Friday, April 12, 2024
spot_img
Homeজাতীয়জনগণ ব্যর্থ সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না : বিএনপি

জনগণ ব্যর্থ সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না : বিএনপি

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে উপজেলা পর্যায়ে বিক্ষোভ

দেশব্যাপী লোডশেডিং ও জ্বালানী তেল, সার, নিত্যপণ্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে সারাদেশের বিভিন্ন উপজেলায় বিক্ষোভ করেছে বিএনপি। গতকাল সোমবার কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে পৌর শহরের কোর্ট বিল্ডিং সংলগ্ন শহীদ স্মৃতিসৌধ থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে সমাবেশ করে। এতে উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন। মিছিলে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড থেকে যোগ দেয়া নেতাকর্মীরা ‘জ্বালানী তেলের দাম বাড়লো কেনো, ব্যর্থ সরকার জবাব চাই ‘, ‘ সারের দাম বাড়লো কেন, সরকার জবাব দাও’, ‘চাল ডাল তেলের দাম কমাতে হবে, কমিয়ে দাও’,’জনতার দাবী এক, দুর্ভোগ সৃস্টিকারী সরকারের পদত্যাগ ‘,’এই মুহুর্তে দরকার,তত্বাবধায়ক সরকার’, ‘ভোলায় গুলি কেন,লাশ কেন,জবাব চাই জবাব চাই, ‘ প্রভৃতি শ্লোগানে শ্লোগানে মুখরিত করে রাখে পুরো মিছিল। মিছিলে তারা উক্ত দাবি সম্বলিত ফেস্টুনও বহন করে।
সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, আওয়ামী সরকারের ব্যর্থতা ও ভুল সিদ্ধান্তে জনজীবনে নাভিশ্বাস উঠেছে। মানুষের আয় সঙ্কুচিত হয়ে গেছে। প্রতিটি পণ্যের দাম আকাশচুম্বী। নজিরবিহীন লোডশেডিংয়ে মানুষ বিপর্যস্ত, কল-কারখানায় উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। খরায় ও পানি দিতে না পারায় ধান ক্ষেত ফেটে চৌচিড়। বিদ্যুৎ সঙ্কট,সার ও জ্বালানী তেলের মূল্যবৃদ্ধিতে কৃষকের মাথায় হাত। অন্যদিকে গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার সুদুর পরাহত। গুম,খুনসহ মানবাধিকারের লঙ্ঘন করে পুরো রাষ্ট্রকেই যেনো ‘আয়না ঘরে’ বন্দী রাখা হয়েছে। সর্বগ্রাসী সঙ্কটে দেশ বিপর্যস্ত। সরকারের মসনদ কেঁপে উঠছে। জনগণ দেশ পরিচালনায় ব্যর্থ সরকারকে আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না। জোর করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে তারা তালগোল পাকিয়ে ক্রমাগত মিত্যাচার করছে,সত্য আড়াল করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।
তিনি বলেন, এই অবস্থা থেকে নিজেদের রক্ষা ও ক্ষমতায় টিকে থাকতে প্রকাশ্যে প্রতিবেশী রাষ্ট্রকে হস্তক্ষেপের অনুরোধ করে আওয়ামী সরকার রাষ্ট্রদ্রোহী ও রাষ্ট্রঘাতি কাজ করেছে। সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে গোমর ফাঁস হয়ে যাওয়ায় এখন তাকে আস্বীকার করছে আওয়ামী মন্ত্রী-নেতারা। অথচ, আওয়ামী লীগ তাকে মনোনয়ন দিয়ে অনুগত প্রশাসনের মাধ্যমে নির্বচনের আগের রাতে ভোট ডাকাতি করিয়ে এমপি ঘোষণা দিয়েছে, মন্ত্রী বানিয়েছে। শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখতে ভারতের হস্তক্ষেপ চাওয়ার কথা অকপটে স্বীকার করায় তাকে ব্যবহৃত টিস্যু পেপারের মত ছুড়ে ফেলে দিয়ে নিজেদের রাষ্ট্রদ্রোহীতা আড়াল করতে চাইছে ক্ষমতাসীনরা। সত্য কথা বলে বেকায়দায় পড়ে নিজে বাঁচার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী এখন নিজের বক্তব্যকেই অস্বীকার করছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর জ্বালানো আগুনে ঘি ঢেলে ভূমি মন্ত্রী এবার বললেন তারা পুলিশের ওপর নির্ভরশীল। আসলে আওয়ামী লীগ জনগণ নয়, সব সময় অপরের ওপর নির্ভরশীল এবং তাঁবেদার। তিনি বলেন, জন সমর্থন হারিয়ে ফ্যাসিবাদী কর্তৃত্ববাদী দুঃশাসন কায়েম করে আওয়ামী লীগ যে পচে গলে নষ্ট হয়ে গেছে, তা বার বার প্রমানিত হচ্ছে। তারা পরগাছায় পরিণত হয়েছে। সরকারে এখন চলিতেছে সার্কাস।
বিক্ষোভে ময়মনসিংহ উত্তর জেলা বিএনপি, হালুয়াঘাট উপজেলা বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদল, শ্রমিক দলসহ অন্যান্য অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে থানা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি। গতকাল নগরীর ১৬টি থানা এলাকায় পৃথক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল হয়। এছাড়া উপজেলা পর্যায়েও অনুরূপ কর্মসূচি পালন করেছে দলটি। নগরীর লালদীঘি মোড়ে কোতোয়ালী থানা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন, সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্করসহ মহানগর ও থানা বিএনপির নেতারা। সমাবেশে শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
যশোর ব্যুরো জানায়, বিএনপির খুলনা বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেন, সীমাহীন দ্রব্য মূল্যের উর্দ্ধগতির ফলে সাধারণ জনগণ আজ কষ্টে জর্জারিত। তারা মুক্তির জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। জনগণের দল বিএনপি তাদের পাশে থেকে সেই কষ্ট লাঘবের জন্য এর প্রতিবাদ করে আসছে। জনগণের যৌক্তিক দাবিকে আ. লীগ নস্যাৎ করতে দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে। কোনো সভ্য দেশের চিত্র এবং কোন গণতান্ত্রিক সরকারের চরিত্র এমন হতে পারে না।
নারায়ণগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলায় বিএনপি পৃথকভাবে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে। গতকাল দুপুরে উপজেলার কাঁচপুর শিল্পাঞ্চলের ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক মো. রেজাউল করিম ও কেন্দ্রীয় তাঁতী দলের সদস্য সচিব হাজী মজিবুর রহমান। পরে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ সভাপতি অধ্যাপক ওয়াহিদ বিন ইমতিয়াজ বকুলের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি কাঁচপুর শিল্পঞ্চলের ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে।
টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা জানান, টাঙ্গাইলে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে জেলা বিএনপির একাংশ নেতাকর্মীরা।
গতকাল দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে জেলা বিএনপির ব্যানারে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এরআগে শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের সামনে সমবেত হতে থাকে। পরে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে জেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ছাইদুল হক ছাদুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব মাহমুদুল হক সানু, জেলা বিএনপির সদস্য আশরাফ পাহেলী প্রমুখ।
গুরুদাসপুর (নাটোর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষাভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বিএনপি। গতকাল দুপুর উপজেলার ধারাবারিষা ইউনিয়নে নয়াবাজারে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নাটোর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব রহিম নেওয়াজ, গুরুদাসপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল আজিজসহ প্রমুখ।
নাচোল (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, নাচোল উপজেলায় বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বিকেল ৫টায় নাচোল রেল স্টেশন বাজারে নাচোল উপজেলা বিএনপির আহবায়ক এম মজিদুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, জেলা বিএনপির আহবায়ক গোলাম জাকারিয়া।
মনোহরদী (নরসিংদী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, নরসিংদীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জেলা বিএনপি। গতকাল বিকেলে চিনিশপুরস্থ দলের অস্থায়ী কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। পরে পুলিশী বাঁধায় বিক্ষোভ মিছিলটি কার্যালয়ের সামনেই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন এর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি নেতা আকবর হোসেন, অ্যাডভোকেট. আব্দুল বাছেদ ভূঁইয়া, ফারুক উদ্দিন ভূঁইয়া প্রমুখ।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments