Monday, April 15, 2024
spot_img
Homeকমিউনিটি সংবাদ USAকাতারে সেই মার্কিন সাংবাদিককে হত্যার অভিযোগ

কাতারে সেই মার্কিন সাংবাদিককে হত্যার অভিযোগ

কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডসের ম্যাচ চলাকালে খ্যাতিমান মার্কিন সাংবাদিক গ্রান্ট ওয়ালের মৃত্যু নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন তার ভাই এরিক।ভাইকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি। 

লুসাইল স্টেডিয়ামে শুক্রবার আর্জেন্টিনা-নেদারল্যান্ডসের কোয়ার্টার-ফাইনাল ম্যাচের প্রতিবেদন নিয়ে ব্যস্ততার মধ্যে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন ওয়াল। পরে ‘তীব্র যন্ত্রণায়’ ভুগে মারা যান তিনি। 
একজন প্রত্যক্ষদর্শী সিএনএনকে জানান, স্টেডিয়ামের প্রেস বক্স এলাকায় ৪৮ বছর বয়সী এই সাংবাদিক পড়ে গিয়েছিলেন। 

তাকে সিপিআর (কার্ডিওপালমোনারি রিসাসিটেইশন) দেওয়া হয়েছিল, কিন্তু জ্ঞান ফেরেনি।পরে কাছাকাছি একটি হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত্ ঘোষণা করেন।

ওয়ালের সমকামী ভাই এরিক শনিবার ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেখানে কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, রেইনবো টিশার্ট পরার জন্য তার ভাইকে মৃত্যুর হুমকি দেওয়া হয়েছিল। তার ‘সুস্থ’ ভাইকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করার পাশাপাশি এর বিচার চান তিনি।

এরিক বলেন, আমার কারণেই সে বিশ্বকাপে রেইনবো টিশার্ট পরেছিল। আমি বিশ্বাস করি না, আমার ভাই মারা গেছে। আমি মনে করি, তাকে হত্যা করা হয়েছে।

নভেম্বরের শেষ দিকে ওয়াল জানিয়েছিলেন, এলজিবিটিকিউ সম্প্রদায়ের প্রতি সমর্থন প্রকাশ করে তিনি একটি রেইনবো টিশার্ট পরে কাতারের এক স্টেডিয়ামে প্রবেশের চেষ্টা করেছিলেন, তখন ‘সমলৈঙ্গিক সম্পর্ক’ নিষিদ্ধ থাকা দেশটির নিরাপত্তা কর্মীরা তাকে কিছুক্ষণের জন্য আটকে রেখেছিল।

ওই সময়ে তিনি জানান, আল রাইয়ানের আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়ামে যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম ম্যাচের দিন ঘটনাটি ঘটে, বিশ্বকাপের নিরাপত্তা কর্মীরা তাকে ঢুকতে বাধা দেয় ও টিশার্টটি খুলে ফেলতে বলে, কিন্তু তিনি শার্ট না খুলে সেখানে বসে থাকলে পরে এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এসে তাকে ভেতরে নিয়ে যান।    

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments