Monday, August 8, 2022
spot_img
Homeকমিউনিটি সংবাদ USAজেবিবিএ’র নির্বাচন: গিয়াস-তারেক পূর্ন প্যানেল বিজয়ী

জেবিবিএ’র নির্বাচন: গিয়াস-তারেক পূর্ন প্যানেল বিজয়ী

যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের সবচেয়ে বড় সংগঠন জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশী বিজনেস এসাসিয়েশনের ( জেবিবিএ ) নির্বাচনে গিয়াস-তারেক প্যানেলর সবাই বিজয়ী হয়েছে। মূলধারার রাজনীতিবিদ এবং ইমিগ্রান্ট হোম কেয়ারের প্রেসিডেন্ট গিয়াস আহমেদ এবং গ্লোবাল এনওয়াই ট্রাভেলের তারেক হাসান খান ফল ঘোষণার পর বলেছেন , ‘ জ্যাকসন হাইটসকে একটি নিরাপদ ব্যবসায়ী এলাকা হিসেবে গড়ে তুলতে তারা সম্ভাব্য সব কিছু করবেন। প্রেসিডেন্ট পদে গিয়াস আহমেদ পেয়েছেন ২২৪ ভোট আর প্রতিদ্বন্ধি মাহাব্বুর রহমান টুকু পেয়েঠেন ১৬০ ভোট। সেক্রেটারী পদে বিজয়ী তারেক হাসান পেয়েছেন ১৯৫ ভোট আর তার প্রতিদ্বন্ধি মুনির হাসান পেয়েছেন ১৭৭ ভোট।
রবিবারের নির্বাচনে গিয়াস-তারেক এবং টুকু-মনির প্যানেল প্রতিদ্বন্ধিতা করে। গত কয়েকদিন ধরেই জ্যাকসন হাইটস এলাকায় উৎসবের পরিবেশ ছিলো নির্বাচনকে কেন্দ্র করে। আগে থেকেই হাড্ডাহাড্ডি প্রতিদ্বন্ধিতার আভাস পাওয়া গেলেও ভোটের দিন ব্যবসাযীরা গিয়াস-তারেক প্যানেলকেই বিজয়ী করার সিদ্ধান্ত নেয়। কয়েকজন ব্যবসায়ী এই প্রতিবেদককে বলেছেন, তারা চান পূর্ণ প্যানেল বিজয়ী হোক। তাহলে তাদের দেয়া প্রতিশ্রুতি পূরণ করে কিনা সে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলঅ যাবে।
নির্বাচন কমিশন কর্তৃক গিয়াস-তারেক প্যানেলের সবাইকে এক এক করে বিজয়ী ঘোষণা করা হলে উপস্থিত ভোটাররা উল্লাসে ফেটে পড়েন। এ সময় জেবিবিএ’র নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট গিয়াস আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, তিনি বিজয়ী এবং পরাজিত সবাইকে নিয়েই একসাথে কাজ করবেন। তিনি বলেন, এই নির্বাচনে কেউ এককভাবে বিজয়ী হয়নি এবং কেউ পরাজিতও হয়নি। আমরা সবাই একসাথে কাজ করবো। সুতরাং আমরা সবাই বিজয়ী হয়েছি। ’
নব-নির্বাচিত সেক্রেটারী তারেক হাসান বলেন, এই দায়িত্ব আমরা সঠিকভাবে পালন করবো এবং জ্যাকসন হাইটসকে একটি পরিচ্ছন্ন এবং সুন্দর ব্যবসাবান্ধব এলাকা হিসেবে গড়ে তুলবো। যারা ভোট দিয়েছেন এবং যারা দেননি সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

উল্লেখ্য বাংলাদেশী অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটস এলাকার ব্যবসায়ীদের সংগঠন জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশী বিজনেস এসোসিয়েশন অব এনওয়াই ইনক (জেবিবিএ)-এর দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে বিজয়ীরা ২০২২-২০২৩ সালের জন্য দায়িত্ব পালন করবেন। জ্যাকসন হাইটস এলাকায় অপরিচ্ছন্নতা, চুরি, ছিনতাই, হোমলেসদের দৌরাত্ব, পাকিং সমস্যা, নামাজের জায়গার অভাবসহ নানাবিধ সমস্যা রয়েছে। নির্বাচনের প্রতিদ্বন্ধি দুটি প্যানেলই এসব সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন নির্বাচনের আগে। সাধারণ ব্যবসায়ীদের অভিযোগ ইতিপূর্বেও নির্বাচনের আগে অনেকে প্রতিশ্রুতি দিলেও সেটা কেউ বাস্তবায়ন করেন না। কিন্তু এবার তারা আশা করছেন নতুন কমিটি তাদের দীর্ঘদিনের সমস্যাগুলো সমাধানের জন্য বাস্তব পরিকল্পনা হাতে নিবেন এবং বাস্তবায়ন করবেন।

‘গিয়াস-তারেক’ প্যানেলে সভাপতি- গিয়াস আহমেদ এবং সাধারণ সম্পাদক- মোহাম্মদ তারেক এইচ খান ছাড়াও অন্য যারা বিজয়ী হয়েছেন তারা হলেন, সহ সভাপতি- মোল্লা এম এ মাসুদ, সহ সভাপতি- মোহাম্মদ হাসান জিলানী, সহ সাধারণ সম্পাদক- এমডি মফিজুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক- তারিকুল ইসলাম, কোষাধক্ষ- এস এম আবুল হাসান, দপ্তর সম্পাদক- এমডি জি রহমান (আকাশ রহমান), সাংস্কৃতিক সম্পাদক- জাফর উল্লাহ মিলন, প্রচার সম্পাদক- বেলাল আহমদ এবং কর্যকরী সদস্য যথাক্রমে বর্ণালী হাসান এমডি, রকি আলিয়ান, আব্দুল আলিম, খালেদ আকতার, এবং এস কিউ আলম।
অপরদিকে ‘টুকু-মুনির’ প্যানেলের প্রার্থীরা ছিলেন: সভাপতি- এমডি মাহবুবুর রহমান টুকু, সহ সভাপতি- মোহাম্মদ সোলায়মান আলী, সহ সভাপতি- সূলতান আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক- মুনির হাসান, সহ সাধারণ সম্পাদক- এমডি এল ফারুক, সাংগঠনিক সম্পাদক- এমডি দেলওয়ার হোসেইন, কোষাধক্ষ্য- এমডি এস হোসেন, দপ্তর সম্পাদক- রাম কে সাহা (অপু), প্রচার সম্পাদক- মোহাম্মদ শাহিন ভূঁইয়া, সাংস্কৃতিক সম্পাদক- শেখ এইচ আলী এবং কার্যকরী সদস্য যথাক্রমে শামীম মনির, নজরুল আই মিয়া, জহিরুল ইসলাম জয়, মাসুদ আহমেদ এবং আব্দুল হাই।
নির্বাচনে ৪৫৪ জন ভোটারের মধ্যে ৪০৭ জন ভোটার ভোট দিয়েছেন। জ্যাকসন হাইটসের বাংলাদেশ প্লাজার কনফারেন্স রুমে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে।
নির্বাচনে ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন, মোহাম্মদ এ বার ভূইয়া, নির্বাচন কমিশনের অন্য সদস্যরা হচ্ছেন, জাফর মিতা, আবু হেলেন হোসেন ও বেলায়েত হোসেন।
নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ এ ভূইয়া, জেবিবিএ’র নির্বাচন সুষ্ঠাভাবে সম্পন্ন করতে সহায়তার জন্য সংস্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments