আন্তর্জাতিক ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টিতে নতুন টুর্নামেন্ট নিয়ে আসছে আইসিসি। ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি দুই সংস্করণের জন্যই পরিকল্পনা করা হচ্ছে ‘চ্যাম্পিয়ন্স কাপ’ নামের এই টুর্নামেন্ট। মেয়েদের ক্রিকেটের জন্যও ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টিতে থাকবে এই চ্যাম্পিয়ন্স কাপ। আইসিসি ২০২৩-২০৩১ বর্ষচক্রে টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়নস কাপ আয়োজনের পরিকল্পনা করছে। এই টুর্নামেন্টে অংশ নেবে আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ১০ দল।

দলগুলো মিলে মোট ৪৮টি ম্যাচ খেলবে। আইসিসির এই প্রস্তাবনা অনুযায়ী, ২০২৪ এবং ২০২৮ সালে অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়নস কাপ। ওয়ানডে চ্যাম্পিয়নস কাপ আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে ২০২৫ ও ২০২৯ সালে। নতুন এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হলেও টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে বিশ্বকাপে কোনো পরিবর্তন আসছে না। ২০২৬ এবং ২০৩০ সালে অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আর ২০২৭ এবং ২০৩১ সালে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স কাপের তুলনায় ওয়ানডে চ্যাম্পিয়ন্স কাপে দলের সংখ্যায় কিছুটা হের ফের থাকছে। টুর্নামেন্টটি আয়োজন করা হবে ৬টি দল নিয়ে। মোট ম্যাচ হবে ১৬টি। ২০২৩-৩১ বর্ষপঞ্জিতে এসব টুর্নামেন্ট আয়োজনে আগ্রহী পূর্ণ সদস্য দেশগুলোকে আবেদনের সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছে আইসিসি। আগ্রহী দেশগুলো আগামী ১৫ মার্চের মধ্যে দরপত্র জমা দিতে পারবে আইসিসি বরাবর। আইসিসির প্রধান নির্বাহী মানু সোহানি মনে করেন, ছোট দেশগুলোকে আর্থিক ভাবে শক্তিশালী করতে প্রতি বছর অন্তত একটি আইসিসি টুর্নামেন্টের আয়োজন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English