Friday, May 24, 2024
spot_img
Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিদেশের প্রথম স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০ প্রসেসরের রিয়েলমি ৯ আই, ডিজাইনে ফিচারে অনন্য

দেশের প্রথম স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০ প্রসেসরের রিয়েলমি ৯ আই, ডিজাইনে ফিচারে অনন্য

ভ্যালেন্টাইনস ডে’তে দেশের বাজারে রিয়েলমি নিয়ে এসেছে নাইন সিরিজের সর্বপ্রথম স্মার্টফোন রিয়েলমি ৯ আই। রিয়েলমি ৯ সিরিজের প্রথম স্মার্টফোন রিয়েলমি ৯আই। নতুন ফোনে থাকছে দুর্দান্ত প্রসেসর, ডার্ট চার্জ, হাই রিফ্রেশ রেট, ডুয়াল স্টেরিও স্পিকার, ট্রেন্ডি প্রিজম ডিজাইন, নাইটস্কেপ ক্যামেরা সহ অসাধারণ কিছু ফিচার।

 রিয়েলমি বলছে, নতুন বছরে দারুণ সব ইনোভেশন নিয়ে আসছে তারা।

বিজ্ঞাপনস্মার্টফোন এনালাইসিসকারী প্রতিষ্ঠান ক্যানালিসের প্রতিবেদন অনুসারে, ২০২১ সালের ৪র্থ প্রান্তিকে দেশের নাম্বার ১ স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি; ২০২২ সালে জুড়েই নিয়ে আসবে একের পর এক দারুণ সব স্মার্টফোন। এরই অংশ হিসেবে এসেছে এই রিয়েলমি ৯আই। এটি দেশের প্রথম স্ন্যাপড্রাগন যাতে ৬ ন্যানোমিটারের স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। রিয়েলমি ৯ আই ডিভাইসে ব্যবহৃত নতুন চিপসেটটি ৬২ শতাংশ কম শক্তি খরচ করে এবং ১২ ন্যানোমিটারের প্রসেসরের তুলনায় ৪৬ শতাংশ বেশি কার্যক্ষমতা নিশ্চিত করে। ফলে ব্যবহারকারীরা এই ফোন দিয়ে চমকপ্রদ পারফরমেন্স উপভোগ করতে পারবেন।

 ফোনটির স্ন্যাপড্রাগন ৬৮০-এর সিপিইউ থাকায় দ্রুতগতিতে লঞ্চ হবে। অ্যাপ্লিকেশন এবং নির্বিঘ্নে পেজ লোডিংয়ের সক্ষমতা এতে ২৫ শতাংশ বেশি। ডিভাইসটির জিপিইউ পারফরম্যান্স ১০ শতাংশ বেশি। ডিভাইসটি ফ্রেম রেটও বেশি, ফলে ব্যবহারকারীদের গেম খেলার অভিজ্ঞতা হবে আরো সমৃদ্ধ। রিয়েলমি ৯ আই ডিভাইসটিতে রয়েছে ৩৩ ওয়াট ডার্ট চার্জার, যা এই মূল্যের ফোনে দুর্দান্ত সংযোজন। এর ফলে এই স্মার্টফোনটি শতভাগ চার্জ হতে সময় নিবে মাত্র ৭০ মিনিট।

প্রতিনিয়ত স্মার্টফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে ব্যাটারি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পাঁচ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের এ ফোনটি দিয়ে ৪৮.৪ ঘণ্টা ফোনে কথা বলা, প্রায় ২১ ঘন্টা হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজিং এবং ১১৬ ঘণ্টা গান শোনা যায়। ব্যবহার না করা বা কম ব্যবহারের ক্ষেত্রে এক চার্জে ফোনটি ৯৯৫ ঘন্টা সচল থাকবে। কারণ এতে রয়েছে সুপার পাওয়ার সেভিং মোড, যা দিয়ে পাঁচটি সফওয়্যার অপটিমাইজেশনের মাধ্যমে দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি সুবিধা নিশ্চিত করছে। অব্যবহৃত অ্যাপগুলোকে ফ্রিজ করে দেওয়ার জন্য এর অ্যাপ কুইক ফ্রিজটি বেশ কার্যকর। এতে করে ব্যাটারি অনেক সাশ্রয় হয়। এছাড়াও, ডিভাইসটির স্ক্রিন ব্যাটারি অপ্টিমাইজেশন ও পাওয়ার সেভিং মোডও বেশ ব্যাটারি সাশ্রয়ী। এই বাজেটের ফোনে ৩৩ ওয়াট চার্জিং স্পিড ব্যবহারকারীদের এক অনন্য চার্জিং অভিজ্ঞতা প্রদান করবে।

রিয়েলমি ৯ আইয়ে রয়েছে পাঁচ স্তরের রিফ্রেশ রেট। স্ট্যাটিকের জন্য রিফ্রেশ রেট ৩০, মুভি’র জন্য ৪৮, টেলিপ্লে’র জন্য ৫০, ভিডিও’র জন্য ৬০, গেমের জন্য ৬০/৯০ ও ইনফরমেশন স্ট্রিমের জন্য ৯০ হার্টজ রয়েছে। এছাড়াও এই ফোনে আছে উন্নত মানের ডুয়াল স্টেরিও স্পিকার এবং এটি হাই-রেস ডুয়াল সার্টিফিকেশনও সাপোর্ট করে। ফলে অডিও কোয়াকলিটি হবে দুর্দান্ত। দারুণ ডিজাইনের সাথে দুর্দান্ত ক্যামেরার সমন্বয়- রিয়েলমি ৯ আই। ডিভাইসটিতে আছে ৫০ মেগাপিক্সেলের নাইটস্কেপ ক্যামেরা। ডিভাইসটির নাইট মোড, প্যানোরামিক ভিউ, টাইম-ল্যাপস, পোর্ট্রেট মোড এবং এআই বিউটির মতো ট্রেন্ডি ফটোগ্রাফি ফাংশন প্রতিটি ছবিকে অসাধারণ করে ফুটিয়ে তুলতে সক্ষম। সাথে থাকছে দারুণ সেলফি ক্যামেরাবন্দি করতে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

রিয়েলমি’র নতুন এ ডিভাইসটি স্টেরিও প্রিজম ডিজাইন দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে তৈরি করা হয়েছে; যেখানে আট স্তরের অপটিক্যাল কোটিং ও ৫-অ্যাক্সিস সিএনসি প্রিসিশন মেশিনিং ব্যবহার করা হয়েছে। ডায়নামিক র‌্যাম এক্সপেশন প্রযুক্তির মাধ্যমে ১১ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ সুবিধা উপভোগ করতে পারবে ব্যবহারকারীরা। দুর্দান্ত ডিজাইন এবং স্পেসিফিকেশনের রিয়েলমি ৯ আই স্মার্টফোনের দু’টি সংস্করণ রয়েছে। একটি ডিভাইসে রয়েছে ৬ জিবি র‌্যাম (যা ১১ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে) ও ১২৮ জিবি রম। এর বাজার মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯,৪৯০ টাকা। ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি রমের অন্য ডিভাইসটি ১৭,৪৯০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। প্রিজম ব্লু ও প্রিজম ব্ল্যাক – এ দু’টি দুর্দান্ত রঙে পাওয়া যাচ্ছে রিয়েলমি ৯ আই।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments