Wednesday, April 17, 2024
spot_img
Homeবিজ্ঞান ও প্রযুক্তিওয়েবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস

ওয়েবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস

অনলাইনের বিশাল জগতে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতার ইতিহাস নিয়ে হাজারো কাজ চলছে। নিত্যনতুন ওয়েবসাইট যেমন তৈরি হচ্ছে, তেমনি ব্লগেও চলছে ইতিহাস নির্মাণ। গবেষকরাও নতুন করে গড়ে তুলছেন নানা তথ্যভাণ্ডার। এ ছাড়া অনেক ফেসবুক পেজে মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের জয়গান তুলে ধরা হয়েছে নানা পর্যায় থেকে।

নানা তথ্য ও ছবি শেয়ার করা হয় এগুলো থেকে।

মুক্তিযুদ্ধের ডিজিটাল পাবলিক লাইব্রেরি

মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ (https://www. liberationwarbangladesh.org/) মূলত মুক্তিযুদ্ধের বই, দলিল, ভিডিও ফুটেজ, চলচ্চিত্র, অডিও ও ছবির একটি ডিজিটাল লাইব্রেরি। রয়েছে মুক্তিযুদ্ধ ও পরবর্তী সময়ের উল্লেখযোগ্য ঘটনার পেপার কাটিং, মুক্তিযোদ্ধাদের গেজেট ও অসংখ্য প্রবন্ধ-নিবন্ধ। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক গবেষণা ও প্রকাশনাসংক্রান্ত বিভাগে রয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের ভিডিও-সাক্ষাৎকার, বাংলাদেশের স্বাধিকার সংগ্রামের ইতিহাস, একাত্তরের গণহত্যা, নারী নির্যাতনসহ নানা তথ্য। বর্ণানুক্রমিক, সময়ক্রমিক এবং লেখক তালিকা—এই তিন পদ্ধতিতে আর্কাইভে ব্রাউজ করা যাবে। এটি সবার জন্য উন্মুক্ত। এরই মধ্যে ১০ লাখ পাঠক নিবন্ধন করেছে সাইটটিতে।

এই সাইটে তথ্যগুলো ওয়েবসাইটে রয়েছে বিভাগ আকারে। এগুলো একই সঙ্গে পড়া এবং ডাউনলোডও করা যাবে। বই-দলিলপত্র-সংবাদপত্র হোস্ট করা হয়েছে মিডিয়াফায়ার ও গুগল ড্রাইভে। গুগল ড্রাইভে ফাইলগুলো ‘রিড অনলি’ করা, তাই ডাউনলোড করা যাবে না। ড্রাইভ থেকেই ফাইলগুলো পড়তে হবে। ভিডিও ও চলচ্চিত্রগুলো হোস্ট করা হয়েছে ইউটিউবে। এখান থেকে ভিডিও দেখা ও ডাউনলোড করা যাবে। অডিও ফাইলগুলো ওয়ানড্রাইভ এবং ছবি ফ্লিকারে হোস্ট করা হয়েছে। এদের অ্যানড্রয়েড অ্যাপও আছে— https://urlzs.com/LgJMP

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস থেকে শুরু করে খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা রয়েছে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটটিতে। ঠিকানা : www.molwa.gov.bd

জেনোসাইড বাংলাদেশ.ডটঅর্গ

জেনোসাইড বাংলাদেশ.ডটঅর্গ (http://www.genocidebangladesh.org/) ওয়েবসাইটিতে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে অনেক তথ্য। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালের ছবি ও ভিডিও পাওয়া যাবে এতে। রয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্পর্কে তথ্য, বই এবং জার্নাল। সাইটির টাইমলাইন বিভাগে রয়েছে ১৯৪৭ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনার ছবি এবং বিররণ। ‘এদের চিনুন’ নামক বিভাগে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তি ও পাকিস্তানের দোসর রাজাকারদের বিভিন্ন দম্ভোক্তি ও ছবি।

উইকিপিডিয়ায় মুক্তিযুদ্ধ

অনলাইনে সবচেয়ে বড় বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়া। মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কেও আছে অনেক নিবন্ধ। এখানে মূল নিবন্ধ এবং মুক্তিযুদ্ধের ঘটনাপ্রবাহ হিসেবে নিবন্ধগুলো সাজানো হয়েছে।

মূল নিবন্ধ : en.wikipedia.org/wiki/Bangladesh_Liberation_War


ফেসবুক পেজগুলো

১৯৭১ : জেনোসাইড-টর্চার আর্কাইভ অ্যান্ড মিউজিয়াম

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালের সবচেয়ে করুণ ও নৃশংসতম পর্বটি হচ্ছে হত্যা, গণহত্যা, নির্যাতন। মুক্তিযুদ্ধের এই বিশেষ দিকটি নিয়ে খুলনায় ২০১৪ সালে গড়ে উঠেছে ‘১৯৭১ : গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর’। মুক্তিযুদ্ধকালের নানা স্মৃতিচিহ্ন নিয়ে জাদুঘর যেমন সাজানো হচ্ছে, তেমনি গণহত্যা নিয়ে চলছে ব্যাপক গবেষণা, পঠন-পাঠন ও প্রকাশনা। আছে গ্রন্থাগারও। এই প্রতিষ্ঠানটি নিজেদের কর্মকাণ্ড সবার কাছে তুলে ধরতে পরিচালনা করে একটি ফেসবুক পেজ—1971 : Genocide-Torture Archive & Museum (https://www.facebook.com/genocidemuseumbd/)।

এতে প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে আয়োজিত নানা অনুষ্ঠানের খবরাখবর পরিবেশিত হয়। অনুষ্ঠানের আগের পর্বের খবর যেমন থাকে, তেমনি অনুষ্ঠানের খবরও থাকে। এতে নিয়মিত মুক্তিযুদ্ধকালের স্মরণীয় নানা ছবিও প্রকাশ করা হয়।

গেরিলা ৭১

এই ফেসবুক পেজের (https://www.facebook.com/Guerrilla1971) অনুসারীর সংখ্যা এক লাখ ৪২ হাজার। ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি চালু হওয়া এই পেজটি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাসী সবার জন্য উন্মুক্ত। এখানে নিয়মিত মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে পোস্ট করা হয়ে থাকে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments