Saturday, June 15, 2024
spot_img
Homeআন্তর্জাতিকজাতি নিধনের আহ্বান ভারতকে গৃহযুদ্ধের দিকে নিয়ে যেতে পারে- সাবেক নৌপ্রধান

জাতি নিধনের আহ্বান ভারতকে গৃহযুদ্ধের দিকে নিয়ে যেতে পারে- সাবেক নৌপ্রধান

ভারতের নৌবাহিনীর সাবেক প্রধান ও সিনিয়র মিলিটারি কমান্ডার অরুণ প্রকাশ সতর্ক করেছেন। বলেছেন, মুসলিমদের বিরুদ্ধে কট্টরপন্থি হিন্দুদের গণহত্যার আহ্বানের বিষয়ে রাজনৈতিক নেতৃত্ব নিন্দা জানাতে ব্যর্থ হয়েছেন। এ জন্য ভারত গৃহযুদ্ধের দিকে ধাবিত হতে পারে। এ ইস্যুতে রাজনৈতিক নেতৃত্বের নীরবতাকে তিনি অশুভ বলে মন্তব্য করেছেন। দ্য ওয়্যার’কে দেয়া এক সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেছেন তিনি। এ খবর দিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমসের পাকিস্তানি সংস্করণ এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

উল্লেখ্য, ১৭ থেকে ১৯ শে ডিসেম্বর হরিদ্বারে কট্টরপন্থি হিন্দুরা সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিমদের বিরুদ্ধে ‘সাফারি অভিযান’ বা জাতি নিধনের আহ্বান জানান। এ নিয়ে তীব্র উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। অবশেষে বিষয়টি শুনানিতে নেয়ার কথা বলেছেন ভারতের প্রধান বিচারপতি এনভি রামানা।

এ ইস্যুতে দ্য ওয়্যারকে সাক্ষাতকার দিয়েছেন অরুণ প্রকাশ।তিনি বলেছেন, এ ইস্যুতে রাজনৈতিক নেতৃত্বের নিন্দা জানিয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া উচিত ছিল। তিনি বলেন, যদি এই ধারা চলতেই থাকে, তাহলে পাল্টা ব্যবস্থা আসবে। এর ফলে পরবর্তীতে দেখা দেবে সংঘাত। তার কাছে জিজ্ঞাসা করা হয়, এর অর্থ কি ভারত একটি গৃহযুদ্ধের দিকে যাবে? জবাবে সাবেক এডমিরাল অরুণ প্রকাশ বলেন, হ্যাঁ, অবশ্যই।

মুসলিমদের বিরুদ্ধে গণহত্যা ও জাতিনিধনের আহ্বানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ভারতের প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে গত ৩১ শে ডিসেম্বর খোলা চিঠি লিখেছেন অরুণ প্রকাশ ও নৌবাহিনীর সাবেক তিনজন প্রধান ও বিমান বাহিনীর একজন সাবেক প্রধান। এসব চিঠির কোনো জবাব পেয়েছেন কিনা? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, না। এখন পর্যন্ত কোনো উত্তর পাইনি। এমন উত্তর আশা করা ব্যর্থতা।

নৌবাহিনীর সাবেক এই প্রধানের লেখা চিঠিতে ভারতের সেনাবাহিনীর সাবেক একজনও প্রধান স্বেচ্ছায় স্বাক্ষর করেননি। এ জন্য তিনি গুরুত্বর প্রশ্ন তুলেছেন। অরুণ প্রকাশ বলেন, সাবেক সেনাপ্রধানরা এতে স্বাক্ষর করতে চাননি। হতে পারে তারা হয়তো গণহত্যা বা জাতি নিধনের আহ্বানে একমত। অথবা এমন চিঠিতে স্বাক্ষর করলে পরিণতি নিয়ে তারা ভীত।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments