Saturday, December 3, 2022
spot_img
Homeকমিউনিটি সংবাদ USAযুক্তরাষ্ট্রেও মিলল আফ্রিকাফেরত ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগী

যুক্তরাষ্ট্রেও মিলল আফ্রিকাফেরত ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগী

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। দেশটির ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের এক ব্যক্তির শরীরে করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের নমুনা শনাক্ত হয়। আক্রান্ত ওই ব্যক্তি কিছুদিন আগে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরেছিলেন।
বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স ও সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে। অন্যদিকে বিবিসি জানিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্তের পর এখন পর্যন্ত বিশ্বের প্রায় ২৪টি দেশে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।
সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, গত ২২ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরেছিলেন এক ব্যক্তি। প্রাথমিক পরীক্ষায় তার শরীরে করোনা শনাক্ত হয়নি। পরে গত ২৯ নভেম্বর দ্বিতীয় টেস্টে তার করোনা ধরা পড়ে। এরপর জিনোম পরীক্ষায় দেখা যায় তার শরীরে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট আছে।
এদিকে করোনা শনাক্তের আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে সরকারি আইসোলেশন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে এই প্রথম কারও শরীরে ওমিক্রন ভাইরাসের নমুনা মিলল।
মার্কিন প্রশাসন জানিয়েছে, করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত ওই ব্যক্তির দুইটি টিকা নেওয়া আছে। তবে তিনি এখনও বুস্টার ডোজ নেননি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রধান স্বাস্থ্যবিষয়ক পরমার্শদাতা অ্যান্থনি ফাউসি জানিয়েছেন, বুস্টার ডোজ যাদের নেওয়া নেই, ওমিক্রনের সামান্য প্রভাব ঘটছে তাদের শরীরে। অল্প অল্প উপসর্গ দেখা যাচ্ছে। তবে রোগীরা সুস্থও হয়ে উঠছেন।
ফাউসি জানিয়েছেন, আমরা জানতাম যুক্তরাষ্ট্রে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত কেবল সময়ের অপেক্ষা। ক্যালিফোর্নিয়ায় তা প্রথম পাওয়া গেল। এদিকে মার্কিন স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, ওমিক্রনে আক্রান্ত ওই ব্যক্তি যাদের সঙ্গে মিশেছেন তাদের কারও শরীরে করোনা শনাক্ত হয়নি।
অবশ্য ওমিক্রন নিয়ে এখনও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। আর তাই এই ভাইরাস কতটা ভয়ংকর তা এখনও স্পষ্ট নয়। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, এই ভাইরাস শরীরে খুব বেশি প্রভাব ফেলছে না। তবে তা দ্রুত ছড়াচ্ছে বলেই মনে করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।
এদিকে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে সৃষ্ট পরিস্থিতির কারণে যুক্তরাষ্ট্রে আবার দেশের বাইরে যাতায়াতে কড়াকড়ি শুরু হয়েছে। বিদেশ থেকে যারা আসছেন, তাদের সকলকে করোনা নেগেটিভ সনদ দেখা হচ্ছে। কেবল টিকার সার্টিফিকেট দেখালে হচ্ছে না। এছাড়াও বিদেশি যাত্রীদের যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবন্দরগুলোতে নেমে করোনা পরীক্ষা করাতে হচ্ছে। সূত্র : রয়টার্স, বিবিসি

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments