সরকারকে সতর্ক করেছেন বৃটিশ এমপিরা। তারা বলেছেন, বৃটেনের চিপ ডিজাইনার প্রতিষ্ঠান এআরএম লিমিটেডকে কিনে নেয়ার চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি এনভিডিয়া করপোরেশন। এ বিষয়ে আলোচনা চলছে। এক্ষেত্রে বৃটেনকে যদি টেনে নেয়া হয় যুক্তরাষ্ট্র-চীনের মধ্যকার বাণিজ্য যুদ্ধে তাতে বিদেশের বাজারে বৃটেনের সুবিধা দুর্বল হবে। এ বিষয়ে এনভিডিয়া এবং বৃটিশ সরকারের মধ্যে আলোচনা প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ব্লুমবার্গ। এই আলোচনার বিষয়ে জানেন এমন একজন সূত্র বলেছেন, বৃটিশ সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী অলিভার ডোডেন এই চুক্তিটি কমপিটিশন এন্ড মার্কেটস অথরিটির (সিএমএ) কাছে পাঠানো হবে কিনা তা বিবেচনা করছেন। এমনিতেই যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনের বাণিজ্যিক সংঘাত চলছে।

তাতে এমন চুক্তি হলে বৃটেন তার মধ্যে জড়িয়ে যাওয়ার ঝুঁকি আছে বলে মনে করছেন পার্লামেন্ট সদস্যরা। তাই তারা এই ঝুঁকির বিষয়টি পরীক্ষা করতে অনুরোধ করেছেন মন্ত্রীদের প্রতি। তারা এরই মধ্যে এমআরএমের কেমব্রিজ প্রধান কার্যালয়ের কর্মীদের কর্মসংস্থান নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।
এরই মধ্যে বৃটেনের পলিসি তৈরির খাতকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে প্রযুক্তি বিষয়ক লড়াই। চীনা কোম্পানি হুয়াওয়ের প্রযুক্তি রপ্তানিতে যুক্তরাষ্ট্র অবরোধ দেয়ার পর এ বছরই বৃটেনে পঞ্চম জেনারেশনের নেটওয়ার্কে চীনা কোম্পানি হুয়াওয়েকে যুক্ত করা নিয়ে বাধ্য হয়ে ইউটার্ন নিয়েছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এই ইস্যুটি বৃটেনের জন্য জটিল। কারণ, তারা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাণিজ্য চুক্তি করতে চাইছে। অন্যদিকে তাদের বাণিজ্যিক সর্বোচ্চ অংশীদার ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে তাদের বিচ্ছেদ ঘটছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English