Wednesday, April 17, 2024
spot_img
Homeজাতীয়‘জাতীয় পার্টি কোনো জোটের সঙ্গে নির্বাচন করবে না’

‘জাতীয় পার্টি কোনো জোটের সঙ্গে নির্বাচন করবে না’

জাতীয় পার্টির মহাসচিব সাবেক মন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু এমপি বলেছেন, জাতীয় পার্টি আগামীতে কোনো জোটের সঙ্গে নির্বাচন করবে না। নির্বাচনে ৩শ আসনে জাতীয় পার্টি তাদের দলীয় প্রার্থী দেবে। দেশের কোটি কোটি মানুষ এখন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কোনো দলকে চায় না। একটির বাইরে দেশের মানুষ অন্য একটি রাজনৈতিক দলকে খুঁজছে। একমাত্র জাতীয় পার্টি হলো তৃণমুল পর্যায়ে সংগঠিত। আওয়ামী লীগের কাছ থেকে সাধারণ মানুষ বঞ্চিত হয়েছে। দুর্নীতি দুঃশাসন থেকে দেশের মানুষকে মুক্তি দিতে জাতীয় পার্টির কোনো বিকল্প নাই। 

শনিবার বিকালে মানিকগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

জেলা জাপা সভাপতি ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক এমপি সৈয়দ মোহাম্মদ আব্দুল মান্নানের সভাপত্বিতে ও জেলা সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাসান সাঈদের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন- জাপা প্রেসিডিয়াম সদস্য ও অতিরিক্ত মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি, অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভুঁইয়া, প্রেসিডিয়াম সদস্য জহিরুল ইসলাম জহির, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল আলম রুবেল, দলের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান খান, যুগ্ম-মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো. বেলাল হোসেন, জাপার সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হেলাল উদ্দিন, হুমায়ুন খান, দপ্তর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, মাসুদুর রহমান মাসুম, কেন্দ্রীয় শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান মিরু, যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক এমএ সোবহান, যুগ্ম-দফতর সম্পাদক মাহমুদ আলম, সমরেশ মন্ডল মানিক, নির্বাহী সদস্য আবু সাঈদ স্বপন, ও আবু নাঈম ইকবাল। 

এছাড়া জেলা জাপা সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বিল্লাল হোসেন, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা জাপা সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম, পৌর জাপার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

জাপা মহাসচিব আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দুটি দলই এখন স্বৈরাচার। বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে দুর্নীতিতে চার বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। 

তিনি বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আগামীতে যদি বিএনপি ক্ষমতায় যেতে না পারে তাহলে দলটি মুসলীম লীগ হয়ে যাবে। 

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সিষ্টেমে নির্বাচন কমিশনের অধিনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। 
দেশের অর্তনৈতিক উন্নয়নে প্রাইভেট সেক্টর উন্নতির পেছনে সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের অবদান উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, দেশের গার্মেন্টস শিল্প ও ওষুধ শিল্প এতো উন্নতির পেছনে তার (এরশাদের) ভূমিকা বেশি।

তিনি আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকে একই সূত্রে গাঁথা বলে মন্তব্য করেন। ক্ষমতায় যাওয়ার পর দু’দলই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ বলে জানান। বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন চার বার দুর্নীতিতে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল আর বর্তমান আওয়ামী লীগ ২০০৯ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত চার লক্ষ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে বলে জানান। দেশের মানুষ ভালো না থাকলেও আওয়ামী লীগাররা ভালো আছে।  

জাতীয় সংসদে বাজেট অধিবেশনে অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতায় বলেছেন, যারা ঘুস খেয়ে, দুর্নীতি করে বিদেশের টাকা পাচার করেছেন, তাদের সে টাকা যদি সাত পারসেন্ট ট্যাক্স পরিশোধ করেন তাহলে, সে টাকা হালাল করতে পারবেন। অথচ দুর্নীতি দমন ও মানি লন্ডারিং আইনে টাকা পাচার করলে যাবজ্জীবন জেলের বিধান রয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকারের মাথা খারাপ হয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। দেশে বর্তমানে পাঁচ কোটি মানুষ বেকার রয়েছে বলে তিনি জানান। 

তিনি বলেন এই নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের কোনো মাথা ব্যথা নেই।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments