Thursday, October 6, 2022
spot_img
Homeখেলাধুলা‘নতুন কোচকে বলেছি জয় প্রয়োজন’

‘নতুন কোচকে বলেছি জয় প্রয়োজন’

শেষ ১৬ ম্যাচে মাত্র তিনটি জয়। জাতীয় দলের এমন নৈপুণ্যে স্বাভাবিক কারণেই সন্তুষ্ট নন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। আর নতুন কোচের কাছে নিজের চাওয়াটাও বুঝিয়ে দিয়েছেন বাফুফে সভাপতি।
বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের দায়িত্ব নিতে গত শনিবার ঢাকায় এসেছেন কোচ হাভিয়ের কাবরেরা। দলের সঙ্গে কাজ করবেন ১১ মাস। নিয়ম অনুযায়ী ঢাকায় এই স্প্যানিয়ার্ড কোচ রয়েছেন কোয়ারেন্টিনে। আগামী বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলবেন তিনি। আর বাফুফে ভবনে সোমবার নতুন কোচ নিয়ে কথা বলেন সালাউদ্দিন।ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদের সঙ্গে অনেক বিষয়ে আলোচনা করে কাবরেরাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। সালাউদ্দিন বলেন, ‘কাবরেরা সম্পর্কে যথাযথ তথ্য-উপাত্ত পাওয়ার পর আমি এবং নাবিল তাকে দায়িত্ব দিয়েছি। মনে হচ্ছে, সে খুব অ্যাক্টিভ কোচ। দেখা যাক তিনি কী করেন। ন্যাশনাল টিমস কমিটি বুধবার সংবাদ সম্মেলনে কোচ নিয়ে সবকিছু আপনাদের জানাবে।’
জেমি ডে’কে ‘ছুটি’ দিয়ে অস্কার ব্রুসনের অধীনে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ খেলেছিল বাংলাদেশ। হতাশাজনক ফলের মধ্যে ছিল কেবল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জয়ের সান্ত¡না। এরপর শ্রীলঙ্কায় প্রাইম মিনিস্টার মহিন্দা রাজাপাকসে টুর্নামেন্টে দলের হাল ধরেন আরেক অন্তর্বর্তীকালীন কোচ মারিও লেমোস। তার অধীনে মালদ্বীপের বিপক্ষে ১৮ বছর পর জয় মিললেও টুর্নামেন্টের ফাইনালে সঙ্গী হয় হারের বিষাদ।
গত ১৬ ম্যাচের মধ্যে অন্য জয়টি গত বছর মার্চে বাংলাদেশ পেয়েছিল ত্রিদেশীয় সিরিজে কিরগিজস্তান অনূর্ধ্ব-২৩ দলের বিপক্ষে। নতুন কোচকে তাই নিজের চাওয়াটা বুঝিয়ে দিয়েছেন সালাউদ্দিন। বাফুফে সভাপতি বলেন, ‘অবশ্যই কোচকে বলেছি, আমাদের জয় প্রয়োজন। সর্বোপরি, তাকে পেয়ে আমরা খুশি। এখন আর অতীত নিয়ে পড়ে থাকতে চাই না আমি।’
ক্লাব কোচিংয়ের টুকটাক অভিজ্ঞতা থাকলেও জাতীয় দলের দায়িত্বে এই প্রথম কাবরেরা। বাংলাদেশ দলের ২৩তম বিদেশি কোচ তিনি। জাতীয় দল নিয়ে কাজ করার অতীত অভিজ্ঞতা না থাকলেও তাকে নিয়ে আশাবাদী সালাউদ্দিন। তিনি বলেন, ‘আজ আমি তার সঙ্গে কথা বলেছি। আমি মনে করি, তার হাত ধরে আমরা কিছু সাফল্য পেতে পারি। আমাদের জাতীয় দলের কোচ হওয়াদের মধ্যে একমাত্র টম সেইন্টফিটেরই (২০১৬ সালে চার মাস দায়িত্বে ছিলেন) ছিল জাতীয় দল নিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা। তাই, এটা কোচদের জন্য কাজ করার খুব ভালো একটা জায়গা। যদি তারা এখানে ভালো করে, তাদের ক্যারিয়ারের উন্নতি হবে। কেননা, জাতীয় দলের দায়িত্ব পাওয়াটা গর্বের।’

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments