বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলেও এখন চীনের অবস্থা অনেকটা স্থিতিশীল। করোনা মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জয়ী হওয়ার দাবি করে করোনা যোদ্ধাদের পদক দিয়ে সম্মান জানিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। প্রেসিডেন্ট বলেন, করোনাভাইরাস নিয়ে চীন প্রথম থেকেই  খোলামেলা ছিল , সেইসঙ্গে স্বচ্ছতাও বজায় রেখেছে। তাঁর মতে, বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ অর্থনীতিগুলোর মধ্যে চীনই প্রথম অতিমহামারির প্রভাব কাটিয়ে উঠেছে। অর্থনীতি খুলছে। করোনা প্রতিরোধে ভ্যাকসিনের অপেক্ষায় এখন গোটা বিশ্ব। আমেরিকা, রাশিয়া, ব্রিটেন-এর মতো দেশগুলো নিজেদের মতো করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর শি জিনপিং-এর দেশের দিকে আঙ্গুল তুলেছিল আমেরিকার মতো শক্তিশালী দেশ, অনেকে তাকে সমর্থনও করেছিল।

বিশ্বজুড়ে ক্রমশ একঘরে হয়ে যাওয়া চীন এবার নতুন স্ট্র্যাটেজি নিয়েছে। ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে দেশে উৎপন্ন ভ্যাকসিন এবার বিতরণ করার পন্থা নিয়েছে। এভাবেই দল ভারী করতে চাইছে তারা। তালিকায় একেবারে ওপরের দিকে আছে ইন্দোনেশিয়া। শুধু তাই নয়, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং নিজে ফোন করে ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উই ডোডোকে ভ্যাকসিন দিয়ে সহায়তা করার ব্যাপারে আশ্বস্ত করেছেন। ল্যাটিন আমেরিকা এবং ক্যারিবিয়ান দেশগুলো ১ বিলিয়ন ডলার ঋণ নিয়েছে চীনাদের ভ্যাকসিন কিনবে বলে। একটি চীনা সংস্থা বাংলাদেশকে বিনামূল্যে ১ লাখ ডোজ দেবে বলে খবর। গরিব দেশগুলোকে ভ্যাকসিন দেয়ার সিদ্ধান্ত করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে চীনকে অনেকটা এডভান্টেজ এনে দেবে বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক  বিশেষজ্ঞরা। চীনের সব থেকে বিশ্বস্ত বন্ধু পাকিস্তানও এই ভ্যাকসিন নিয়ে বেশ আশাবাদী। এই মুহূর্তে চীনা ভ্যাকসিনের চতুর্থ পর্যায়ের ট্রায়াল চলছে, যাতে অংশ নিয়েছেন ৪ জন স্বেচ্ছাসেবী। অন্যান্য  দেশের  তুলনায় যা অনেকটাই এগিয়ে। আমেরিকার সেই জায়গায় সংখ্যাটা ছিল ৩, এর মধ্যেই আবার এক স্বেচ্ছাসেবী অসুস্থ হয়ে পড়ে ব্রিটেনকে এস্ট্রাজেনেকার পরীক্ষা-নিরীক্ষা বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। আপৎকালীন  পরিস্থিতিতে গত জুলাইতেই চীনা সৈন্য, সরকারি কর্মীদের ওপর ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হয়েছে। ধীরে ধীরে স্বাস্থ্য এবং বিমান কর্মীদের এর আওতায় আনা হবে বলে জানা গেছে। কারখানাগুলোকে  একদিনে ১০০ থেকে ১০০০ ডোজ  ভ্যাকসিন উৎপন্ন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে বলা যায় সমালোচনার খোঁচায় বিদ্ধ চীন বন্ধু বানিয়ে দল ভারী করতে এখন মরিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English