Thursday, June 20, 2024
spot_img
Homeধর্মখোঁটা দিলে দানের মহিমা ক্ষুণ্ন হয়

খোঁটা দিলে দানের মহিমা ক্ষুণ্ন হয়

পৃথিবীর সব মানুষকে আল্লাহ সমান করে সৃষ্টি করেননি। বরং কাউকে ধনী, কাউকে দরিদ্র করেছেন।

ধনীরা দরিদ্রদের দান করে খোঁটা দিলে তারা অন্তরে কষ্ট পায়। মানুষকে কষ্ট দেওয়ার এটা একটা অন্যতম মাধ্যম।

আর এর ফলে দানের সওয়াব বিনষ্ট হয়ে যায়। আল্লাহ বলেন, ‘হে বিশ্বাসীরা, খোঁটা দিয়ে ও কষ্ট দিয়ে তোমরা তোমাদের দানগুলোকে বিনষ্ট করো না—সেই ব্যক্তির মতো, যে তার ধন-সম্পদ ব্যয় করে লোক দেখানোর জন্য এবং সে আল্লাহ ও আখিরাতে বিশ্বাস করে না। ওই ব্যক্তির দৃষ্টান্ত একটি মসৃণ প্রস্তরখণ্ডের মতো, যার ওপর কিছু মাটি জমে ছিল। অতঃপর সেখানে প্রবল বৃষ্টিপাত হলো ও তাকে পরিষ্কার করে রেখে গেল। এভাবে তারা যা কিছু উপার্জন করে, সেখান থেকে কোনো সুফল তারা পায় না। বস্তুত আল্লাহ অবিশ্বাসী সম্প্রদায়কে সুপথ দেখান না। ’ (সুরা বাকারা, আয়াত : ২৬৪)

খোঁটা দানকারীর পরকালীন পরিণতি সম্পর্কে রাসুল (সা.) বলেন, ‘তিন ব্যক্তির সঙ্গে কিয়ামত দিবসে আল্লাহ কথা বলবেন না, তাদের প্রতি তাকাবেন না, তাদের পবিত্র করবেন না, আর তাদের জন্য আছে কঠোর শাস্তি। বর্ণনাকারী বলেন, রাসুল (সা.) এটা তিনবার উল্লেখ্য করেন। আবু জার (রা.) বলেন, তারা ক্ষতিগ্রস্ত ও ধ্বংস হলো। জিজ্ঞেস করা হলো, হে আল্লাহর রাসুল, এরা কারা? তিনি বলেন, এরা হচ্ছে যে ব্যক্তি টাখনুর নিচে কাপড় ঝুলিয়ে পরে, যে ব্যক্তি দান করে খোঁটা দেয় এবং যে ব্যক্তি মিথ্যা শপথের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করে। ’ (মুসলিম, হাদিস : ১০৬)

সুতরাং দান করে খোঁটা দেওয়া যাবে না। বরং নিঃস্বার্থভাবে মানুষকে দান করতে হবে। সাধ্যমতো মানুষের উপকার করার চেষ্টা করতে হবে। রাসুল (সা.) বলেন, ‘সে-ই শ্রেষ্ঠ মানুষ, যে ব্যক্তি মানুষের সর্বাধিক উপকার করে। ’ (সহিহুল জামে, হাদিস : ৩২৮৯)

দান করে খোঁটা না দেওয়ার শুভ পরিণাম সম্পর্কে মহান আল্লাহ বলেন, ‘যারা আল্লাহর পথে নিজেদের ধন-সম্পদ ব্যয় করে, অতঃপর ব্যয় করার পর খোঁটা দেয় না বা কষ্ট দেয় না, তাদের জন্য তাদের রবের কাছে আছে পুরস্কার। তাদের কোনো ভয় নেই এবং তারা চিন্তান্বিত হবে না। ’ (সুরা বাকারা, হাদিস : ২৬২)

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments