সৌদি আরবের মসজিদগুলোতে উচ্চৈঃস্বরে মাইক ব্যবহার করতে নিষেধ করার পেছনে যুক্তি দেখিয়েছে দেশটির ইসলামবিষয়ক মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের দাবি, সে দেশের নাগরিকদের অভিযোগের ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

আলজাজিরার ওই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, গত সপ্তাহে সৌদি আরবের ইসলামবিষয়ক মন্ত্রণালয় ঘোষণা দেয়, মসজিদে উচ্চৈঃস্বরে মাইক ব্যবহার করা যাবে না।

সে দেশের ইসলামবিষয়ক মন্ত্রী আবদুল লতিফ আল-শেখ এ ব্যাপারে জানান, মানুষের অভিযোগের ভিত্তিতে ওই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

তবে সৌদি আরবের মতো মুসলিম রাষ্ট্রে এ ধরনের সিদ্ধান্ত বেশ বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। সে ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, যারা অভিযোগ করেছেন, তাদের মধ্যে অভিভাবকরাও রয়েছেন। অভিভাবকদের অভিযোগ, মসজিদে উচ্চৈঃস্বরে মাইক বাজানোর ফলে শিশুদের ঘুমের ব্যাঘাত ঘটছে।

তিনি আরো বলেন, যারা নামাজ পড়তে চান, ইমামের ডাকের জন্য তাদের অপেক্ষা করার প্রয়োজন নেই।

সরকারি সিদ্ধান্তের যারা সমালোচনা করছেন, তাদেরকে সে ‘দেশের শত্রু’ হিসেবে তিনি আখ্যায়িত করেছেন। এমনকি সমালোচনাকারীরা জনগণের মতামতকে উপেক্ষা করছেন বলেও দাবি করেন তিনি।
সূত্র : আলজাজিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English