Wednesday, April 17, 2024
spot_img
Homeজাতীয়জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ

সাভার স্মৃতিসৌধে মানুষের ঢল মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমতা মানবিক মর্যাদা সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার

দেশব্যাপী মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার মুক্তিযুদ্ধে বাঙালির বিজয়ের ৫১তম বার্ষিকীতে সমগ্র জাতি বীর সন্তানদের স্মরণ করে। যাদের রক্তের বিনিময়ে ২৩ বছরের পাকিস্তানি শাসনের অবসান ঘটেছিল এবং বিশ্বের মানচিত্রে অভ্যুদয় ঘটেছিল স্বাধীন বাংলাদেশের। বিজয়ের দিনে বীর সন্তানদের শ্রদ্ধা জানাতে আসা মানুষেরা সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে উৎখাত, গণতন্ত্র পুণরুদ্ধার, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমতা, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার করেন।

৯ মাসব্যাপী রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশ নামে একটি নতুন রাষ্ট্রের অভ্যুদয় ঘটে। রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে এবং বিদেশে বাংলাদেশের বিভিন্ন দূতাবাসে দিবসটি উদযাপিত হয়েছে। এর আগে সকালে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানানোর জন্য সমবেত হয়। শোক আর রক্তের ঋণ শোধ করার গর্ব নিয়ে উজ্জীবিত জাতি দিবসটি উদযাপন করে অন্য রকম অনুভূতি নিয়ে। পৌষের প্রথম দিন শীতের কুয়াশা ও ঠান্ডা বাতাস উপেক্ষা করে সর্বস্তরের মানুষ ভোর থেকেই সাভারে স্মৃতিসৌধের বাইরে ও আশপাশের মহাসড়কে সমবেত হতে থাকে। ভোরের সূর্য ওঠার আগেই ফুল, মাথায় বিজয় দিবস লেখা ব্যান্ড, জাতীয় পতাকা নিয়ে স্মৃতিসৌধে নেমেছিল জনতার ঢল। বিনম্র চিত্তে সমগ্র জাতি ৩০ লাখ শহীদকে আরো একবার জানিয়ে দিল ‘আমরা তোমাদের ভুলব না।’ দিবসটি উপলক্ষে সরকারি ও বেসরকারিভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ভোরে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে বিজয় দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়।

সাভার থেকে স্টাফ রিপোর্টার সেলিম আহমেদ জানান, সকাল সাড়ে ৬টায় সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে স্মৃতিস্তম্ভের বেদিতে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যদিয়ে শুরু হয় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন। এ সময় শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর। পরে শেখ হাসিনা দলীয় প্রধান হিসেবে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় ড. আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, শাজাহান খান, আব্দুর রহমান ও কামরুল ইসলাম, তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। শ্রদ্ধা নিবেদনের পর প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মৃতিসৌধের পরিদর্শন বইয়ে নিজেদের অনুভূতি প্রকাশ করেন। এরপর স্পিকার, প্রধান বিচারপতি, কূটনীতিক, রাজনীতিবিদ, শিল্পী-বুদ্ধিজীবী, মুক্তিযোদ্ধা, পেশাজীবী, শ্রমিক আর শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত শ্রদ্ধা নিবেদনে ফুলে ফুলে ভরে উঠে স্মৃতিসৌধের বেদি।

সকাল ৮টার দিকে দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে জাতীয় স্মৃতিসৌধে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু, জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আব্দুল মঈন খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানুল্লাহ আমানসহ সিনিয়র নেতারা।

শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা ও বিজয় উল্লাসে জাতীয় স্মৃতিসৌধ চত্বর মুখর ছিল বিভিন্ন বয়সি মানুষের পদচারণায়। জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানাতে আসা জনতার এই ঢল অব্যাহত থাকে বেলা ১টা পর্যন্ত।
একে একে বেদিতে শ্রদ্ধা জানান শহীদ পরিবারের সন্তান ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধারা, গণফোরাম, যুক্তফ্রন্ট, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানায়। এ ছাড়া আওয়ামী যুবলীগ, গণঅধিকার পরিষদ, গণসংহতি, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ, যুব মহিলা লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, তাঁতী লীগ, জাতীয় পার্টি (জেপি), ছাত্র ইউনিয়ন, যুব ইউনিয়ন, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা একাডেমি, শিল্পকলা একাডেমি, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধÑ ’৭১, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি), বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদসহ বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন হলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের বলেন, দেশের বিরুদ্ধে দেশীয় ও বিদেশের বিভিন্ন অপশক্তি অপতৎপরতা লিপ্ত রয়েছে। ১৯৭২-৭৫ এ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নানা দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অপশক্তির তৎপরতা ছিল। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধূলিস্যাৎ করতে নানা ধরনের অপশক্তির উত্থান ছিল। নানা ধরনের ষড়যন্ত্র ছিল, অপপ্রয়াস ছিল।
এদিকে বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধানমন্ডিন্থ ৩২ নম্বরের বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে রক্ষিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর দলীয় নেতাদের নিয়ে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তিনি জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা জানান। দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা এ সময় বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ ছাড়াও গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কর্নেল (অব.) ফারুক খানের নেতৃত্বে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে দলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এদিকে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সকালে রাজারবাগ স্মৃতিসৌধে মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বীর পুলিশ সদস্যদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ।

বিজয় দিবস উপলক্ষে সকল সরকারি-আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ভবন ও স্থাপনায় আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাজধানী ঢাকা ও দেশের বিভিন্ন শহরের প্রধান সড়ক ও সড়ক দ্বীপগুলো জাতীয় পতাকা ও রঙ-বেরঙের পতাকায় সাজানো হয়।
শহীদদের আত্মার শান্তি, জাতির শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করে মসজিদ, মন্দির, গির্জা, প্যাগোডাসহ সব ধর্মের উপাসনালয়ে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। হাসপাতাল, জেলখানা, বৃদ্ধাশ্রম, এতিমখানা, শিশু পরিবার ও ভবঘুরে প্রতিষ্ঠানগুলোতে উন্নতমানের খাবার সরবরাহ করা হয়।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পবিত্র কোরআনখানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন : বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধে আলেমদের অবদান থাকলেও প্রকৃত ইতিহাস আড়াল করে ওলামায়ে কেরামের নাম ঢালাওভাবে স্বাধীনতা বিরোধীদের তালিকাজুড়ে দেয়া হচ্ছে। মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী, হজরত হাফেজ্জী হুজুর (রহ.) ও মাওলানা আব্দুর রশিদ তর্কবাগীসসহ অসংখ্য ওলামায়ে কেরামের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ অবদান ছিল ’৭১-এর মুক্তিযুদ্ধে। এসব মহান বুযুর্গদের দোয়া ও চোখের পানি ছিল স্বাধীনতা লাভের অনন্য হাতিয়ার।

গতকাল শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর জামিয়া নুরিয়া ইসলামিয়া কামরাঙ্গীরচর মাদরাসায় বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস : বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, স্বাধীনতার ৫২ বছরে যারাই দেশ পরিচালনা করেছে তাদের শাসনামলে জনগণ স্বাধীনতার সুফল ভোগ করতে পারেনি। তিনি আরও বলেন, একটি গোষ্ঠী স্বাধীনতার যুদ্ধকে ইসলামের বিপক্ষে দাঁড় করানোর ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। তাদের ষড়যন্ত্রের মোকাবিলায় আমাদের সজাগ ও সচেতন থাকতে হবে। গতকাল বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ দারুল খিলাফাহ মিলনয়তনে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ইকামাতে দ্বীন মডেল কামিল (এম.এ) মাদরাসা : ফরিদপুরের ভাংগাস্থ ইকামাতেদ্বীন মডেল কামিল (এম.এ) মাদরাসায় বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রিন্সিপাল মো. আবু ইউছুফ মৃধার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গভর্নিং বডির সভাপতি মো আসাদুজ্জামান।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় প্রচার ও দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম বলেছেন, স্বাধীনতার দীর্ঘ ৫২ বছর পরও দেশের মানুষ ভোট ও ভাতের অধিকারের জন্য আন্দোলন করছে। শুক্রবার সকালে মুরাদনগর উপজেলা গেট থেকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মুরাদনগর উপজেলা শাখার উদ্যোগে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পতাকা র‌্যালী পূর্ব জমায়েতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, বর্ণাঢ্য আয়োজনে চট্টগ্রামে দিবসটি পালন করা হয়েছে। তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের সূচনা হয়। এরপর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে চট্টগ্রামের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। গতকাল সকালে নগরীর মিউনিসিপ্যাল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অস্থায়ী শহীদ মিনারে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে কর্মসূচি পালিত হয়। চট্টগ্রাম বন্দর, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, সিটি কর্পোরেশন, চট্টগ্রাম ওয়াসা নানা কর্মসূচি পালন করে। মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা এম রেজাউল করিম চৌধুরী ও কাউন্সিলররা শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর জেলা ও বিভাগীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা এবং রাজনৈতিক দলের নেতারা শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

খুলনা ব্যুরো জানায়, খুলনায় যথাযোগ্য দিবসটি উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে গল্লামারী শহিদ স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। গল্লামারী শহীদ স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মহানগর ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, বিভাগীয় কমিশনার মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ কমিশনার মো. মাসুদুর রহমান ভূঞা।
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, রাজশাহীতে দিবসটি উপলক্ষে শহীদ মিনারগুলোতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্য দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় আওয়ামী লীগ, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন, রুয়েট, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীরা। সকাল ১১টায় নগর ভবনে বঙ্গন্ধুর প্রতিকৃতিতে মেয়র এ. এইচ. এম খায়রুজ্জামান লিটনের পক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন কাউন্সিলরবৃন্দগণ।
স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে জানান, দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্যে কুমিল্লায় পালিত হয়েছে দিবসটি। ভোরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তোপ ধ্বনির মধ্যে দিয়ে দিবসের সূচনা হয়। টাউন হল শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানান কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার।

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গতকাল সকালে সাতক্ষীরা খুলনা রোড মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন।
সিরাজগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলায় দিবসটি উপলক্ষে প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। পুলিশ সুপার মো. আরিফুর রহমান মন্ডল বিপিএম (বার), পিপিএম (বার), জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. কেএম হোসেন আলী হাসানের নেতৃত্বে পুুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

গোপালগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলার টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। সকালে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান এমপির নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলায় যথাযোগ্য মর্যাদায় দিনটি পালিত হয়েছে। ফারুকী পার্ক স্মৃতি সৌধ চত্বরে ত্বপোধ্বনীর মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হয়। দিনের প্রথম প্রহরেই পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।

চুয়াডাঙ্গা জেলা সংবাদদাতা জানান, চুয়াডাঙ্গায় জেলা প্রশাসন, পুলিশ, পরিষদ, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা, উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন সংগঠন নানান আয়োজনের মাধ্যমে দিনটি পালন করেন। পুস্পস্তবক অর্পণে উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।
টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলায় দিবসটি উপলক্ষে শহর জুড়ে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসন। গতকাল সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে শুরু হয় দিনের কর্মসূচি।

জয়পুরহাট জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলায় গতকাল সূর্যোদয়ের সাথে সাথে তোপ ধ্বনি ও স্মৃতিসৌধে শহীদরে প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দিবসের সূচনা হয়। এ উপলক্ষে কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সংসদ সদস্য অ্যাড. সামছুল আলম দুদু।
নাটোর জেলা সংবাদদাতা জানান, আনন্দ উৎসব ও বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে নাটোরে দিবসটি উদযাপিত হয়ছে। এ সময় উপস্থিত অনুষ্ঠানে ছিলেন নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল।
ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলায় নানা আয়োজনের দিনটি পালন করা হয়। সূর্যদয়ের সাথে সাথে অপরাজেয় ৭১ প্রাঙ্গণে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়।
বিরামপুর (দিনাজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, বিরামপুর থানা ও পৌর বিএনপি এবং উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে দিবসরে কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, উপজেলায় প্রশাসনের উদ্যোগে পতাকা উত্তোলন, ডিসপ্লে, কুচকাওয়াচ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, জেলার গোয়ালন্দে নানা আয়োজনে জাতির গৌরবময় দিনটি পালন করা হয়। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহীদ মিনারে পুস্প মাল্যদান শেষে পতাকা উত্তোলন ও কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, রাজবাড়ী-১ আসনের আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী এমপি।

