Tuesday, December 6, 2022
spot_img
Homeধর্মমৃতদের নিন্দা নিষিদ্ধ

মৃতদের নিন্দা নিষিদ্ধ

মহান আল্লাহ আমাদের প্রতিটি কাজ ও কথা সংরক্ষণ করে রাখেন। আমরা যা কিছু করি সব কিছু রেকর্ডেড থাকে। আমাদের প্রতিটি কাজের, কথার হিসাব আমাদের দিতে হবে। ইরশাদ হয়েছে, ‘সে যে কথাই উচ্চারণ করে তার কাছে সদা উপস্থিত সংরক্ষণকারী আছে।

(সুরা : কাফ, আয়াত : ১৮)

বর্তমান যুগে পবিত্র কোরআনের এই ভাষ্য বোঝা খুবই সহজ। শুধু মোবাইল ফোনের মাধ্যমে হ্যাকাররা যদি আমাদের সব ধরনের গতিবিধি অনুসরণ করতে পারে, তাহলে মহান আল্লাহ, যিনি এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ডকে নিয়ন্ত্রণ করেন, তিনি আমাদের সব গতিবিধি সংরক্ষণ করে রাখা আশ্চর্যের কিছু নয়। তাই কোনো অনর্থক কাজ ও কথায় লিপ্ত হওয়া মুমিনের জন্য সমীচীন নয়।

আমরা অনেকেই নিজের মতের সঙ্গে কারো অমিল হলেই তাকে বিভিন্ন অপবাদ চাপিয়ে দিয়ে তার সম্মান নষ্ট করার চেষ্টা করি। মানুষের বিরুদ্ধে অনলাইনে অফলাইনে ষড়যন্ত্র চালানোর পরিণাম ভয়াবহ। পবিত্র কোরআনে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইরশাদ হয়েছে, ‘আর যারা মুমিন পুরুষ ও মুমিন নারীদের কষ্ট দেওয়া, যা তারা করেনি তার জন্য; নিশ্চয়ই তারা অপবাদ ও স্পষ্ট পাপের বোঝা বহন করল। ’ (সুরা : আহজাব, আয়াত : ৫৮)

রাসুল (সা.) বলেছেন, মুসলমানকে গালি দেওয়া পাপ ও অন্যায়মূলক কাজ এবং তাকে মেরে ফেলা বা তার বিরুদ্ধে অস্ত্রধারণ করা কুফরি কাজ। (তিরমিজি, হাদিস : ১৯৮৩)

রাসুল (সা.) ঈমানদার মৃত ব্যক্তিদের গালি দিতে কঠোরভাবে নিষেধ করেছেন। আয়েশা (রা.) বলেন, রাসুল (সা.) বলেছেন, তোমরা মৃতদের গালি দিয়ো না। কারণ তারা তাদের কৃতকর্মের (পরিণাম ফল) পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। (বুখারি, হাদিস : ৬৫১৬)

অতএব আমাদের উচিত এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকা। কেউ যদি সত্যিই কোনো অপরাধ করে থাকে, তার প্রতিদান সে আল্লাহর কাছে পাবে। তাকে গালি দিয়ে আল্লাহর কাছে নিজেরা আসামি হওয়া বুদ্ধিমানের কাজ নয়। আল্লাহ আমাদের শুভবুদ্ধির উদয় ঘটান। আমিন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments