Saturday, June 15, 2024
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকময়লা আনতে গিয়ে ব্রুনাইয়ের কিশোরীকে ধর্ষণ করল বাংলাদেশি যুবক

ময়লা আনতে গিয়ে ব্রুনাইয়ের কিশোরীকে ধর্ষণ করল বাংলাদেশি যুবক

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশ ব্রুনাইয়ে ১২ বছর বয়সী মানসিক প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক বাংলাদেশী যুবকের শাস্তি ঘোষণা করেছে ব্রুনাই উচ্চ আদালত।  আগামী ২৮ ডিসেম্বর দোষীর সাজা ঘোষণার দিন ধার্য করা হয়েছে।

অভিযুক্ত আসামী ৩৯ বছর বয়সী মোহাম্মদ শাব আলীকে ১০ থেকে ৩০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হবে এবং সেই সাথে কমপক্ষে ১২টি বেত্রাঘাত করা হবে। আসামীর এই কুকর্ম ও শাস্তির বিষয়টি সবার সামনে আদালতে তুলে ধরেন ডিপিপি হাজাহ রোজাইমাহ বিনতি হাজী আব্দুল রহমান।

ঘটনাটি ঘটেছে চলতি বছরের ১৪ জুলাই সকালে ব্রুনাইয়ের কাম্পং সেংকুরংয়ের একটি বাড়িতে। ওইদিন সকালে কিশোরীকে স্কুলে নিয়ে যাওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছিলেন তার দাদা। হঠাৎ করেই ওই কিশোরীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলো না। এরপর তিনি খুঁজতে শুরু করলেন, এক পর্যায়ে আসামীসহ স্কুলের ইউনিফর্মে কিশোরীকে বাড়ির দরজার কাছে পড়ে থাকতে দেখেন তার দাদা। ওইসময় দ্রুত গৃহকর্মীর সাহায্য চান তিনি যেনো আসামী ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যেতে না পারে। সাথে সাথে তিনি কিশোরীরর বাবাকে ফোন করে ঘটনা খুলে বলেন। পরে তার বাবা-মা বাড়িতে এসে তাকে পরীক্ষা করেন দেখেন। এরপরেই পুলিশে রিপোর্ট করা হয় এবং ২২ জুলাই আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে উঠে এসেছে আসামী ওই বাড়ি থেকে সকালে ময়লা সংগ্রহ করতে গিয়েছিলো। এরপর ওই কিশোরীকে মাটিতে শুতে বলে, তার অন্তর্বাস খুলে প্রায় দুই মিনিট ধরে তাকে ধর্ষণ করে। পুলিশের অনুসন্ধানে আরো উঠে এসেছে যে, ফোনে আসামীর সাথে ওই কিশোরীর কথা হয়েছিলো।

ভুক্তভোগী ওই কিশোরী জানান,  আসামীকে তাদের বাড়ির ময়লা সংগ্রহ করতে তিনি একাধিকবার দেখেছেন। ওই দিনই তার মেডিক্যাল পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ মেলে। 

এই নিয়ে স্থানীয় ডিপিপি হাজাহ রোজাইমাহ আদালতে জোর দিয়ে বলেন, “এই কাজটি প্রমাণ করেছে যে একটি অল্পবয়সী মেয়ের নিরাপত্তা তার নিজের বাড়ির আশেপাশেও নিশ্চিত করা যায় না।”

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments