Monday, May 27, 2024
spot_img
Homeবিচিত্রআকাশে রহস্যময় নীল আলো, ধাঁধায় জ্যোর্তিবিজ্ঞানীরা

আকাশে রহস্যময় নীল আলো, ধাঁধায় জ্যোর্তিবিজ্ঞানীরা

আকাশে রহস্যময় সর্পিল নীল আলো দেখে ধাঁধায় পড়ে গেছেন নিউজিল্যান্ডের জ্যোর্তিবিজ্ঞানীরা। স্থানীয় সময় রোববার রাতে স্টুয়ার্ট দ্বীপ/রাকিউরায় এই রহস্যময় নীল আলো দেখা গেছে বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

জ্যোর্তিবিজ্ঞানী আলাসদাইর বার্নস জানান, সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটের দিকে স্টুয়ার্ট দ্বীপ/রাকিউরার বার্নসে তার এক বাইরে গিয়ে আকাশ দেখার জন্য বার্তা পাঠায়। 

তিনি বলেন, বাইরে গিয়ে ওই আলো দেখেই বুঝতে পারেন বন্ধু কী দেখতে বলেছিল। 

বার্নস অন্ধকারের মধ্যে একটি বিশাল, নীল সর্পিল আলো দেখতে পায়।

তিনি বলেন, এটি একটি বিশাল সর্পিল গ্যালাক্সির মতো দেখাচ্ছিল। মনে হচ্ছিল সেখানে আকাশে ঝুলছে এবং ধীরে ধীরে শুধু ভেসে যাচ্ছে। এটি বেশ ভীতিকর অনুভূতি বলেও জানিয়েছেন বার্নস। 

বার্নস তার ফোনে দূর থেকে ওই আলোর কয়েকটি ছবি তুলেছিলেন। 

তিনি বলেন, আমরা দ্রুত আমাদের সব প্রতিবেশীদের বিষয়টি জানাই। আমরা প্রায় পাঁচজন ছিলাম, সবাই বারান্দায় উঠে ওই আলো দেখছিলাম। আমরা কিছুটা ভয় পেয়েছিলাম।

দেশের অপেশাদার জ্যোতির্বিদ্যার সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপগুলোতে এই সংক্রান্ত বিভিন্ন ছবি পোস্ট করা হয়েছে, চলছে এ নিয়ে আলোচনা-প্রশ্ন। ইউএফও থেকে শুরু করে বিদেশি রকেট কিংবা বাণিজ্যিক আলোক প্রদর্শনীসহ নানা তত্ত্ব সামনে এসেছে। 

তবে অকল্যান্ড ইউনিভার্সিটির পদার্থবিজ্ঞানী অধ্যাপক রিচার্ড ইস্টার বলেছেন, বাস্তবতাটা সম্ভবত একটু বেশিই অপ্রীতিকর। তিনি ঘটনাটিকে ‘অদ্ভুত কিন্তু সহজে ব্যাখ্যা যোগ্য’ বলে অভিহিত করেছেন। 

কোনো রকেট যখন একটি স্যাটেলাইটকে কক্ষপথে নিয়ে যায় তখন এই ধরনের আলো দেখা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

ইস্টার বলেন, আলোচিত রকেটটি সম্ভবত স্পেসএক্স থেকে গ্লোবালস্টার লঞ্চ ছিল,। রোববার ফ্লোরিডার কেপ ক্যানাভেরাল থেকে পৃথিবীর নিম্ন কক্ষপথে স্পেসএক্স রকেটটি পাঠিয়েছিল।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments