Sunday, June 23, 2024
spot_img
Homeজাতীয়কুসিক নির্বাচন: ভোটের সমীকরণ পালটে যাচ্ছে

কুসিক নির্বাচন: ভোটের সমীকরণ পালটে যাচ্ছে

বিএনপি-জামায়াতের ইউটার্ন

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনের দিন যতই এগিয়ে আসছে ভোটের সমীকরণ ততই পালটে যাচ্ছে। বিএনপির পদ-পদবি ব্যবহার করে পরপর দুবার মেয়র নির্বাচিত মনিরুল হক সাক্কু গণসংযোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বন্দনা করছেন।

এবার হ্যাটট্রিক জয়ের লক্ষ্যে সাক্কু এমন আচরণ করছেন বলে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের অভিযোগ। অপরদিকে, সাক্কুর এমন কৌশল মেনে নিতে পারছেন না বিএনপি ও জামায়াতসহ সরকারবিরোধী ভোটাররা।

মঙ্গলবার প্রচার-প্রচারণায় সাক্কু কিছুটা শিথিল হলেও আওয়ামী লীগ প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার জোরেশোরে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

কুমিল্লা মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক শওকত আলী বকুল জানান, সাক্কু কোনোভাবেই বিএনপির লোক দাবি করতে পারেন না। সরকার তাকে দিয়েই কুমিল্লার বিএনপিকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছে। এবার সাক্কুর অপকৌশল বুঝে নেতাকর্মীরা সরে দাঁড়িয়েছেন। তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াতের কর্মী-সমর্থকরা এখন কায়সারের পক্ষে কাজ করছেন। তবে সাক্কুর অভিযোগ-নৌকার প্রার্থীসহ বিএনপির একাংশ তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।

ঘুস কেলেঙ্কারির কারণে নগরবাসীর প্রতিরোধের মুখে সাক্কু : নগরীর চর্থা চৌমুহনীতে পথসভায় নৌকার প্রার্থী রিফাত বলেন, যেখানেই যাই সেখানেই সাবেক মেয়র সাক্কুর ঘুস কেলেঙ্কারি এবং অনিয়ম-দুর্নীতির তথ্য পাই। ভুক্তভোগী নগরবাসী শত শত অভিযোগ করছেন। এ কারণে সাক্কু যেখানেই যাচ্ছেন সেখানেই সাধারণ মানুষের প্রতিরোধের মুখে পড়ছেন। তাই বিভিন্ন এলাকা তিনি (সাক্কু) এড়িয়ে চলছেন। কুমিল্লার মানুষ জেগে উঠেছেন, চিহ্নিত এ দুর্নীতিবাজকে তারা এবার প্রত্যাখ্যান করবেন।

তিনি বলেন, জনরোষ থেকে বাঁচতে সাক্কু কথায় কথায় প্রধানমন্ত্রীর নাম বিক্রি করছেন। এটা তার একটা অপকৌশল। অতীতেও তিনি (সাক্কু) এমন অপকৌশল করে সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিয়েছেন। কিন্তু এবার তাকে সমুচিত জবাব দেবে নগরবাসী। এ সময় সাক্কু ও তার স্ত্রী টিকলিকে রিফাত সংযত আচরণের আহ্বান জানান।

মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় আওয়ামী লীগপ্রার্থী রিফাত নির্বাচনে নেতাকর্মীদের জোরালো ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান। বিকালে তিনি চর্থা চৌমুহনী, মুরাদপুর চৌমুহনী এবং হাউজিং এস্টেট এলাকায় গণসংযোগ করেন। এ সময় বেশ কয়েকটি উঠান-বৈঠকসহ পথসভায় তিনি বক্তব্য দেন।

আমি কোনো দলের নই, আমি জনতার মেয়র : নগরীর জজকোর্ট এলাকায় গণসংযোগকালে টেবিল ঘড়ি প্রতীকের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী সাক্কু বলেন, আমি কোনো দলের প্রার্থী নই। আমি জনতার প্রার্থী, জনগণকে নিয়ে আছি। কারও ভরসায় নির্বাচন করি না। ১৫ জুন বোঝা যাবে জনগণ কাকে বেছে নেন। সাক্কু আরও বলেন, আমার সঙ্গে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা থাকুক আর নাই থাকুক জনগণ আমার সঙ্গে আছে। আমাকে বিশ্বাস করে প্রধানমন্ত্রী কুমিল্লা সিটিকে অনেক টাকা দিয়েছেন। এজন্য আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। এবার জয়ী হলে এসব টাকা ব্যবহার করে উন্নয়ন ত্বরান্বিত করা হবে।

সাক্কু বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী : নগরীর ২২নং ওয়ার্ডের শ্রীবল্লভপুরে পথসভায় ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কায়সার বলেন, মনিরুল হক সাক্কু বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী। সাক্কুর মুখে প্রধানমন্ত্রীর বন্দনাই প্রমাণ করে তিনি (সাক্কু) প্রধানমন্ত্রীর আশীর্বাদপুষ্ট প্রার্থী। বিএনপির নাম বিক্রি করে দুবার মেয়র নির্বাচিত হয়ে সাক্কু বিএনপির সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। দলের নেতাকর্মীদের নির্যাতন-হয়রানি করেছেন, তাদের নামে অসংখ্য মামলা দিয়েছেন। এবার সাক্কুর কলঙ্কজনক বিদায় হবে।

কায়সার বলেন, ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী এক নেতা রিফাত ও সাক্কুকে নিয়ে ‘গেম’ খেলছেন। এ দুই প্রার্থীকেই নগরবাসী প্রত্যাখ্যান করবে। এছাড়া সকালে নগরীর ২২নং ওয়ার্ডের বড় দুর্গাপুর, শ্রীমন্তপুর, উত্তর রামপুর ও উত্তর হিরাপুর, দুপুরে দক্ষিণ গোপীনাথপুর, মোস্তফাপুর, কচুয়া, বিকালে দৈয়ারা, লক্ষ্মীপুর ও দুর্গাপুর এবং সন্ধ্যায় নগরীর ৭নং ওয়ার্ডের অশোকতলা, গোবিন্দপুর এলাকায় কায়সার গণসংযোগ ও পথসভা করেন। রাতে ১৯নং ওয়ার্ডের রাজাপাড়া এলাকায় তিনি চারটি উঠান-বৈঠক করেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments