Wednesday, December 8, 2021
spot_img
Homeবিচিত্রএশিয়ার সবচেয়ে দামি ফ্ল্যাট, বিক্রি হলো ৭০০ কোটি টাকায়

এশিয়ার সবচেয়ে দামি ফ্ল্যাট, বিক্রি হলো ৭০০ কোটি টাকায়

এশিয়ার সবচেয়ে দামি ফ্ল্যাটটি বিক্রি হলো আট কোটি ২২ লাখ মার্কিন ডলারে। আর এতেই এশিয়ার সবচেয়ে দামি ফ্লাটের রেকর্ড গড়ল এটি। ফ্ল্যাটটির মূল্য বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৭০০ কোটি টাকা।

সম্প্রতি হংকংয়ের অভিজাত এলাকা নিকলসন পর্বতে হিলক আবাসন প্রকল্পের তৃতীয় ধাপের দুটি ফ্লাট বিক্রি হয়। ১৬সি ও ১৬ডি দুটি ফ্লাটের মোট মূল্য ১৫৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। বুধবার হিলক কর্তৃপক্ষের এক বিবৃতিতে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়। আর এতেই জানা যায়, এশিয়ার সবচেয়ে দামি ফ্লাটের রেকর্ড নিজের দখলে নিয়েছে ফ্লাট ডি। তবে হংকং ডলারে মূল্য দাঁড়ায় ৬৪০ মিলিয়ন, মার্কিন ডলারে দাঁড়ায় ৮২.২ মিলিয়ন। প্রতি বর্গফুটের হিসেবে এটাই এশিয়ার সবচেয়ে দামী। তবে সি ও ডি হংকং ডলারে মূল্য দাঁড়ায় ৬৪০ মিলিয়ন, মার্কিন ডলারে দাঁড়ায় ৮২.২ মিলিয়ন। প্রতি বর্গফুটের হিসেবে এটাই এশিয়ার সবচেয়ে দামী ফ্লাট দুটি কারা কিনলেন তা বলা হয়নি।
হিলক আবাসন কর্তৃপক্ষের বিবৃতিতে বলা হয়, ফ্লাট ১৬ডি এবং এর সংযুক্ত পার্কিং স্পেসসহ বিক্রি হয়েছে ৬৩৯.৭৯৬ হংকং ডলারে। এ ফ্লাটের প্রতি বর্গফুটের মূল্য দাঁড়িয়েছে ১,৪০,৮০০ হংকং ডলার। প্রতি বর্গফুটের হিসেবে এটাই এশিয়ার সবচেয়ে দামি ফ্লাট।
এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে সিকে অ্যাসেট হোল্ডিংস লিমিটেড বোরেটরোড প্রকল্প এলাকায় প্রতি বর্গফুট ১৭ হাজার ৪৫৯ মার্কিন ডলারে একটি অ্যাপার্টমেন্ট বিক্রি করেছিল। এবার সেই দামকে ছাড়িয়ে গেলো মাউন্ট নিকলসনের অ্যাপার্টমেন্টটি। এশিয়ার বাণিজ্য নগরী হিসেবে পরিচিত হংকংয়ে জমির স্বল্পতা থাকায় এখানে আবাসন খরচ বেশি। নগরীর ধনীদের জন্য তৈরি করা হয়েছে মাউন্ট নিকলসনের অতিবিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্টগুলো।
বিশ্লেষকরা বলছেন, হংকংয়ের সঙ্গে চীনের মূল ভূখণ্ডের সীমান্ত খুলে দেওয়া হচ্ছে। এ খবরে হংকংয়ের অভিজাত এলাকার ফ্লাটের দর আকাশ ছুঁয়েছে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments