Wednesday, April 17, 2024
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকভারতের অস্ত্র সংগ্রহের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে পাকিস্তানের নালিশ

ভারতের অস্ত্র সংগ্রহের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে পাকিস্তানের নালিশ

ভারতের অস্ত্র সংগ্রহ এবং সামরিক শত্রুতা নিয়ে জাতিসংঘে নালিশ জানিয়েছে পাকিস্তান। জাতিসংঘের নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক কমিশনকে পাকিস্তান সতর্ক করেছে। বলেছে, নয়া দিল্লির এই পলিসি আঞ্চলিক শান্তির জন্য হুমকি। কারণ, তারা দক্ষিণ এশিয়ার নিরাপত্তা পরিবেশকে অস্থির ও বিস্ফোরণোন্মুখ করে তুলেছে। আন্তঃসরকার সংগঠনগুলোর সাবসিডিয়ারি বডির এক সেশনে জাতিসংঘে নিযুক্ত পাকিস্তানের স্থায়ী প্রতিনিধি আকরাম বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দক্ষিণ এশিয়ার নিরাপত্তা পরিবেশের দ্রুত অবনতি হয়েছে। এর কারণ এ অঞ্চলের সবচেয়ে বড় একটি রাষ্ট্র বিপুল অস্ত্রশস্ত্রের একটি প্রোগ্রাম শুরু করেছে। পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত আকরাম জোর দিয়ে বলেন যে, যুদ্ধ-যুদ্ধ অবস্থান গ্রহণ করেছে শীতল যুদ্ধ শুরুর মতো। এটা হলো পাকিস্তানের ওপর আকস্মিক আক্রমণ এবং সীমিত পরিসরে একটি যুদ্ধ। তিনি আরও বলেন, নয়া দিল্লি এখন বিশ্বে সবচেয়ে বেশি অস্ত্র আমদানিকারক। তাদেরকে পারমাণবিক, ক্ষেপণাস্ত্র, প্রচলিত এবং অন্যান্য অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করা যায় এমন অস্ত্র সরবরাহ দিচ্ছে তাদের কৌশলগত অংশীদাররা।

এ খবর দিয়েছে অনলাইন জিও নিউজ।

এরই মধ্যে জাতিসংঘের নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক কমিশনের ২০২৪ অধিবেশনের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন পাকিস্তানি উসমান জাদুন। এরপরই ভারতের বিরুদ্ধে ওই মন্তব্য করলেন আকরাম। ভারতের ‘বেআইনিভাবে দখলীকৃত জম্মু ও কাশ্মীর’ ইস্যুতে এই দূত আরও বলেন, দশকের পর দশক ধরে কাশ্মীরিদের নিষ্ঠুর নিষ্পেষণ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে সেখানে মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনী। তাদেরকে অস্ত্রের যোগান দেয়ার ফলে আঞ্চলিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি মারাত্মক অবনতি হয়েছে। এই পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। অস্থিতিশীলতা সৃষ্টিকারী অস্ত্র এবং যুদ্ধ মনোভাব একে আরও সঙিন করে তুলেছে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসে মদত দিচ্ছে ভারত। এক্ষেত্রে কোনো সংলাপ নেই। আন্তর্জাতিক কোনো পদক্ষেপ নেই।

পাকিস্তানি রাষ্ট্রদূত বলেন, যদি এই সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কোনো পদক্ষেপ না নেয়, তাহলে এই পরিস্থিতি আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক বিপর্যয় সৃষ্টি করবে। তিনি উল্লেখ করেন, অস্ত্রের সম্ভাব্য সর্বনিম্ন স্তরে সীমাহীন নিরাপত্তার লক্ষ্য অর্জনের চেষ্টা করেছে পাকিস্তান। পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয়ায় একটি পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত অঞ্চল তৈরির প্রস্তাবও করেছে পাকিস্তান। তিনি আরও বলেন, দুর্ভাগ্যজনক হলো এই প্রতিশ্রুতি গ্রহণ করার ২০ বছর পরে দক্ষিণ এশিয়ার একটি দেশ একতরফাভাবে পারমাণবিক অস্ত্রের বিস্ফোরণ চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি প্রত্যয় ব্যক্ত করেন, এক্ষেত্রে ইসলামাবাদও একই পথ অনুসরণ করতে বাধ্য থাকবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments