ইত্যাদি থেকেও দূরে থাকতে হয়।

নামাজে হজ বিদ্যমান : হজের হাকিকত বা মূল হলো আল্লাহর ঘরের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হওয়া, যা নামাজেও বিদ্যমান। ইরশাদ হয়েছে, ‘…নামাজের সময় তুমি তোমার মুখ মসজিদুল হারামের দিকে ফেরাও…।’ (সুরা : বাকারা, আয়াত : ১৪৪)। নামাজে মুখ ও মন উভয়টিই বাইতুল্লাহ অভিমুখী রাখতে হয়।

নামাজে ইতিকাফ বিদ্যমান : ইতিকাফের রুহ বা মূল হলো গুনাহ থেকে বেঁচে থাকা। আর নামাজি ব্যক্তি নামাজ পড়াকালে সব গুনাহ থেকে বেঁচে থাকে। ইরশাদ হয়েছে, ‘নিশ্চয় নামাজ অশ্লীলতা ও মন্দকাজ থেকে বিরত রাখে।’ (সুরা : আনকাবুত, আয়াত : ৪৫)। কেউ কেউ এই আয়াতের এই তাফসিরই করেছেন যে নামাজি ব্যক্তি যতক্ষণ নামাজে থাকে, ততক্ষণ নামাজ তাকে গুনাহ থেকে বিরত রাখে, যদিও এর আরো তাফসির রয়েছে।

নামাজে জাকাত বিদ্যমান : জাকাতের প্রাণ হলো ‘ইনফাক ফি সাবিলিল্লাহ’ তথা আল্লাহর রাস্তায় ব্যয় করা। আর নিশ্চয়ই নামাজ পড়ার সময় কাপড় পরতে হয় এবং ভালো কাপড় পরতে হয়। এতে খরচও হয়, যা আল্লাহর রাস্তায় খরচ করার নামান্তর।

নামাজে কোরবানি বিদ্যমান : কোরবানির মূল হলো নিজেকে ‘ফানা’ বা বিলীন করে দেওয়া; নিজের চাহিদাকে মিটিয়ে দেওয়া। নামাজের মাধ্যমেও নামাজি নিজেকে মিটিয়ে দেয়। বিনয়ের সঙ্গে দাঁড়িয়ে  মেটায়। রুকুতে মাথা নত করে মেটায়। সিজদায় ভূলুণ্ঠিত হয়ে মেটায়।

এ ছাড়া নামাজে আছে তিলাওয়াত, জিকির-আজকার, দোয়া, দরুদ, তাকবিরাত, তাসবিহাত ও ইস্তিগফারসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। নামাজ ছাড়া আর কোনো ইবাদত আছে, যাতে এতগুলো ইবাদতের মিলনমেলা ঘটে? নিশ্চয়ই নেই। তাহলে কেন আমরা নামাজ ছেড়ে দিয়ে এতগুলো ইবাদত একসঙ্গে হাতছাড়া করব? আল্লাহ আমাদের নামাজে যত্নবান হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

লেখক : মুহাদ্দিস, জামিয়া আম্বর শাহ আল ইসলামিয়া, কারওয়ান বাজার, ঢাকা

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments