Tuesday, July 16, 2024
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকপ্রবল বর্ষণে বিপর্যস্ত মুম্বাই, বাতিল অর্ধশতাধিক ফ্লাইট, বন্ধ স্কুল-কলেজ

প্রবল বর্ষণে বিপর্যস্ত মুম্বাই, বাতিল অর্ধশতাধিক ফ্লাইট, বন্ধ স্কুল-কলেজ

ভারী বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রের মুম্বাই শহর। প্রবল বর্ষণের জেরে শহরটিতে ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া শহরটির ব্যস্ত বিমানবন্দরে অর্ধশতাধিক ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে মুম্বাইয়ের সকল সরকারি, বেসরকারি স্কুল ও কলেজ। সোমবার (৮ জুলাই) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মুম্বাই এবং এর আশপাশের অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে এবং শহরতলির ট্রেন পরিষেবাগুলো বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

সোমবার মধ্যরাত ১টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত ভারতের এই নগরীর কিছু এলাকায় ৩০০ মিলিমিটারের বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

ভারতের আবহাওয়া বিভাগ (আইএমডি) মুম্বাই, থানে, পালঘর এবং কোঙ্কন বেল্টের জন্য কমলা সতর্কতা জারি করেছে। ভিক্রোলির বীর সাভারকর মার্গ মিউনিসিপ্যাল স্কুল এবং এমসিএমসিআর পাওয়াই গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত দেখেছে। সেখানে ৩১৫ মিলিমিটারের বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এনডিটিভি বলছে, বৃষ্টির কারণে ৫০টিরও বেশি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। বেশ কয়েকটি এয়ারলাইন্স সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে যাত্রীদের সতর্ক করেছে এবং বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার আগে তাদের ফ্লাইট স্ট্যাটাস চেক করার আহ্বান জানিয়েছে।

এদিকে ভারী বৃষ্টির পর প্রকাশিত বিভিন্ন ছবিতে মুম্বাইয়ের লোকদের কোমর-সমান পানির মধ্যে দিয়ে হেঁটে যেতে এবং গাড়িগুলোকে মুম্বাইয়ের জলাবদ্ধ রাস্তায় সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। এই অবস্থায় মুম্বাই শহরজুড়ে সব সরকারি, বেসরকারি ও পৌরসভার স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

অন্যদিকে মুম্বাইয়ের ডোম্বিভলি স্টেশনে লোকেরা ডুবে থাকা রেললাইনের ট্র্যাকেই ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করছে। ওয়ার্লি, বুনতারা ভবন, কুর্লা ইস্ট, মুম্বাইয়ের কিংস সার্কেল এলাকা, দাদর এবং বিদ্যা-বিহার রেলস্টেশন থেকেও জলাবদ্ধতার খবর পাওয়া গেছে।

৩০ লাখেরও বেশি যাত্রী প্রতিদিন মুম্বাই এবং পার্শ্ববর্তী থানে, পালঘর ও রায়গড়ে শহরতলীর লোকাল ট্রেন পরিষেবাগুলো ব্যবহার করে থাকে।

এছাড়া থানে জেলার কাসারা এবং টিট-ওয়ালা স্টেশনের মধ্যেও ট্রেন পরিষেবা স্থগিত করা হয়েছে। সকাল সাড়ে ৬টার দিকে এসব রেলওয়ে ট্র্যাককে অনিরাপদ ঘোষণা করা হয় বলে কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

একইসঙ্গে মুম্বাই বিভাগের কল্যাণ এবং কাসারা স্টেশনের মধ্যে জলাবদ্ধতার কারণে বেশ কয়েকটি ট্রেনের দিক পরিবর্তনের পাশাপাশি সময় পুনঃ-নির্ধারণ বা যাত্রা বাতিল করা হয়েছে।

এছাড়া ভোর ৩ টা থেকে সকাল ৬ টার মধ্যে ভাসিন্দ-খার্দি বিভাগে ভারী বৃষ্টিপাত এবং আকস্মিক বন্যার কারণে ট্র্যাকের বাঁধটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে কর্মকর্তারা সংবাদ সংস্থা পিটি-আইকে জানিয়েছেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments