Tuesday, May 17, 2022
spot_img
Homeলাইফস্টাইলওমিক্রনকে বাগে আনতে পারে ফাইজারের পিল

ওমিক্রনকে বাগে আনতে পারে ফাইজারের পিল

ফাইজার জানাচ্ছে, COVID-19 এর চিকিত্সার জন্য তাদের পরীক্ষামূলক পিলটি ওমিক্রন ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধে কার্যকর বলে প্রমাণিত হতে পারে। সংস্থাটি আরও জানিয়েছে যে তারা ২,২৫০ জনের ওপর গবেষণা চালিয়ে তবে এই পিলের কার্যকারিতা সম্পর্কে নিশ্চিত করেছেন। COVID-19 এর প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দিতেই এই পিল খেয়ে নিলে উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ প্রাপ্তবয়স্কদের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রবণতা কমে যাচ্ছে এবং সেই সঙ্গে মৃত্যু কমেছে প্রায় ৮৯%। এখানেই শেষ নয়, পৃথক পরীক্ষাগারে করা আরো একটি পরীক্ষা থেকে জানা গেছে যে ফাইজারের এই ওষুধটি ওমিক্রন ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধেও তার কার্যকারিতা বজায় রেখেছে। ফাইজার অ্যান্টিভাইরাল ড্রাগটি একটি মূল প্রোটিনের মানবসৃষ্ট সংস্করণের বিরুদ্ধে পরীক্ষা করা হয়েছে, ওমিক্রন ভেরিয়েন্টটি নিজেকে বংশবিস্তার করতে এই প্রোটিন ব্যবহার করে। এমন সময়ে এই ওষুধের বিষয়টি সামনে এল যখন গোটা বিশ্বে আবার COVID-19 কেস, মৃত্যু এবং হাসপাতালে ভর্তি হবার প্রবণতা বাড়ছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এখনো পর্যন্ত ৮ লক্ষ মৃত্যুর সাক্ষী থেকেছে। ডেল্টা ভেরিয়েন্ট দ্বারা চালিত সর্বশেষ উত্থান, ঠান্ডা আবহাওয়া এবং অভ্যন্তরীণ সমাবেশের কারণে বাড়ছে করোনার প্রকোপ, এমনকি স্বাস্থ্য আধিকারিকরা উদীয়মান ওমিক্রন মিউট্যান্টের প্রভাবের জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছেন।ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন শীঘ্রই Pfizer এর পিল এবং Merck থেকে ওপর একটি পিল-কে অনুমোদন দেবে কিনা সে বিষয়ে এখন প্রতীক্ষার গোনা শুরু করেছেন গবেষকরা। যদি এই পিল ছাড়পত্র পেয়ে যায় তাহলে বিভিন্ন আমেরিকানরা ফার্মেসিতে এই ওষুধ মিলতে পারে। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ফাইজারের ওষুধকে “ভাইরাসের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াইয়ে আরেকটি সম্ভাব্য শক্তিশালী হাতিয়ার” বলে অভিহিত করেছেন। মার্কিন সরকার ১০ মিলিয়ন মানুষের চিকিৎসার জন্য Pfizer-এর কাছ থেকে পর্যাপ্ত ওষুধ কিনতে সম্মত হয়েছে। তবে কোম্পানির নির্বাহীরা ইঙ্গিত দিয়েছেন যে প্রাথমিক সরবরাহ সীমিত হবে, যা দিয়ে বছর শেষের আগে কয়েক হাজার লোকের চিকিত্সা করা সম্ভব হবে। তবে মার্চ মাস নাগাদ ফাইজার লক্ষ লক্ষ ওষুধ উৎপাদনের লক্ষমাত্রা রেখেছে। মার্ক এবং ফাইজার উভয় সংস্থাই প্রাথমিকভাবে তাদের ওষুধগুলি টিকাবিহীন প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে অধ্যয়ন করেছিল যারা বার্ধক্য বা স্বাস্থ্য সমস্যায় জর্জরিত- যেমন স্থুলতা বা শ্বাসকষ্টের সমস্যা। ফাইজার কম-ঝুঁকিপূর্ণ প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রেও তাদের পিল নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করছে। একজন রোগী জানাচ্ছেন , ফাইজারের পিল নিয়ে পরীক্ষার পর অন্তর্বর্তী ফলাফলে দেখা যাচ্ছে যে এটি চিকিত্সা চলাকালীন বা তার পরের চার দিন ধরে COVID-19 থেকে স্থায়ী মুক্তি দিচ্ছে। পাশাপাশি টিকাবিহীন প্রাপ্তবয়স্ক বা একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যায় জর্জরিত টিকাপ্রাপ্ত প্রাপ্তবয়স্কদের হাসপাতালে যাওয়ার প্রবণতা ৭০% কমিয়ে দিচ্ছে। চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের একটি স্বাধীন বোর্ড ডেটা পর্যালোচনা করেছে এবং সম্পূর্ণ ফলাফল পেতে ফাইজারকে গবেষণা চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। ফাইজারের উভয় গবেষণায়, কোম্পানির ওষুধ গ্রহণকারী প্রাপ্তবয়স্কদের দেহে ভাইরাসের মাত্রা ১০ গুণ কমে গেছে। COVID-19-এর বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য নতুন এই ওষুধ এখনই উত্তর-পূর্ব এবং মধ্যপশ্চিমের সম্প্রদায়গুলির জন্য লব্ধ হচ্ছে না। এদের পেতে এখনো বেশ কিছুটা সময় লাগবে। এদিকে এই অঞ্চলে হাসপাতালে রোগী ভর্তির সম্ভাবনাও আবার বাড়ছে। মার্ক এবং ফাইজার উভয় পিলই ওমিক্রনের বিরুদ্ধে ভাল পারফরম্যান্স করবে বলে আশা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার এনবিসি-এর “টুডে” তে উপস্থিত হয়ে সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন ডিরেক্টর রোচেল ওয়ালেনস্কি বলেছেন, মানুষের জন্য COVID-19 থেকে নিজেদের রক্ষা করার সর্বোত্তম উপায় হল টিকা নেওয়া এবং একটি বুস্টার শট নেওয়া। তিনি বলেছিলেন যে ”ফাইজার পিল যদি এফডিএ দ্বারা অনুমোদিত হয়,তাহলে টিকার পাশাপাশি সেটি আরেকটি দুর্দান্ত হাতিয়ার হবে, তবে আমাদের লোকেদের এবিষয়ে তাড়াতাড়ি সিদ্ধান্তে আসতেহবে।”

সূত্র : apnews.com

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments