Wednesday, April 17, 2024
spot_img
Homeজাতীয়বিএনএম-সাকিব বিতর্ক, মুখ খুললেন মেজর হাফিজ

বিএনএম-সাকিব বিতর্ক, মুখ খুললেন মেজর হাফিজ

কিংস পার্টি খ্যাত বিএনএম গঠনে ভূমিকা এবং তার বাসায় গিয়ে সাকিব আল হাসানের দলটিতে যোগদান সম্পর্কিত প্রকাশিত খবর নিয়ে মুখ খুলেছেন বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেছেন, সাকিব আল হাসান দেশের গর্ব। আমার কাছে এসেছিলেন। আমি তাকে কোনো উৎসাহ দেই নাই। আমি যোগদান না করায় (বিএনএম’এতে) তিনিও তার পথ বেছে নিয়েছেন। পরে তিনি সম্পূর্ণ  পাতানো নির্বাচনে এমপি হয়েছেন। সেটি তার বিষয়।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বানানীতে নিজ বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মেজর (অব.) হাফিজ। তিনি বলেন, সাকিব আমার কাছে রাজনীতিতে যোগ দেয়ার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন। তাকে বিএনএম’র দুজন কর্মকর্তা আমার কাছে নিয়ে আসেন। আমি বলেছি, রাজনীতি করা তোমার বিষয়।

আমার কাছে উৎসাহ না পেয়ে সে চলে যায়। নির্বাচনের চার থেকে পাঁচ মাস আগে এই ঘটনা।

তিনি বলেন, এতদিন পর কেনো? এ তো গোপন কিছু না। আমাকে বলেছে, আমি সেটি গ্রহণ করিনি। বিএনপিতেই রয়েছি। আর আমি বিএনপি ছেড়ে কোথাও যাবো না, সেটা নির্বাচনের আগেই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে বলেছি। তারা আশ্বস্ত হয়েছেন। আমার আর রাজনীতিতে উচ্চাভিলাষ নেই।

হাফিজ বলেন, নির্বাচনের মাসের আগেই বলেছি, দল ছাড়বো না, কোনো পাতানো নির্বাচনে যাবো না। গোপন কিছু নাই। লজ্জিত হওয়ার কোনো কাজ করি নাই। আর সরকারের বিভিন্ন অপকর্ম লুকিয়ে রেখে জনগণের দৃষ্টি অন্য দিকে নিতেই আমার বিরুদ্ধে বিএনএম সৃষ্টির কাল্পনিক কাহিনীর অবতারণা তারা করেছে। মনোনয়ন সংগ্রহ এবং আবেদন করার জন্য কখনই ইসিতে কাউকে পাঠাইনি।

তিনি আরও বলেন, সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত অনেক সিনিয়র এবং জুনিয়রদের সঙ্গে আমার উঠা-বসা। তাদের বাসায় আমি যাই এবং তারাও আমার বাসায় আসেন। তিন-চারজন আমাকে নতুন দল গঠনের পরামর্শ দেন। আর নির্বাচনের মাস ছয়েক আগে সরকারের কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তাদের আমি বলেছি, ৩২ বছর পর আমার দল ত্যাগ করা সম্ভব নয়। আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ, শিগগিরই রাজনীতি থেকে অবসর গ্রহণ করবো। ইতিমধ্যে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত তিন থেকে চারজনের উদ্যোগে বিএনএম নামে একটি দল গঠন করা হয়। যেটিকে ইসি অনুমোদন দেয়।

বিএনপি’র এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, গত ৩২ বছর ধরে বিএনপিতে আছি। বাংলাদেশের রাজনীতি সম্পর্কে আপনারা সবাই অবগত আছেন। অত্যন্ত নোংরা রাজনীতি। নির্বাচনের সময় নানা ধরনের কলা-কৌশল করা হয়। যে দল ক্ষমতায় থাকে তারা চেষ্টা করে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য কিছু লোক ভাগিয়ে এনে অন্য কোনো দলে নিয়ে নির্বাচনী বৈতরণি পার হওয়ার।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments