মধ্যপ্রাচ্যের দুই পরাশক্তি ইরান ও সউদী আরবের মধ্যে বহুদিন ধরেই খারাপ সম্পর্ক বিরাজ করছে। ইয়েমেনে সউদী আরব এবং ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের যুদ্ধ এবং হুতিদের সউদীর ওপর ক্রমাগত হামলার মধ্যে চলতি মাসেই নাকি এক বৈঠকে মিলিত হয়েছে দেশ দু’টির কর্মকর্তারা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ফিনান্সিয়াল টাইম বিষয়টি সম্পর্কে অবগত কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে রোববার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।
গত ৯ এপ্রিল ইরাকের রাজধানী বাগদাদে সউদী এবং ইরানি কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রথম দফার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ফিন্যান্সিয়াল টাইমস বলছে, বৈঠকে ইরান-সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে ইয়েমেনে সউদী আরবের সংঘাতের বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। বাগদাদে ওই আলোচনা ইতিবাচক হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।
নাম না প্রকাশ করার শর্তে এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সউদী আরবের পক্ষে নেতৃত্ব দেন দেশটির গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান খালিদ বিন আলি আল-হুমাইদান। এ ছাড়া পরবর্তী আলোচনার বিষয়ে বৈঠকে তারিখ নির্ধারণ করা হয়।
তবে এই বিষয়ে দুই পক্ষের কারও মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে সউদীর এক কর্মকর্তা ইরানের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন। রোববার লেবাননের ইরানপন্থী আল মায়াদেদীনের টেলিভিশন চ্যানেল এবং বার্তা সংস্থা ইউনিউজকে ইরানি সূত্র সউদী আরবের সঙ্গে আলোচনার বিষয়টি অস্বীকার করেছে।
এর আগে ২০১৯ সালে ইরানের সঙ্গে সউদী আরব আলোচনার জন্য মধ্যস্থতাকারী খুঁজছে বলে খবর বেরিয়েছিল। এ বিষয়ে মিডল ইস্ট আই জানায়, ইরাকের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী আদেল আবদুল মাহদিকে সউদী আরব ইরানের সঙ্গে বৈঠক আয়োজনের সবুজ সংকেত দিয়েছিলেন। সূত্র : আল জাজিরা, ফিনান্সিয়াল টাইম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English