‘ইসলাম সংকটে রয়েছে’ বলে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো যে বক্তব্য রেখেছেন সেটার কঠোর সমালোচনা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। সম্প্রতি ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট সে দেশে ইসলামকে ‌‘বিদেশি ও কট্টরদের’ প্রভাবমুক্ত করার ডাক দিয়েছেন। এরদোগানের মতে, এটা হলো খোলাখুলি উস্কানি দেয়া।

গত সপ্তাহে ম্যাঁক্রো জানিয়েছেন, ‘বিশ্বজুড়েই ধর্ম হিসেবে ইসলাম সংকটে। আগামী ডিসেম্বরে সরকার একটি বিল আনবে। ১৯০৫ সালে ফ্রান্সে রাষ্ট্রের থেকে চার্চকে আলাদা করা হয়েছিল। সেই আইনকেই আরো শক্তিশালী করা হবে।’ মাক্রোর পরিকল্পনা হলো, মসজিদে বিদেশি অর্থ আসা নিয়ন্ত্রণ করা এবং শিক্ষা ব্যবস্থারও তদারকি করা।

তবে ফরাসি প্রেসিডেন্টের এই পরিকল্পনাকে খোলাখুলি উস্কানি বলে বর্ণনা করে তীব্র সমালোচনা করেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান। এক টেলিভিশন ভাষণে বলেছেন, ‘ইসলাম সংকটে বলে ম্যাঁক্রো যে শুধু ধর্মকে অশ্রদ্ধা করেছেন তাই নয়, খোলাখুলি উস্কানিও দিয়েছেন।’

ফরাসি প্রেসিডেন্টকে তীব্র আক্রমণ করে এরদোগান আরো বলেছেন, ‘ম্যাঁক্রো এই সব কথা বলে তার ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। ইসলামের কাঠামো নিয়ে কথা বলার তিনি কে?’

ম্যাঁক্রো ও এরদোগানের সম্পর্ক এমনিতেই মধুর নয়। আর্মেনিয়া-আজারবাইজান লড়াই এবং পূর্ব ভূমধ্যসাগর নিয়ে দুই নেতার বিরোধ সামনে এসেছে। এবার ইসলাম নিয়েও তাদের তীব্র মতবিরোধ সামনে এলো।

এরদোগানের পরামর্শ, ‘ম্যাঁক্রো যেসব বিষয়ে কিছুই জানেন না, সেই সব বিষয়ে বলার আগে যেন ভালো করে বিষয়টা জেনে নেন। আমরা চাই তিনি দায়িত্বশীল প্রেসিডেন্টের মতো কাজ করুন। ঔপনিবেশিক গভর্নরের মতো নয়।’

সূত্র: ডয়েচে ভেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

English