Sunday, November 27, 2022
spot_img
Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি‘মহাকাশ দখলের’ দাবি অসত্য : ইলন মাস্ক

‘মহাকাশ দখলের’ দাবি অসত্য : ইলন মাস্ক

মহাকাশে জায়গা দখল করে ফেলছে ‘স্টারলিংক’ স্যাটেলাইট ইন্টারনেট প্রকল্প সম্প্রতি এমন অভিযোগ উঠেছে। এবার সে অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন স্পেসএক্স প্রধান ইলন মাস্ক। তার মতে এখনো পৃথিবীর কাছাকাছি কক্ষপথেই ‘কয়েকশ কোটি’ স্যাটেলাইটের জায়গা দেওয়া সম্ভব।

ইলন মাস্ক উদীয়মান মহাকাশ পর্যটন খাতের ‘নিয়ম-নীতি বানাচ্ছেন’ সম্প্রতি এমন মন্তব্য করেছেন ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি (ইএসএ) প্রধান। চলতি সপ্তাহে মাস্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে চীনও; মাস্কের স্টারলিংক স্যাটেলাইটের সঙ্গে সংঘর্ষ এড়াতে গতিপথ পালটাতে বাধ্য হয়েছিল চীনের নির্মাণাধীন স্পেস স্টেশন।

এক সাক্ষাৎকারে মাস্ক বলেছেন, ‘মহাকাশ অত্যন্ত বিশাল আর স্যাটেলাইটগুলো একদম ছোট।’ স্টারলিংক প্রকল্প স্যাটেলাইট শিল্পে প্রতিযোগী প্রতিষ্ঠানের প্রবেশের পথ আটকে দিচ্ছে এমন অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন মাস্ক; বলছেন, পৃথিবীর কক্ষপথে স্যাটেলাইটগুলোর জন্য যথেষ্ট জায়গা আছে। ‘আমরা অন্যদের জন্য কোনোভাবে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছি, পরিস্থিতি এমন নয়। অন্য কারও কিছু করার পথ আমরা আটকাইনি এবং এমন কিছু করার চিন্তাও নেই আমাদের।’

‘কয়েক হাজার স্যাটেলাইট কোনো ব্যাপারই না। পৃথিবীতে কয়েক হাজার গাড়ি থাকার মতো বিষয় এটা, আসলে এটা কিছুই নয়।’ক্স যোগ করেন তিনি।

কিন্তু ডিসেম্বর মাসেই ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির প্রধান জোসেফ অ্যাশবাকার মন্তব্য করেন, স্টারলিংকের কয়েক হাজার স্যাটেলাইটের ফলে প্রতিদ্বন্দ্বীদের স্যাটেলাইটের জন্য জায়গা কমে যাবে। উল্লেখ্য, স্টারলিংক নেটওয়ার্কের অংশ হিসাবে ইতোমধ্যে মহাকাশে এক হাজার নয়শ’ স্যাটেলাইট পাঠানো হয়েছে। এ প্রকল্পের অংশ হিসাবে আরও কয়েক হাজার স্যাটেলাইট পাঠানোর পরিকল্পনা তাদের।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments