Tuesday, July 16, 2024
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকদুই ব্রিটিশ স্বেচ্ছাসেবীর মরদেহ ইউক্রেনে ফেরত পাঠাচ্ছে রাশিয়া

দুই ব্রিটিশ স্বেচ্ছাসেবীর মরদেহ ইউক্রেনে ফেরত পাঠাচ্ছে রাশিয়া

বন্দী বিনিময়ের অংশ হিসেবে যুদ্ধে নিহত দুই ব্রিটিশ নাগরিক ক্রিস প্যারি (২৮) ও অ্যান্ড্রু বাগশাওয়ের (৪৭) মরদেহ ইউক্রেনে ফেরত পাঠাচ্ছে রাশিয়া। গত মাসে পূর্ব ইউক্রেনে লড়াইয়ের সময় গোলার আঘাতে নিহত হন ওই দুই স্বেচ্ছাসেবী। তবে কবে নাগাদ যুক্তরাজ্যের দূতাবাস কর্মীদের কাছে মরদেহ দুটি হস্তান্তর করা হতে পারে সে বিষয়ে এখনো কিছু জানানো হয়নি।
বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, গত ৬ জানুয়ারি সবশেষ পূর্ব ইউক্রেনের সোলেদার এলাকায় তাঁদের দুজনকে দেখা গিয়েছিল। বাগশাওয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা দুজন একজন বয়স্ক নারীকে উদ্ধারের চেষ্টা করার সময় একটি শেল তাদের গাড়িতে আঘাত করে।
গত মাসে তুমুল লড়াইয়ের পর ইউক্রেনের লবণ খনি সমৃদ্ধ ছোট্ট শহর সোলেদার দখল করে রাশিয়া। যদিও ইউক্রেন সরকারের দাবি, রাশিয়া এখনো সোলেদারের পূর্ণ দখল পায়নি।
বন্দী বিনিময়ের অংশ হিসেবে রাশিয়া তাদের ১১৬ যোদ্ধাকে মুক্তি দিয়েছে বলে জানান ইউক্রেনের চিফ অব স্টাফ অ্যানড্রি ইয়েরমাক। যাদের মধ্যে মারিউপোলের ও খেরসনের প্রতিরোধ যোদ্ধা, বাখমুতের স্নাইপার এবং বিশেষ অভিযানে অংশ নেওয়া দুই যোদ্ধাও রয়েছেন।
রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, ‘জটিল মধ্যস্থতা প্রক্রিয়ায়’ তাদের ৬৩ সেনাকে ফিরিয়ে দিয়েছে ইউক্রেন। এই মধ্যস্থতা প্রক্রিয়ায় ভূমিকা রাখার জন্য তারা সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ধন্যবাদ দিয়েছে। ইয়েরমাক বলেন, ইউক্রেন সবাইকে দেশে ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা অব্যাহত রাখবে।
এদিকে ইউক্রেনের চিফ অব স্টাফ অ্যান্ড্রি ইয়ারমাক বলেন, শনিবার (৪ জানুয়ারি) পর্যন্ত ১১৬ ইউক্রেনীয় সৈন্যকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে মারিওপোল, খেরসন ও বাখমুত শহরের সেনারাসহ বিশেষ অভিযানে জড়িত দুজন কর্মকর্তা রয়েছেন।
রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, জটিল মধ্যস্থতা প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ৬৩ জন ইউক্রেনীয় সেনাকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যস্থতার কারণেই ‘সংবেদনশীল বিভাগের’এ বন্দী লোকদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এ বছর দুই দেশের মধ্যে এটা দ্বিতীয় বন্দিবিনিময়।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments