Sunday, March 3, 2024
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকভারতের সুপ্রিম কোর্টে হিজাব মামলা দ্রুত শুনানির আবেদন খারিজ

ভারতের সুপ্রিম কোর্টে হিজাব মামলা দ্রুত শুনানির আবেদন খারিজ

ভারতের সুপ্রিম কোর্টে হিজাব মামলা দ্রুত শুনানির আবেদন খারিজ হয়ে গেল। সে কারণে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে হিজাব মামলার শুনানি হবে কর্ণাটক হাইকোর্টেই। দুপুর আড়াইটা থেকে শুনানি শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।  

এর আগে দেশটির সুপ্রিম কোর্টে মামলা স্থানান্তর করে দ্রুত শুনানি চালুর আবেদন করা হয়েছিল।

কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছেন, হাইকোর্টে শুনানির প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। এ অবস্থায় হস্তক্ষেপ করার কোনো যৌক্তিকতা নেই।

কর্ণাটকের একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সম্প্রতি নারী শিক্ষার্থীদের হিজাব পরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। এরপর আরো কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব পরে ছাত্রীদের ঢুকতে না দেওয়ার অভিযোগ ওঠে।  

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাবের ওপর নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে হাইকোর্টের শরণাপন্ন হয়েছিলেন কর্ণাটকের উদুপির পাঁচ শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার আবেদনের এক দফা শুনানি হয়।  

গতকাল বুধবার বিচারপতি কে এস দীক্ষিত জানান, ওই মামলায় আইনের বৃহত্তর প্রশ্ন উঠেছে। সাধারণত ব্যক্তিগত আইনের (পার্সোনাল ল) প্রশ্নের বিচার করে বৃহত্তর বেঞ্চ।

পরে রাতে জানানো হয়, হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটা থেকে মামলাটি শুনবেন। অন্তর্বর্তী ব্যবস্থা হিসেবে মুসলিম ছাত্রীদের হিজাব পরার অনুমতি চেয়েছিলেন পাঁচ শিক্ষার্থীর আইনজীবীরা। তবে বিচারপতি জানান, এ নিয়ে বৃহত্তর বেঞ্চেই প্রশ্ন করতে হবে।

সে ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টে মামলা সরিয়ে এনে দ্রুত শুনানির দাবি জানিয়ে আবেদন জমা পড়ে। কিন্তু ভারতের সুপ্রিম কোর্ট তা খারিজ করে দেন। শীর্ষ আদালতের বিচারপতি বলেন, ‘হাইকোর্টে মামলার শুনানির প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে। এর মাঝে আমরা কেন হস্তক্ষেপ করতে যাব?’

কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, চলতি অচলাবস্থা নিয়ে তিনি আজ বৃহস্পতিবারই রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন। বিতর্ক, গোলমালের জেরে তিন দিন স্কুল-কলেজ বন্ধ রেখেছে কর্ণাটক সরকার।  

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের মেয়াদ আরো বাড়ানো হবে কি না, তা সন্ধ্যার মধ্যে জানানো হবে সরকারের পক্ষ থেকে। একই সঙ্গে স্কুল চত্বরে যেন বহিরাগতরা প্রবেশ করতে না পারে, সে বিষয়েও প্রশাসনকে নজর দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।
সূত্র : আনন্দবাজার।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments