Sunday, September 25, 2022
spot_img
Homeবিচিত্রমরুর বুকে ‘নরকের দরজা’

মরুর বুকে ‘নরকের দরজা’

মরুর বুকে বিশাল এক গর্ত। এই গর্তে দিন রাত অবিরাম আগুন জ্বলছে ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে। আগুনের উৎস কী। কি-ই বা তার রহস্য? কী এমন আছে এখানে? এর আসল রহস্যই বা কী?

স্থানীয়দের বিশ্বাস, এই দরজা দিয়েই যেতে হয় নরকে। তাই মুখে মুখে এর নাম পেয়েছে নরকের দরজা বলে। অনেকে আবার একে ডেভিল সুইমিংপুল বলেও ডাকে।

মধ্য এশিয়ার দেশ তুর্কমেনিস্তানের কারাকুম মরুভূমির মাঝে ছোট্ট একটি গ্রাম দারভাজা। এই গ্রামের কাছেই বিশাল এক গর্ত। ৫০ বছর ধরে দিন রাত অবিরাম দাউ দাউ জ্বলছে এই কূপ।

তুর্কমেনিস্তানের রাজধানী আশখাবাদের আন্তর্জাতিক বাসস্ট্যান্ড থেকে তিন ঘণ্টার পথ দারভাজা। সেখান থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে এই নরকের দরজা খ্যাত কূপটি।

এটি কোনো প্রাকৃতিক গর্ত নয়। ১৯৭১ সালে তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নে প্রাকৃতিক গ্যাসসমৃদ্ধ দারভাজা এলাকায় অনুসন্ধানের সময় ক্ষেত্রটি আবিষ্কার করে। প্রথমে তারা মনে করেছিল এটি একটি তেল ক্ষেত্র তাই ড্রিলিং মেশিন দিয়ে তেল উত্তোলনের জন্য সেখানে ক্যাম্প স্থাপন করে। কিন্তু পরে তারা সেখান থেকে বিষাক্ত গ্যাস বের হতে দেখে।

গ্যাস অনুসন্ধানের সময় অনুসন্ধানকারীরা গ্যাসবহুল গুহার মধ্যে মৃদু স্পর্শ করলে দুর্ঘটনাক্রমে মাটি ধসে পুরো ড্রিলিং রিগসহ পড়ে যায়। যদিও এই দুর্ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। প্রাথমিকভাবে গবেষণা করে বিষাক্ত মিথেন গ্যাসের ব্যাপারে গবেষকরা নিশ্চিত হন। পরিবেশে বিষাক্ত গ্যাস প্রতিরোধ করার জন্য ভূতত্ত্ববিদরা তখন গ্যাস উদ্গিরণ মুখটি জ্বালিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নেন। তাদের ধারণা ছিল এখানে সীমিত পরিমাণ গ্যাস থাকতে পারে। কিন্তু তাদের ধারণা ভুল প্রমাণ করে এটি ১৯৭১ সাল থেকে অনবরত জ্বলছে।

জানা গেছে, তুর্কমেনিস্তানের দারভাজা শহরের একটি প্রাকৃতিক গ্যাসক্ষেত্র। দীর্ঘদিন ধরে অগ্নিমুখটি অনবরত জ্বলছে বলে একে নরকের দরজা বলা হয়। কারাকুম মরুভূমিতে অবস্থিত অগ্নিমুখটির ব্যাস ৬৯ মিটার (২২৬ ফুট) ও গর্ত ৩০ মিটার (৯৮ ফুট) দীর্ঘ।

অগ্নিমুখটি দেখতে প্রতিবছরই পর্যটকরা দরওয়াজা শহরে আসেন। ২০০৯ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৫০ হাজার পর্যটক স্থানটি পরিদর্শন করেছেন। গ্যাসক্ষেত্রটি ও এর আশেপাশের স্থানও বন্য মরুভূমি ক্যাম্পিং-এর জন্য বিখ্যাত।

২০১০ সালের এপ্রিলে তুর্কমেনিস্তানের রাষ্ট্রপতি গ্যাসক্ষেত্রটি পরিদর্শন করে এটি বন্ধের কথা বলেন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments