Monday, May 20, 2024
spot_img
Homeখেলাধুলাবিশ্বকাপ ব্যর্থতা অনুসন্ধান কমিটির রিপোর্টে কী ব্যবস্থা নেবে বিসিবি!

বিশ্বকাপ ব্যর্থতা অনুসন্ধান কমিটির রিপোর্টে কী ব্যবস্থা নেবে বিসিবি!

১১ই নভেম্বর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হার দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করে বাংলাদেশ। ভারতের ওয়ানডে বিশ্বকাপে সেমিফইনাল খেলার স্বপ্ন নিয়ে দেশ ছেড়েছিল টাইগাররা। কিন্তু এমন অর্জনতো দূরের কথা ৮ নম্বর দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলাও পড়েছিল অনিশ্চয়তায়। আফগানিস্তানের বিপক্ষে দারুণ জয় দিয়ে শুরু করলেও এরপর হেরেছে টানা ৬ ম্যাচে। এর মধ্যে আইসিসি’র সহযোগী দেশ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে হারতো লজ্জায় ডুবিয়েছে গোটা দেশকে। শেষ পর্যন্ত দ্বিতীয় জয় ধরা দেয় নিজেদের ৮ম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ৯ ম্যাচে ২ জয় আর নানা সমীকরণ মিলিয়ে শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সুযোগটাই এই বিশ্বকাপের এক মাত্র প্রাপ্তি। কেন এমন বাজে পারফরম্যান্স! এ নিয়ে নানা আলোচনা গোটা দেশজুড়ে। এমন ব্যর্থতার জন্য ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স ছাড়াও অভিযোগের আঙ্গুল অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের দিকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দায়টা কার বা কাদের সেই প্রশ্নের উত্তর খোঁজা যে জরুরি।

হয়তো সেই কারণেই আসর থেকে বিদায় নেয়ার ১৮ দিন পর বিশ্বকাপ ব্যর্থতার কারণ অনুসন্ধান করতে একটি বিশেষ কমিটি গঠন করেছে বিসিবি। বিসিবি’র তিন পরিচালক মাহবুব আনাম, আকরাম খান ও এনায়েত হোসেন সিরাজকে দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এই কমিটি। এ কমিটির রিপোর্টের উপরই পরবর্তী ব্যবস্থা নেবে বিসিবি। তাহলে কি যারা ব্যর্থতার জন্য দায়ী তাদেরকে সরিয়ে দেয়া হবে! নাকি অন্য কোনো ব্যবস্থা? এ বিষয়ে বিসিবি ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনূস বলেন, ‘আমরাতো আর দোষীদের জেলে দিতে পারবো না। অবশ্য বিসিবি কোনো না কোনো ব্যবস্থা নেবে। এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না।’

বিশ্বকাপে জাতীয় দলের ব্যর্থতার পর্যালোচনায় তিন সদস্যের একটি বিশেষ কমিটি দ্রুতই কাজ শুরু করবে এবং স্বল্প সময়ের মধ্যে তারা রিপোর্ট দেবে বলে জানা গেছে বিসিবি’র নানা সূত্রে। তবে গতকাল বিসিবি যে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে তাতে কমিটিকে রিপোর্ট দেয়ার জন্য কোনো সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়নি। এ বিষয়ে জালাল ইউনূস বলেন, ‘কমিটি পারফরম্যান্স থেকে শুরু করে সব বিষয় নিয়েই অনুসন্ধান করবে। তবে নির্দিষ্ট কোনো সময় দেয়া হয়নি। এটি আমি পরিষ্কার জানি না। যতোটা জানি যতোদ্রুত সম্ভব রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।’ বিসিবি’র সিনিয়র পরিচালক এনায়েত হোসেন সিরাজ (আহ্বায়ক), মাহবুবুল আনাম (সদস্য) এবং ও সাবেক ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খানরা কি কি বিষয়ে অনুসন্ধান করবেন তা স্পষ্ট করে জানানো হয়নি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে কমিটির কাজ টুর্নামেন্টে দলের বাজে পারফরমেন্সের কারণগুলো খুঁজে বের করা এবং পরবর্তীতে বোর্ডের কাছে তা তুলে ধরা। বিশ্বকাপের আগে-পরে মাঠের বাইরের কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা দলের পারফরমেন্সে প্রভাব ফেলছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যেমন সাবেক ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকাল, বর্তমান অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও দলের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহের মধ্যে দ্বন্দ্বের বিষয়টিতো এখন ওপেন-সিক্রেট। যা দলের পারফরমেন্সে বেশ প্রভাব ফেলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। এছাড়াও আসর চলা কালে নানা একাদশ নিয়ে নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা ব্যাটিং অর্ডারে বার বার পরিবর্তনগুলো দলের পরাজয়ের কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে। যার জন্য দায়টা সরাসরি যাচ্ছে কোচ ও অধিনায়কের দিকে। তাহলে বিসিবি কি প্রধান কোচ হাথুরুসিংহের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা  নেবে! বর্তমানে দলের তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক ছুটি নিয়ে ব্যস্ত রাজনীতির ময়দানে। ক্ষমতাসীন দলের পক্ষে নমিনেশন নিয়ে অংশ নেবেন জাতীয় নির্বাচনেও। সেখানে জিতে গেলে হবেন জাতীয় সংসদের সদস্য। সেই সময় সাকিবের দায় উঠে এলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারবে কি বিসিবি!

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments