Saturday, January 28, 2023
spot_img
Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিগেম যখন হাতে আঁকা ছবির মতো

গেম যখন হাতে আঁকা ছবির মতো

ছবির বই বা গ্রাফিক নভেলের আদলে যদি গেম তৈরি করা যায়, তাহলে সেটার গ্রাফিকস কেন মধ্যযুগীয় তৈলচিত্রের মতো হবে না—এমন চিন্তা থেকে অবসিডিয়ান এন্টারটেইনমেন্ট তৈরি করেছে গেম ‘পেনটিমেন্ট’। শব্দটি এসেছে ‘পেনটিমেনটো’ থেকে, যার অর্থ ছবির মধ্যে থাকা সংশোধনের দাগ। মধ্যযুগীয় পেইন্টিংয়ের সঙ্গে নামেরও আছে সংযোগ।

গেমের পটভূমি মধ্যযুগের ব্যাভারিয়া অঞ্চল, যাকে এখন জার্মানি ও অস্ট্রিয়া বলা হয়।

মূল চরিত্র এক চিত্রকর। তার দায়িত্ব চার্চের জন্য বাইবেলের ঘটনাবলির ছবি আঁকা। মাত্রই প্রিন্টিং প্রেস আবিষ্কারের ফলে চার্চের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে লড়তে শুরু করেছে সংবাদমাধ্যমগুলো। অন্যদিকে চার্চের সঙ্গে সাধারণ জনতার চলছে রেষারেষি, যার মূলে রয়েছে চার্চ ও জমিদারদের মাত্রাতিরিক্ত খাজনা দাবি করা। এমন অবস্থায় একদিন এলাকার প্রভাবশালী একজন খুন হয়, দোষী সাব্যস্ত হয় মূল চরিত্রটির বন্ধু। এখন গেমারের দায়িত্ব এই খুনের পেছনে কে রয়েছে, কেনই বা তার বন্ধুকে ফাঁসানো হচ্ছে, সেটা খুঁজে বের করা।

গেমটি মধ্যযুগের পটভূমিতে করা ডিটেক্টিভ কাহিনি। তবে অবসিডিয়ান সেটাকে শার্লক হোমস বা এল এ নোয়ারের মতো নয়, বরং ডিস্কো এলিসিয়াম আর ফলআউট নিউ ভেগাসের মতো করেছে। শুরুতেই গেমার তার চরিত্রের স্কিল ও অন্যান্য ট্রেইট বাছাই করে  নেবে। পুরো গেমের কাহিনি কোন দিকে মোড় নেবে তা নির্ভর করবে সেগুলোর ওপর। স্কিলের ওপর নির্ভর করবে গেমের কথোপকথনও। সবচেয়ে বড় কথা, প্রতিটি চরিত্র গেমারের কার্যকলাপ মনে রাখবে। আর তাই একটা সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর সেটার ভালো-খারাপ দুটি ফলাফল হতে পারে। কিন্তু সেটা মেনে নেওয়া ছাড়া উপায় নেই।

ডিটেক্টিভ কাহিনি হলেও গেমে অতিরিক্ত ধাঁধা সমাধান, মানুষকে জেরা করা আর ক্লু বিশ্লেষণ এখানে নেই। তার বদলে আছে চার্চ ও আমজনতা—দুটি পক্ষের মধ্যে নিজের অবস্থান ঠিক রাখা এবং সময়মতো কাজ শেষ করা। গেমটিতে একাধিক কাজ একই সময় পড়ে, একটিতে অংশ নিলে অন্যটি ছেড়ে দেওয়া ছাড়া উপায় থাকে না। এ ছাড়া এক কাজ নিয়ে বেশি সময় নষ্ট করলে বেলা ফুরিয়ে যাবে দ্রুত, বেশ কিছু মিশন তখন বাতিল হয়ে যাবে। গুছিয়ে কাজ করাটাই গেমটির বড় পরীক্ষা। গ্রাফিকস নিয়ে বলার তেমন কিছু নেই। পেইন্টিংয়ের মতো করে তৈরি গেম, ফলে টু-ডি হাতে আঁকা তৈলচিত্রের মতোই দেখতে। তবে ডিজাইন, গ্রাফিকসের মান এবং মিউজিক—সবটুকুই চমৎকার। কাহিনি, সাইড মিশন এবং বারবার খেলার মতো কাহিনি ও গেমপ্লে ডিজাইন গেমটিকে করেছে অনবদ্য এক মাস্টারপিস। গতানুগতিকের বাইরে যাঁরা চমৎকার কাহিনিভিত্তিক গেম খুঁজছেন, তাঁদের জন্য এটি আদর্শ।

বয়স

শুধু প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য তৈরি গেমটি

খেলতে যা যা লাগবে

গেমটি খেলতে তেমন একটা শক্তিশালী পিসির দরকার নেই। ৪ গিগাবাইট র‌্যাম আর জিটিএক্স ৬৫০টিআই মানের জিপিউ থাকলেই চলবে। লাগবে ১২ গিগাবাইট খালি জায়গা।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments