Wednesday, June 12, 2024
spot_img
Homeখেলাধুলাডিউক বলের যুগে মুস্তাফিজ

ডিউক বলের যুগে মুস্তাফিজ

ঘরের মাঠে টেস্টে বাংলাদেশ খেলে কোকাবুরা বলে। কিন্তু ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে খেলা হয় ডিউক বলে। সিমের আকৃতিতে থেকে যায় ভিন্নতা। ডিউক বলে পেস বোলাররা পান অনেক বেশি মুভমেন্ট। তবে সেই মুভমেন্ট আদায় করার কৌশলও জানতে হয়। ইংল্যান্ডের মাটিতে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট না খেলায় একটি জায়গায় ‘অভিষেক’ হতে যাচ্ছে মুস্তাফিজুর রহমানের। ২০১৮ সালে বাংলাদেশ দলের সঙ্গে ওয়েস্ট ইন্ডিজে গেলেও টেস্ট দলে তিনি ছিলেন না। তাই বাঁহাতি পেসার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাত বছর কাটিয়েও ডিউক বলে কখনো বল করেননি! লম্বা সময় পর টেস্ট দলে ফেরা মুস্তাফিজকে এসব টেকনিক্যাল বিষয়ই বোঝালেন পেস বোলিং কোচ অ্যালান ডোনাল্ড।
অ্যান্টিগায় চলমান একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে মুস্তাফিজকে এখনো বল করতে দেখা যায়নি। প্রস্তুতি ম্যাচের প্রথম একাদশের বাইরে আছেন তিনি। অন্যরা যখন প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যস্ত তখন মুস্তাফিজকে নিয়ে আলাদা সেশন করেন ডোনান্ড। আইপিএল খেলে দেশে ফেরার পর বিশ্রামে ছিলেন বাঁহাতি পেসার। ওয়েস্ট ইন্ডিজ উড়ে গিয়ে গতপরশুই প্রথম বল হাতে নেন। এর আগে কখনো ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাওয়া হয়নি তার, ইংল্যান্ডেও কোনদিন খেলেননি টেস্ট। ডিউক বল তাই একদম অচেনা মুস্তাফিজের কাছে।
দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক তারকা হলেও ইংল্যান্ডে কাউন্টি ক্রিকেট খেলার কারণে ডিউক বল বেশ চেনা ডোনাল্ডের। ডিউক বল কীভাবে সামলাতে হয়, তা ডোনাল্ডের জানা আছে ভালো মতোই। ইংল্যান্ডে ৮ টেস্ট খেলে ৪৫ উইকেট তার, ওয়েস্ট ইন্ডিজে ৫ টেস্টে ২০টি। কাউন্টি ক্রিকেটে তিনি কিংবদন্তি, ব্যাটসম্যানদের জন্য ছিলেন আতঙ্ক। টেস্ট অভিষেকের ৫ বছর আগে থেকেই খেলেন তিনি ওয়ারউইকশায়ারের হয়ে। এই কাউন্টির হয়ে এক যুগের বেশি খেলে ১৪১ ম্যাচে উইকেট ৫৩৬টি! সেই অভিজ্ঞতাই দিয়েছেন ফিজকে, ‘কোকাবুরা থেকে ডিউক বলে আসা। যে বলে ওয়ারউইকশায়ারে খেলার সময় আমি খুব অভ্যস্ত ছিলাম। ইংল্যান্ডে কাউন্টি ক্রিকেট ও টেস্ট ম্যাচ ক্রিকেটে এই বল ব্যবহৃত হয়। এই বলে খুব বড় সিম থাকে। এই সিম ব্যবহার করতে বোলারদের অনেক খাটতে হবে। ফিজের সঙ্গে আজ প্রথম সেশন হলো। আইপিএলের পর সে প্রথম বল হাতে নিল।’
অ্যান্টিগার কুলিজ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে তিন দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে অবশ্য মুস্তাফিজ খেলছেন না। ম্যাচ চলাকালে তিনি বোলিং কোচের সঙ্গে আলাদাভাবে লাল বলের অনুশীলন করছেন। বিসিবির পাঠানো ভিডিওতে দেখা যায় ডিউক বলে স্পট বোলিং করছেন মুস্তাফিজ। ডোনাল্ডের কাছ থেকেও নিচ্ছেন ধারণা। বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচের ধারণা সময় কম থাকলেও অভ্যস্ত হয়ে উঠবেন বাঁহাতি পেসার, ‘তাকে এই বল সম্পর্কে কিছুটা ধারণা দিলাম। তাকে গ্রিপ সামান্য বদলাতে হবে। তবে এই বল হাতে নিয়ে সে ভালো বোধ করছে।’
লাল বলের চুক্তিতে না থাকায় টেস্ট খেলা থেকে দ‚রে ছিলেন মুস্তাফিজ। তবে তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম চোটে থাকায় মুস্তাফিজকে এক প্রকার জোর করেই ওয়েস্ট ইন্ডিজে টেস্ট খেলতে পাঠিয়েছে বিসিবি। এবারের আইপিএলে মুস্তাফিজ আট ম্যাচ খেলেছেন, যার সর্বশেষটি ছিল গত ১ মে। এক মাসের বেশি সময় ম্যাচের বাইরে থাকা এই বাঁহাতি পেসারের টেস্ট ক্রিকেটের সঙ্গে দ‚রত্বটা আরও বেশি। গত বছরের ফেব্রæয়ারি মাসে সর্বশেষ তিনি টেস্ট খেলেছিলেন, চট্টগ্রামে সেই টেস্টে প্রতিপক্ষ ছিল এই ওয়েস্ট ইন্ডিজই। এবার সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আবার টেস্ট দলে ফিরেছেন মুস্তাফিজ। ১৬ জুন অ্যান্টিগায় প্রথম টেস্টে ইবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদদের পাশাপাশি তৃতীয় পেসার হিসেবে মুস্তাফিজকে একাদশে দেখা যেতে পারে। যেখানে তাঁকে মানিয়ে নিতে হবে নতুন এক ক্রিকেট বলের সঙ্গে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments