Thursday, June 20, 2024
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকমিয়ানমার জান্তার ওপর চাপ বাড়ানোর আহ্বান জাতিসংঘের

মিয়ানমার জান্তার ওপর চাপ বাড়ানোর আহ্বান জাতিসংঘের

মিয়ানমারের জনতার ওপর সহিংসতা বন্ধ করে দ্রুত বেসামরিক শাসন প্রতিষ্ঠায় দেশটির সামরিক শাসকদের ওপর চাপ বাড়াতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় স্থানীয় সময় গত শুক্রবার জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক প্রধান মিশেল বাশিলিত এ আহ্বান জানান। মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থানের পর মানবাধিকার পরিস্থিতি কোন পর্যায়ে পৌঁছেছে, সে সবের বিস্তারিত তথ্য উল্লেখ করে আগামী মার্চে বাশিলিতের কার্যালয় থেকে একটি প্রতিবেদন প্রকাশের কথা রয়েছে।

মিয়ানমারে গত বছর ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক সরকার হটিয়ে দেশের ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী।

গ্রেপ্তার করা হয় অং সান সু চি ও তাঁর শীর্ষ সহযোগীদের। প্রতিবাদে যে রক্তক্ষয়ী সংঘাত শুরু হয়, তাতে এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছে কমপক্ষে দেড় হাজার বেসমরিক মানুষ এবং গ্রেপ্তার হয়েছে কমপক্ষে ১১ হাজার ৭৮৭ জন।

জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক কার্যালয় আরো বলেছে, বন্দি অবস্থায় অন্তত ২৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের অনেকে নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ অবস্থায় অভ্যুত্থানের এক বছর পুরো হচ্ছে আগামী সোমবার।  

এর আগে গত শুক্রবার মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ জানান জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল বাশিলিত। তিনি বলেন, সেনা অভ্যুত্থানের এক বছরে মিয়ানমারের জনগণকে জীবন ও স্বাধীনতা বিসর্জন দিয়ে চরম মূল্য চোকাতে হচ্ছে। তিনি মনে করেন, মিয়ানমারে অভ্যুত্থান ও সহিংসতার পরিপ্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে, তা ‘নিষ্ফল’। মিয়ানমারের পরিস্থিতির ভয়াবহতার বিপরীতে জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণে ব্যর্থ হয়েছে আন্তর্জাতিক অঙ্গন।

জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার আরো বলেন, মিয়ানমারে মানবাধিকার ও গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য জরুরি ভিত্তিতে ও নতুন করে প্রচেষ্টা শুরু করার এখনই সময়। মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নিপীড়নের ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের জবাবদিহির আওতায় আনতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মিয়ানমারে মানবিক সহায়তাকার্যক্রম চালু রাখতে জান্তাকে রাজি করানোর জন্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ১০ দেশের জোট আসিয়ান যথেষ্ট ভূমিকা রাখতে পারেনি। তিনি জানান, মিয়ানমারে স্বাধীনতার পক্ষের লোকজনের সঙ্গে কথা বলার সময় এসব মানুষ আহ্বান জানিয়েছেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের যেন তাঁদের ছেড়ে না যায়। ‘আমি এ অঞ্চলের ও বাইরের বিভিন্ন দেশের সরকার ও অন্যদের প্রতি এ আকুতি শোনার আহ্বান জানাচ্ছি’, বলেন বাশিলিত।

মিয়ানমারে সহিংসতা ঠেকাতে চীনের আহ্বান : জাতিসংঘে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত গত শুক্রবার বলেন, মিয়ানমারে অধিকতর সহিংসতার ঘটনা এবং গৃহযুদ্ধ ঠেকাতে বিশ্বকে অবশ্যই সক্রিয় হতে হবে। ‘এটাই আমাদের প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত’, বলেন তিনি।

মিয়ানমারের পরিস্থিতি নিয়ে গত শুক্রবার রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। ওই বৈঠকের পর চীনা রাষ্ট্রদূত ঝাং জুন এসব মন্তব্য করেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments