Monday, May 27, 2024
spot_img
Homeধর্মউচ্চাকাঙ্ক্ষা ও আভিজাত্য যখন পুণ্যের কাজ

উচ্চাকাঙ্ক্ষা ও আভিজাত্য যখন পুণ্যের কাজ

মহান আল্লাহ মানুষ সৃষ্টি করেছেন। সবার ভেতর দিয়েছেন বিভিন্ন ধরনের আকাঙ্ক্ষা। সবার আকাঙ্ক্ষা সমান নয়। কিন্তু আল্লাহ চান সবার কাঙ্ক্ষিত বস্তুটি উন্নত, উত্কৃষ্ট হোক।

নবীজি (সা.) ইরশাদ করেন, নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ যাবতীয় উন্নত ও উত্কৃষ্ট পছন্দ করেন এবং নিম্নতা অপছন্দ করেন। (সহিহুল জামে, হাদিস : ১৮৯০)

অন্য হাদিসে রাসুল (সা.) বলেন, নিশ্চয়ই আল্লাহ সুন্দর, তিনি সুন্দর ভালোবাসেন। (মুসলিম, হাদিস : ১৬৬)

আল্লাহর কাছে শ্রেষ্ঠটি চাওয়ার নির্দেশ : আমরা যখন মহান আল্লাহর কাছে কোনো কিছু চাই তখন যেন আমরা তাঁর কাছে শ্রেষ্ঠ জিনিসটিই চাই—সে নির্দেশই নবীজি (সা.) আমাদের দিয়েছেন। ইরশাদ হয়েছে, তোমরা আল্লাহর কাছে চাইলে ফিরদাউস চাইবে, কেননা এটাই সবচেয়ে উত্তম ও সর্বোচ্চ জান্নাত। (বুখারি, হাদিস : ২৭৯০)

আমরা যেন আল্লাহর উত্তম বান্দা হতে পারি, সবার অনুকরণীয় হতে পারি, মুত্তাকিদের জন্য আদর্শস্বরূপ হতে পারি—তা কামনার নির্দেশও আমাদের দেওয়া হয়েছে। ইরশাদ হয়েছে, ‘হে আমাদের রব!…আপনি আমাদের মুত্তাকিদের জন্য আদর্শ বানান। ’ (সুরা : ফুরকান, আয়াত : ৭৪)

উচ্চাকাঙ্ক্ষী সেলাকদের সঙ্গী বানাতে হবে : যারা উচ্চতা ও শ্রেষ্ঠত্বের আকাঙ্ক্ষা করে, আকাঙ্ক্ষা করে মহান রবের সন্তুষ্টি ও তাঁর দিদার লাভের—তাদের সঙ্গী বানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইরশাদ হয়েছে, ‘আপনি নিজেকে তাদের সঙ্গে জুড়ে রাখুন, যারা নিজেদের রবকে সকাল-সন্ধ্যায় ডাকে—তাঁর সন্তুষ্টির অভিলাষী হয়ে। ’ (সুরা : কাহফ, আয়াত : ২৮)

রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, মানুষ তার বন্ধুর রীতিনীতির অনুসারী হয়। কাজেই তোমাদের প্রত্যেকেই যেন লক্ষ করে, সে কার সঙ্গে বন্ধুত্ব করছে। (আবু দাউদ, হাদিস : ৪৮৩৩)

অলস সফল হতে পারে না : অলস কখনো সফল হতে পারে না। অলসরা সব কাজ আগামীকালের জন্য রেখে দেয়। কিন্তু আগামীকাল আর আসে না। সফল হতে যদি কোনো কিছু ত্যাগ করতে হয়, তাহলে অলসতাকেই ত্যাগ করতে হবে। কখনো অলসতার দাপটে উচ্চাকাঙ্ক্ষাও নিঃশেষ হয়ে যায়। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, রাতের বেলা শয়তান তোমাদের প্রত্যেকের মাথায় একটি দড়ি দিয়ে তিনটি গিরা দেয়। সে ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে আল্লাহকে স্মরণ করলে একটি গিরা খুলে যায়। সে উঠে অজু করলে আরেকটি গিরা খুলে যায়। অতঃপর সে যখন সালাতে দাঁড়ায় তখন সব গিরা খুলে যায়। ফলে সে প্রশস্ত মনে হূষ্টচিত্তে ভোরে উপনীত হয় এবং কল্যাণপ্রাপ্ত হয়। আর সে যদি এরূপ না করে তবে তার ভোর হয় অলসতা এবং অপবিত্র মন নিয়ে। ফলে সে কল্যাণ লাভ করতে পারে না। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ১৩২৯)

উচ্চাকাঙ্ক্ষার সহায়ক : দৃঢ় সংকল্প ও অবিচলতা উচ্চাকাঙ্ক্ষার অন্যতম সহায়ক। দৃঢ় সংকল্প ও অবিচলতা ছাড়া অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছা যায় না। তাই মহান আল্লাহ আমাদের নবীজি (সা.)-কে অবিচল থাকার নির্দেশ দিয়েছেন, ‘অতএব আপনি অবিচল থাকুন, যেমন অবিচল থেকেছেন দৃঢ় হিম্মতের অধিকারী রাসুলরা এবং আপনি তাদের ব্যাপারে তাড়াহুড়া করবেন না। ’ (সুরা : আহকাফ, আয়াত : ৩৫)

লেখক : মুহাদ্দিস, জামিয়া আম্বরশাহ আল ইসলামিয়া, কারওয়ান বাজার, ঢাকা

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments