চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে প্রথমবারের মতো প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনকে তুলেছেন নেইমার জুনিয়র। সেমি ফাইনালে আরবি লিপজিগের বিপক্ষে গোল না পেলেও দারুণ খেলেছিলেন এই ব্রাজিলীয় তারকা। অথচ শঙ্কা ছিল ফাইনালের মতো মঞ্চে নেইমারকে পাওয়া নিয়ে। নিষেধাজ্ঞা হবার গুঞ্জন ওঠে নেইমারের। এর কারণ, করোনাভাইরাস পরবর্তী ফুটবলে যেসব পরিবর্তন এসেছে নিয়ম নীতিতে তাতে উল্লেখযোগ্য হলো ম্যাচ শেষে জার্সি বদল করা যাবে না। কিন্তু সেমিফাইনালে লিপজিগের জার্মান ডিফেন্ডার মার্সেল হালস্টেনবার্গের সঙ্গে জার্সি বদল করে ফেলেন তিনি।অথচ যুগ যুগ ধরে জার্সি বদলের রীতি দেখে আসা ফুটবলাররা এত দ্রুত কীভাবে ভুলবেন! যেখানে জড়িয়ে আছে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের প্রতি সম্মান জানানোর বিষয়টিও। ফিফার স্বাস্থ্য বিধি অনুযায়ী এতে ভাইরাস ছড়ানোর শঙ্কা থাকে তাই করোনা–পরবর্তী সময়ে জার্সি বদল করার প্রথা থেকে দূরে থাকার নির্দেশনা ছিল উয়েফার। নেইমার জার্সি বদল করেই পড়েছিলেন বিপাকে।গত কদিন ধরে শোনা যাওয়া গুঞ্জনকে অবশেষে উড়িয়ে দিয়েছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা উয়েফা। সংস্থাটি নিশ্চিত করেছে, নেইমার নিয়ম ভেঙেছে ঠিকই তবে এবারের মতো নিষিদ্ধ করা হচ্ছে না। তাই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল খেলতে বাধা রইলো না তার।আগামী ২৩ আগস্ট ফাইনালে জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিথের মুখোমুখি হবে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English