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) উপজেলা জানান, শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসায় মহিপুর ও কুয়াকাটয় উদযাপন করা দিনটি। এ উপলক্ষে মহিপুর প্রেসক্লাব, কুয়াকাটা পৌর আ.লীগসহ সহযোগী সংগঠন ও মহিপুর থানা পুলিশ আনন্দর‌্যালী বের করেন।
কালীগঞ্জ (গাজীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, কালীগঞ্জে দিনের শুরুতেই তোপধ্বনির পর উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে স্বাধীনতা স্তম্ভ ও বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে সংসদ সদস্য, প্রশাসন, পরিষদ, থানার পক্ষ থেকে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে কমলগঞ্জে উদযাপন করা হয় দিনটি। উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, আ.লীগ সহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, ক্রীড়া সংগঠন পুষ্পার্পণ করেন।
কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, কটিয়াদীতে শহীদদের স্মরণ করে শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অর্পণ ও তাদের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। সরকারি হাইস্কুল মাঠে, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, পুলিশ, আনসার, ফায়ারসার্ভিস দলের সদস্যরা কুচকাওয়াজ প্রদর্শন করেন।
তিতাস (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, তিতাসে প্রশাসনের উদ্যোগে দিবসটি উদযাপন করা হয় দিনটি। পরিষদের শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কুমিল্লা-২ আসনের সংসদ সেলিমা আহমাদ মেরি।

ধনবাড়ী (টাঙ্গাইল) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ধনবাড়ীতে দিবসটি উপলক্ষে পতাকা উত্তোলন, মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, সংবর্ধনা, কুচকাওয়াজ, ডিসপ্লে, সভা, দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।
আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, উপজেলায় সরকারি, বেসরকারী, বিভিন্ন রানৈতিক ও সামাজিক সংগঠন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্মৃতিসৌধে ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য ও শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্যদিয়ে দিসবটি উদযাপন করেন।

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, উপজেলায় বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার বিভিন্ন ইউনিয়নে দিনভর দিবসটি পালন করা হয়। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে একে একে পুস্পতর্বক অর্পণ করেন, উপজেলা প্রশাসন, বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক দল।
বড়াইগ্রাম (নাটোর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, প্রথমবারের মত স্মৃতিসৌধ পেল বড়াইগ্রাম পৌরবাসী। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর পৌর পরিষদ, থানা, পৌর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন, উপজেলা প্রেসক্লাব, সাব রেজিষ্ট্রি অফিস, বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
দৌলতখান (ভোলা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, দৌলতখানে ফ্রী মেডিক্যাল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকার স্কয়ার হসপিটালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ও শিশু বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডা. আফতাব ইউসুপ রাজ এই ক্যাম্পের আয়োজন করেন।

গাবতলী (বগুড়া) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, দিবসটি উপলক্ষে গাবতলী বাগবাড়ী শহীদ জিয়া ডিগ্রী কলেজের আয়োজনে আলোচনা সভা ও ভলি-ব্যাডমিন্টন খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।
নান্দাইল (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ইসলামী আন্দোলন নান্দাইল উপজেলা শাখার উদ্যোগে দিবসটি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা সভাপতি মুফতি আবুল হাসিম সাহেবের নেতৃত্বে র‌্যালী বের করা হয়।

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ফুলবাড়ীতে দিবসটিকে ঘিরে বিনামূল্যে ওষুধ সামগ্রী, চিকিৎসা সেবা এবং শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন ফুলবাড়ী ব্যাটালিয়ন (২৯বিজিবি)।
সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সুন্দরগঞ্জে দিবসটি উপলক্ষে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল সকালে সুন্দরগঞ্জ আব্দুল মজিদ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রাবি সংবাদদাতা জানান, দিবসটি উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রশাসন। সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ সিনেট ভবনের পাশে আয়োজিত এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ভিসি অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার।
হিলি সংবাদদাতা জানান, নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দিনাজপুরের হিলিতে পালিত হয়েছে দিবসটি। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা চত্বরে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে ৩১ বার তোপধ্বনীর পর স্বাধীনতাযুদ্ধে শহীদদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভে সম্মুখে সমরে পুস্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিবসের শুভ সূচনা হয়।

জাবি সংবাদদাতা জানান, দিনটি উপলক্ষ্যে সাভারে স্মৃতিসৌধে শহীদদের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদ। গতকাল সকালে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি তানজিল হাসান, তবিবুর রহমান ও রিয়াদ ইকবালের নেতৃত্বে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments