Sunday, June 16, 2024
spot_img
Homeখেলাধুলাপ্রথম দিনেই ধারামশালা টেস্টের নিয়ন্ত্রণে ভারত

প্রথম দিনেই ধারামশালা টেস্টের নিয়ন্ত্রণে ভারত

ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের নিয়ে পাঁচ উইকেটের মালা গাঁথলেন কুলদিপ যাদব। শততম টেস্টে নিজেকে মেলে ধরলেন রবিচন্দ্রন আশ্বিন। ভারতীয় স্পিনারদের ছোবলে দুইশ’ ছাড়িয়েই গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ড। পরে ভারত পেল শতরানের ওপেনিং জুটি। সব মিলিয়ে প্রথম দিনেই ধারামশালার টেস্ট নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিল ভারত।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ইংল্যান্ড চা বিরতির খানিক পরেই গুটিয়ে যায় ২১৮ রানে। ৫ উইকেট নেন কুলদিপ, চারটি আশ্বিন। পরে ১ উইকেটে ১৩৫ রান তুলে দিন শেষ করে ভারত। দিন শেষে ৯ উইকেট হাতে নিয়ে ৮৩ রানে পিছিয়ে রোহিত শর্মার দল।

শুবমান গিলকে (৩৯ বলে ৫২) নিয়ে শুক্রবারের ব্যাটিং শুরু করবেন রোহিত। অধিনায়ক অপরাজিত আছেন ৬টি চার ও ২ ছক্কায় ৮৩ বলে ৫২ রানে।

হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার শুরুটা ভালোই ছিল ইংল্যান্ডের। একটা পর্যায়ে তাদের রন ছিল ৩ উইকেটে ১৭৫ রান।

১৭৫ রানে দাঁড়িয়েই আউট হন ইংল্যান্ডের সবচেয়ে নির্ভরশীল তিন ব্যাটার জনি বেয়ারস্টো, জো রুট ও বেন স্টোকস। স্রেফ ৪৩ রানের মধ্যে শেষ ৭ উইকেট হারায় সফরকারীরা।

জ্যাক ক্রলির সাথে ৬৪ রানের ওপেনিং জুটি গড়ে আউট হন বেন ডাকেট (৫৮ বলে ২৭)। থিতু হয়ে আউট হন অলি পোপ (২৪ বলে ১১)। সাবলির খেলা খেলতে খেলতে আউট হয়ে যায় ক্রলি। এর আগে করেন ইনিংস সর্বোচ্চ ১০৮ বলে ১১টি চার ও ১ ছক্কায় ৭৯ রান।

ইংল্যান্ডের ১৭তম ক্রিকেটার হিসেবে শততম টেস্ট খেলতে নামা জনি বেয়ারস্টো আউট হন ১৮ বলে ২টি করে ছক্কা-চারে ২৯ রানের ঝড় তুলে। ইংল্যান্ডের প্রথম চার ব্যাটারই কুলদিপের শিকার।

এরপর তার সাথে যোগ দেন আশ্বিন। রুটের উইকেট নেন আরেক স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা। তার মানে সফরকারীদের দশ উইকেটই নিলেন ভারতীয় স্পিনাররা।

বাঁহাতি রিস্ট স্পিনার কুলদিপ ৭২ রানে নেন ৫টি। ১২ টেস্টের ক্যারিয়ারে চতুর্থবার এই স্বাদ পেলেন তিনি। এ দিন ৫০ উইকেটের মাইলফলকও স্পর্শ করেন ২৯ বছর বয়সী ক্রিকেটার। ক্যারিয়ারের শততম টেস্ট খেলতে নেমে অশ্বিনের প্রাপ্তি ৫১ রানে ৪টি।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নামা ভারত পায় উড়ন্ত শুরু। ওপেনার জয়শ্বী জয়সওয়াল আউট হয়েছেন ৫৮ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৭ রান করে। এই ইনিংসের পথে ভারতের দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে এক সিরিজে সাতশ রানের কীর্তি গড়েছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

এতদিন এই অর্জন ছিল কেবল সুনিল গাভাস্কারের। কিংবদন্তি এই ব্যাটসম্যান দুই দফায় এই কীর্তি গড়েছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

একই সাথে এদিন টেস্ট ক্যারিয়ারে হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন জয়সওয়াল। ৯ টেস্টেই মাইলফলকটি ছুঁলেন এই ২২ বছর বয়সী। তার চেয়ে কম টেস্ট খেলে হাজার রান করার কীর্তি আছে কেবল স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের, ৭ টেস্টে। জয়সওয়ালের সমান ৯ টেস্ট লেগেছিল স্যার এভারটন উইকস, হার্বার্ট সাটক্লিফ ও জর্জ হেডলির।

ইনিংসের হিসাবে জয়সওয়ালের লাগল ১৬ ইনিংস। ভারতের হয়ে তার চেয়ে কম ইনিংসে হাজার ছুঁতে পারেন কেবল ভিনোদ কাম্বলি, ১৪ ইনিংস। বিশ্ব রেকর্ডটি যৌথভাবে সাটক্লিফ ও এভারটন উইকসের, ১২ ইনিংস। ব্র্যাডম্যানের লেগেছিল ১৩ ইনিংস।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ৫৭.৪ ওভারে ২১৮ (ক্রলি ৭৯, ডাকেট ২৭, পোপ ১১, রুট ২৬, বেয়ারস্টো ২৯, স্টোকস ০, ফোকস ২৪, হার্টলি ৬, উড ০, বাশির ১১*, অ্যান্ডারসন ০; বুমরাহ ১৩-২-৫১-০, সিরাজ ৮-১-২৪-০, অশ্বিন ১১.৪-১-৫১-৪, কুলদিপ ১৫-১-৭২-৫, জাদেজা ১০-২-১৭-১)।

ভারত ১ম ইনিংস: ৩০ ওভারে ১৩৫/১ (জয়সওয়াল ৫৭, রোহিত ৫২*, গিল ২৬*; অ্যান্ডারসন ৪-১-৪-০, উড ৩-০-২১-০, হার্টলি ১২-০-৪৬-০, বাশির ১১-২-৬৪-১)।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments