Thursday, October 6, 2022
spot_img
Homeখেলাধুলাটাইগারদের বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু

টাইগারদের বিশ্বকাপের যাত্রা শুরু

অস্ট্রেলিয়ায়  ২৩ দিন পরেই শুরু হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসর। বাংলাদেশ দলও তাদের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। তবে এতদিন ছিল বিচ্ছিন্নভাবে। এবার দলগত বিশ্বকাপ স্বপ্নপূরণের যাত্রা শুরু হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে। অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে ছাড়াই আজ দেশ ছাড়ছে টাইগারদের বিশ্বকাপ স্কোয়াড। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ১২ই  সেপ্টেম্বর থেকে বিশ্বকাপ সামনে রেখে তিন দিনের বিশেষ ক্যাম্প আয়োজন করেছিল। তবে মিরপুরে বৃষ্টির কারণে কন্ডিশনিং ক্যাম্প ভেস্তে যায়। এরপরই আবহাওয়ার কথা ভেবে কোচ শ্রীধরন শ্রীরাম চেয়েছিলেন বিদেশের মাটিতে অনুশীলন ক্যাম্প ও প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে। বিসিবি সেখানে তার প্রত্যাশার চেয়েও বেশি দিচ্ছে। ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে আরব আমিরাতের বিপক্ষে দুই ম্যাচ আন্তর্জাতিক  সিরিজ খেলার ব্যবস্থা করেছে বোর্ড।

২৫ ও ২৭শে সেপ্টেম্বর দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে হবে ম্যাচ দুটি। আজ বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ বিমানে দেশ ছাড়বে টাইগাররা। সিরিজে নেতৃত্ব দেবেন সহঅধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান। সাকিব খেলছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগে। সহঅধিনায়ক আশাবাদী ঘুরে দাঁড়াতে। দল হিসেবে খেলার  আশাবাদ তার।  নুরুল হাসান বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে ভালো করতে পারছি না। মনে হয় যে দল হিসেবে ভালো করা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তবে আমরা যে খুব খারাপ খেলেছি তাও না। কিন্তু আমরা ক্লোজ ম্যাচ যেগুলো আমাদের দিকে আসতে পারতো এই জায়গাটায় হেরে যাচ্ছি। ৫০-৫০ বা ৬০-৪০ চান্স থাকে যে ম্যাচগুলোতে সেসব আমাদের দিকে কিভাবে আনা যায়, এই খানে উন্নতি করার একটা জায়গা আছে আমাদের।’ 
বিসিবি চেয়েছিল নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় দুবাইয়ে কন্ডিশনিং ক্যাম্প ও স্থানীয় ক্রিকেটারদের সঙ্গে ম্যাচ খেলতে। তবে আমিরাত ক্রিকেট বোর্ড সুযোগটাকে লুফে নেয়। বিশ্বকাপের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ইউএই ক্রিকেট বোর্ড বিসিবিকে উল্টো সিরিজ খেলার প্রস্তাব দেয়। লোভনীয় এই প্রস্তাব সঙ্গে সঙ্গে লুফে নেয় বাংলাদেশ। ২৮শে সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে এসে দলের বিশ্রামের সুযোগ নেই। দল নিউজিল্যান্ডের জন্য বিমানে চাপবে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে।  বিশ্বকাপের আগে এটি টাইগার স্কোয়াডের বড় প্রস্তুতির সুযোগ। স্বাগতিকরা ছাড়াও তৃতীয় পক্ষ হিসেবে থাকবে পাকিস্তান। তিন দলের সিরিজের ফাইনাল ১৪ই অক্টোবর। তার পর দিনই অস্ট্রেলিয়ার ব্রিজবেনের পথে যাত্রা করবে টাইগাররা। সেখানে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে ২০শে অক্টোবর পৌঁছাবে হোবার্টে। সেখানেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মূল পর্বের প্রথম ম্যাচ খেলবে সাকিবের দল। টাইগার অধিনায়ক দলের সঙ্গে যোগ দেবেন নিউজল্যান্ডে। 
দেশ ছাড়ার আগে টাইগার শিবিরে চোটমুক্তির স্বস্তি। দলের অন্যতম সেরা ওপেনার লিটন কুমার দাস গতকাল ফিরেছেন অনুশীলনে। ইনজুরির কারণে খেলা হয়নি তার এশিয়া কাপ। সহঅধিনায়ক সোহান ছাড়াও পেসার হাসান মাহমুদ ও ব্যাটার ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি এখন চোটমুক্ত। দলের বড় চ্যালেঞ্জ আরব আমিরাত ও নিউজিল্যান্ডে ইনজুরি মুক্ত থাকার পাশাপাশি জয়ের ধারায় ফেরা। আরব আমিরাতে প্রস্তুতি ম্যাচ জিতলে দলের আত্মবিশ্বাস কতটা বাড়বে তা নিয়ে সোহান বলেন, ‘যখন একটা দল জেতার অবস্থায় আছে তখন দলের পরিস্থিতি বদলে যায়। আমরা ক্লোজ কিছু ম্যাচ হেরেছি, যেহেতু হারার সাইডে ছিলাম এটা অনেক সময় প্যানিক করে। আমরা এক-দুটা ম্যাচ জিতলে এই জায়গা থেকে উন্নতি হবে, অবশ্যই আমরা বিশ্বাস করি যে আমরা দল হিসেবে ভালো কিন্তু আমরা হয়তো সেরাটা দিতে পারছি না, তবে জয়ের দিনে আসলে আমরা বদলে যাবো। ম্যাচ আপনি যার সাথেই খেলেন না কেন, এটা একটা অভিজ্ঞতা হয়। কোনো দলকেই তো টি-টোয়েন্টিতে ছোট করে দেখতে পারবেন না। যেদিন যারা ভালো খেলবে তারাই জিতবে। আমার কাছে মনে হয় যে এটা বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে খুব ভালো সুযোগ যে ম্যাচ খেলতে পারছি।’ 

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments