Monday, July 4, 2022
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকপ্রথম আদিবাসী প্রেসিডেন্ট পেতে যাচ্ছে ভারত!

প্রথম আদিবাসী প্রেসিডেন্ট পেতে যাচ্ছে ভারত!

তবে কি এবার প্রথম বারের মতো আদিবাসী প্রেসিডেন্ট পেতে যাচ্ছে ভারত! জল্পনা চলছিল আগে থেকেই। তবে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ) জোটের প্রার্থী কে হবে তার চূড়ান্ত ইঙ্গিত মিলছিল না কোনোভাবেই। তবে শেষ পর্যন্ত সেই জল্পনাকে সত্যি করে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য দ্রৌপদী মুর্মুর নাম ঘোষণা করলো এনডিএ। তিনি যদি শেষ পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হতে পারেন, তাহলে তিনি হবে ভারতের প্রথম আদিবাসী প্রেসিডেন্ট। এছাড়া দেশের সর্বকনিষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হবার রেকর্ডও গড়বেন তিনি। এখন পর্যন্ত এই রেকর্ডের অধিকারি হলেন নীলম সঞ্জীব রেড্ডি।

৬৪ বছর বয়সের দ্রৌপদী ভারতের ওড়িশা রাজ্যের সাওতাল পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। দলের পার্লামেন্টারি বোর্ডের সঙ্গে সভার পর প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে দ্রৌপদীর নাম ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ধারণা করা হচ্ছে, রাষ্ট্রপতি ভবনের জন্য তিনি মোদির নিজস্ব পছন্দ। এ নিয়ে টুইটারে একটি বিবৃতিও দিয়েছেন মোদি। এতে তিনি বলেন, লক্ষ লক্ষ মানুষ, বিশেষ করে যারা দারিদ্র্য এবং কষ্টের সম্মুখীন হয়েছেন, তারা শ্রীমতী দ্রৌপদী মুর্মুর জীবন থেকে শক্তি লাভ করে।

নীতিগত বিষয়ে তার বোঝাপড়া এবং সহানুভূতিশীল প্রকৃতি আমাদের দেশকে ব্যাপকভাবে উপকৃত করবে। 
নির্বাচিত হলে প্রতিভা পাতিলের (২০০৭-১২) পর দ্রৌপদীই হতে চলেছেন ভারতের দ্বিতীয় নারী প্রেসিডেন্ট। আগামি ১৮ই জুলাই নির্বাচনে তার প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। ব্যবধান সামান্য হলেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন বিজেপি জোটের। এছাড়া কিছু আঞ্চলিক দলগুলোর সমর্থনও পাওয়ার আশা করছে এনডিএ। ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পাটনাইকও তার সমর্থনে টুইট করেছেন। রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে দ্রৌপদী এর আগে ওড়িশার মন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। নবীন তার টুইটে বলেন, দ্রোপদীর মনোনয়ন পাওয়া ওড়িশার মানুষের জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। ভারতে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিতে বড় ভূমিকা রাখবেন তিনি। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ওড়িশা রাজ্যে জন্ম নেয়া এবং রাজনীতি করা একজনকে সমর্থন না দেয়া কঠিন ছিল মুখ্যমন্ত্রীর জন্য। 
উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও দ্রৌপদী মুর্মুকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন, তার মনোনয়ন ‘সবকা সাথ-সবকা বিকাশ’ স্লোগানের প্রতি বিজেপির প্রতিশ্রুতির প্রমাণ। আদিত্যনাথ একটি টুইটে লেখেন, দ্রৌপদী মুর্মুকে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য এনডিএ প্রার্থী করায় আন্তরিক অভিনন্দন। পর্যবেক্ষকরা মনে করেন, একজন আদিবাসী নারীকে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য বেছে নেয়া বিজেপির আরেকটি মাস্টারস্ট্রোক। এর আগে দলিত নেতা রামনাথ কোবিন্দকে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য সমর্থন দিয়েছিল বিজেপি। তার পরের বারই একজন আদিবাসী জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধি করা দ্রৌপদীকে প্রার্থী করে এ বার বিজেপি বিরোধী জোটকে টেক্কা দিল।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments