Thursday, February 22, 2024
spot_img
Homeখেলাধুলাএক ওভারেই ৩ উইকেট নিয়ে বরিশালকে জেতালেন রানা

এক ওভারেই ৩ উইকেট নিয়ে বরিশালকে জেতালেন রানা

জয়ের জন্য শেষ ২ ওভারে খুলনা টাইগার্সের প্রয়োজন ২১ রান। অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমসহ খুলনার হাতে ৩ উইকেট। ১৯তম ওভারে বোলিংয়ে এলেন মেহেদী হাসান রানা। প্রথম বলেই ক্যাচ তুলে বেঁচে গেলেন মুশফিক। দ্বিতীয় বলে আউট ফরহাদ রেজা। পরের দুই বলে দুই সিঙ্গেলস। পঞ্চম বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে সীমানার কাছে ধরা পড়লেন শরীফুল্লাহ। আর ষষ্ঠ বলে স্কুপ করতে গিয়ে আউট হলেন মুশফিকও।একই ওভারে ৩ উইকেট নিয়ে ফরচুন বরিশালকে ১৭ রানের জয় এনে দিলেন পেসার রানা।

টার্গেটটা খুব বেশি ছিল না। ১৪২ রান করলেই বিপিএলে তৃতীয় জয়ের দেখা পেত খুলনা। কিন্তু বরিশালের বোলাররা শুরু থেকেই চেপে ধরে খুলনাকে। এতে ১ ওভার বাকি থাকতেই ১২৪ রানে গুটিয়ে যায় খুলনার ইনিংস।
অধিনায়ক মুশফিক ছাড়া খুলনার কোনো ব্যাটারই দাঁড়াতে পারেননি ক্রিজে। ৩৬ বলে একটি করে চার ছয়ে ৪০ রান করেন মুশি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৩ রান আসে ইয়াসির আলীর ব্যাট থেকে। ৯ বলে ১৯ রান করেন থিসারা পেরেরা।
সৌম্য সরকার এবারো ব্যর্থ। মুজিবের বলে গোল্ডেন ডাক মেরেছেন তিনি। আগের ম্যাচে ফিফটি হাঁকানো আন্দ্রে ফ্লেচার এবার ৪ রানেই ফেরত গেছেন সাজঘরে।
আফগান অফস্পিনার মুজিব উর রহমান ৪ ওভারে মাত্র ২২ রানে তুলে নেন খুলনার দুই ওপেনারের উইকেট। অধিনায়ক সাকিবও ছিলেন কিপ্টে। ৪ ওভারে ২৪ রানে তার শিকার ১ উইকেট। জ্যাক লিনটট ১৯ রানে নিয়েছেন ২টি। আর মেহেদী হাসান রানা ৩ ওভারে ১৭ রানে নেন ৪ উইকেট।

আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৪১ রান জড়ো করে সাকিব আল হাসানের বরিশাল।
টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২৪ রানে প্রথম উইকেট হারায় বরিশাল। ব্যক্তিগত ১১ রানে শরীফুল্লাহর উইকেটে পরিণত হন জ্যাক লিনটট। ৩৪ বলে দলীয় সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন ক্রিস গেইল। ইউনিভার্স বসের ইনিংসে ছিল ৬ চার ও ২ ছক্কা।
জিয়াউর রহমান ১০, নাজমুল হোসেন শান্ত ১৯ এবং তৌহিদ হৃদয় ২৩ রান করেন। অধিনায়ক সাকিব আল হাসান সুবিধা করতে পারেননি। ৬ বলে ৯ রান করে সাজঘরে ফিরেন তিনি।
খুলনার কামরুল ইসলাম রাব্বী, থিসারা পেরারার এবং ফরহাদ রেজা ২টি করে উইকেট নেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments